ঢাকা, শুক্রবার 20 April 2018, ৭ বৈশাখ ১৪২৫, ৩ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চুক্তি থেকে বাদ পড়া মানেই তো সব শেষ না : মাশরাফি

স্পোর্টস রিপোর্টার : বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়েছেন সৌম্য সরকার, তাসকিন আহমেদ, ইমরুল কায়েস, কামরুল ইসলাম রাব্বী এবং মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। পারফরম্যান্সের বিবেচনায় তাদেরকে চুক্তি থকে বাদ দিয়েছে বিসিবি। তবে মাশরাফির বিশ্বাস তাদের সামর্থ্য রয়েছে পুনরায় চুক্তিতে ঢোকার। কেন্দ্রীয় চুক্তিতে বাদ পড়ার কারণে মাসিক যে বেতন পেতেন সেটা পাওয়া হচ্ছে না ক্রিকেটারদের। ক্রিকেটারদের জন্য যে এটা বিরাট ক্ষতি তা বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে আর্থিক বিষয়গুলোকে এড়িয়ে সামনে কিভাবে ভালো পারফরম্যান্স করা যায় সেসব নিয়ে চিন্তা করার পরামর্শ দিয়েছেন মাশরাফি। গতকাল এক অনুষ্ঠানে মাশরাফি বিন মুর্তজা জোর গলায় কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়া ক্রিকেটারদের উদ্দেশ্যেই বলেন কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়া মানেই তো সব শেষ না! মাশরাফি বলেন, ‘বেতনের বিষয়টা নির্ভর করে পারফরম্যান্সের ওপর, এটা সত্য কথা। সবকিছু সম্পর্কিত। এখন বোর্ড যে সিদ্ধান্ত নেবে, সেটাই চূড়ান্ত। পারফরম্যান্স সব সময়ই একই গ্রাফে চলে না। কারও কখনো ভালো যায়, কারও কখনো খারাপ। যারা বাদ পড়ল তারা তো আর বসে থাকবে না। বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়া মানেই তো সব শেষ না। তাদের অবশ্যই ফিরে আসার চেষ্টা করতে হবে। আমার বিশ্বাস তারা পারবে। তারা আগে কোনো না কোনোভাবে বাংলাদেশ দলে অবদান রেখেছে। হয়তোবা সাময়িক পারফরম্যান্স খারাপ হতে পারে, তাদের অবদান কিন্তু কমাতে পারবেন না। এখন হয়তো বাজে সময় যাচ্ছে। কিভাবে তারা ফিরে আসবে সেটা তাদেরকেই ভালোভাবে চিন্তা করতে হবে।’ মাশরাফি বলেন, ‘যতদিন ধরে খেলছি বেতনের ভেতর ছিলাম কি ছিলাম না এসব নিয়ে ভাবিনি। আমার কাছে এটা কখনোই পরিষ্কার নয়। আমার সব সময়ই প্যাশন ছিল ক্রিকেট খেলা। ওই প্যাশন নিয়ে ক্রিকেট খেলছি। আর বেতন একজন খেলোয়াড়ের জন্য অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ। দেশের বেশির ভাগ খেলোয়াড় এসেছে মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে। বেতন বা খেলার বিরাট প্রভাব থাকে তাদের পরিবারের ওপর। এটা অস্বীকার করার সুযোগ নেই। পাশাপাশি একই সময়ে একজন খেলোয়াড়কে ততটুকু প্যাশনেট হয়ে খেলতে হবে।’ বাদ পড়া ক্রিকেটারদের পাশে থেকে নিজের সমর্থন আরও বাড়িয়ে দেয়ার কথা জানিয়েছেন মাশরাফি। বলেন, ‘আমরা সিনিয়ররা যারা আছি, চেষ্টা করব তাদের পাশে থাকার। তার যেন সেরা ফর্মে ফিরে আসে, বাংলাদেশকে দীর্ঘ সময় ধরে সেবা দিতে পারে এবং ধারাবাহিকতা যেন আগের চেয়ে আরও বেশি থাকে, যে সাপোর্ট তাদের লাগে সেটা অবশ্যই আমরা দেব। দসৌম্য-সাব্বির-তাসকিন-মোসাদ্দেক দেশের সত্যিকারের ভবিষ্যৎ।তাদের সমর্থন করা আমাদের প্রত্যেকের এখন দায়িত্ব। আমার জায়গা থেকে আমি পিছু পা হব না। আমরা সকলেই জানি যে বাংলাদেশের এত বেশি বিকল্প খেলোয়াড় নেই। তারা নিজেদের ছোট ক্যারিয়ারে সেটি প্রমাণ করেছে। আমার বিশ্বাস ধারাবাহিকতা বাড়িয়ে যদি ফর্মে ফিরে আসে লংটাইম বাংলাদেশকে সার্ভিস দিতে পারবে।’ গত বছর ১৬ ক্রিকেটার ছিল বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে। চলতি বছরের শুরুতে বাদ পড়েছিলেন সাব্বির রহমান। শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে সাব্বির রহমানকে বাদ দেয়া হয়। এবার নতুন চুক্তিতে আগের থাকা ৫ ক্রিকেটার বাদ পড়েছেন। রয়েছেন ১০ ক্রিকেটার। নতুন করে ৩ ক্রিকেটারের নাম সুপারিশ করা হয়েছে। তারা ঢুকবেন কেন্দ্রীয় চুক্তিতে। ১০ ক্রিকেটার হলেন- মাশরাফি বিন মুর্তজা, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মুস্তাফিজুর রহমান, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, রুবেল হোসেন ও মুমিনুল হক।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ