ঢাকা, বৃহস্পতিবার 19 April 2018, ৬ বৈশাখ ১৪২৫, ২ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কেশবপুরে মাদরাসার জমি আত্মসাতের অভিযোগে ১৬ জনের নামে আদালতে মামলা

কেশবপুর (যশোর) সংবাদদাতা : যশোরের কেশবপুর উপজেলার সন্ন্যাসগাছা বালিকা দাখিল মাদ্রাসার জমি প্রতারণা করে বিক্রি করার অভিযোগে ১৬ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে। গত ১৩ মার্চ ওই মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মোস্তাক সরদার বাদি হয়ে বিজ্ঞ অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কেশবপুর আমলী আদালতে মামলাটি করেছেন। যার নং-সি, আর-৭৫/১৮।
অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, উপজেলার সন্ন্যাসগাছা গ্রামে সন্ন্যাসগাছা বালিকা দাখিল মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠাকালে এলাকার আমির হোসেন মোল্যা, আব্দুল আহাদ মোল্যা, আফতাব উদ্দীন, বজলুর রহমান ১৯৮৮ সালের ১৯ মার্চ ৬ বন্দে ১ একর ৮ শতক জমি ১৪২১ নং দলিল মূলে মাদ্রাসার নামে রেজিস্ট্রি করে দেয়। ২০১৭ সালের ২৯ অক্টোবর উক্ত দাতাগণ মাদ্রাসার নামে রেজিস্ট্রিকৃত জমি সরকারি কোনো অনুমতি ছাড়াই প্রতারণার মাধ্যমে মোটা অংকের টাকা আতœসাতের লক্ষ্যে ওই জমির মধ্যে থেকে ১৬ শতক জমি সন্ন্যাসগাছা গ্রামের আবিদ হোসেন মোল্যা, শাহিনুর মোল্যা, শামিম মোল্যা ও আহসান হাবিব মোল্যার কাছে ৫৪৬৬ নং দলিলমূলে বিক্রি করে দেয়। এছাড়া সন্ন্যাসগাছা গ্রামের আব্দুল খালেক মোল্যা মাদ্রাসার বিভিন্ন প্রজাতীর ২ লাখ টাকার গাছ কর্তন করে বিক্রি করে দেয়। গত ১১ মার্চ বাদি মাদ্রাসার জমি ফেরতের দাবি জানালে আসামীরা তা অস্বীকার করায় বাদি মামলাটি করেছেন।
মামলার আসামীরা হলো, সন্ন্যাসগাছা গ্রামের আব্দুল খালেক মোল্যা, আবিদ হোসেন মোল্যা, শাহিনুর মোল্যা, শামীম মোল্যা, আহসান হাবিব মোল্যা, শফিকুল ইসলাম, ভরতভায়না গ্রামের আব্দুল গফুর আনসারী, সারুটিয়া গ্রামের শেখ আব্দুল্লাহ, আড়ুয়া গ্রামের এমএম আব্দুল মালেক, সানতলা গ্রামের তহমিনা মজুমদার, দশকাহুনিয়া গ্রামের লুৎফর সরদার, রুহুল আমীন সরদার, রশিদ মোড়ল, সালমা খাতুন, বায়সা গ্রামের আরিফ বিল্লাহ ও ভেরচি গ্রামের আব্দুল ওহাব সরদার। এ মামলায় বাদি আসামীদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জরির দাবি জানিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ