ঢাকা, শনিবার 21 April 2018, ৮ বৈশাখ ১৪২৫, ৪ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বটিয়াঘাটার খারাবাদ বাইনতলা কলেজের নাম পরিবর্তনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

খুলনা অফিস : কলেজের নাম পরিবর্তন করার ষড়যন্ত্রে লিপ্তথাকার প্রতিবাদে ও কলেজের অধ্যক্ষের পদত্যাগের দাবিতে হাজার হাজার নারী-পুরুষ মানববন্ধন ও বিক্ষেভ সমাবেশ করেছে। সমাবেশ থেকে ৪৮ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে এলাকাবাসী। সম্প্রতি ১১টায় বটিয়াঘাটা উপজেলার আমিরপুর ইউপির খারাবাদ বাইনতলা স্কুল এন্ড কলেজের নাম পরিবর্তনের প্রতিবাদে কলেজস্থ বাজারে এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়।
ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. খলিলুর রহমানের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজলো যুবলীগের যুগ্ন-আহবায়ক আমিরপুর ইউপি চেয়ারম্যান জিএম মিজানুর রহমান মিলন গোলদার, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ নাসির উদ্দিন, শামছুর রহমান, হুমায়ুন কবির, মিজানুুর রহমান মিজান, জাকির হোসেন, শাহিন শেখ, শেখ সোলাইমান, কাতিবুর রহমান, ইউপি সদস্য মিজানুর রহমান, আক্তার হোসেন, ফেরদাউস মল্লিক, রেখা বেগম, আফরোজা বেগম, মাহমুদা বেগম, আজজিুল ইসলাম, নিরাঞ্জন পাল, ভক্ত পাল, সাবেক ছাত্রনেতা শিহাব খন্দকার, ছাত্রলীগের সভাপতি আশিকুর রহমান, নজরুল ইসলাম, আসলাম খান, আনিছুর রহমান, আব্দুল হালিম আকুঞ্জি, আব্দুর রাজ্জাক শেখ রাজা, রবিউল ইসলাম, তোফাজ্জেল, শরিফুল ইসলাম, হোসেন, ফারুক শেখ, এনামুল হক, আব্দুল হান্নান শেখ, জবিউল্লা শেখ, কৌশিক পাল, রাজ খান, জাহাঙ্গীর হোসেন, ডালমি, রোকন, শিহাব শেখ, মো. আকাশ, ফারুক, দারদা, উৎপল প্রমুখ।
মানববন্ধন চলাকালে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, ১৯৪০ সালে ঐতিহ্যবাহী খারাবাদ বাইনতলা স্কুল এন্ড কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়। এলাকার সর্বস্তরের মানুষ কলেজেটির নামকরণ করেন খারাবাদ বাইনতলা স্কুল এন্ড কলেজ নামে। দীর্ঘদিনের এই নামটি রাতারাতি কলেজের অধ্যক্ষ আবুল কাসেম পরিবর্তন করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। এই আবুল কাসেম অবৈধ পন্থায় কলেজের অধ্যক্ষ পদে বসেছেন। ঘটনাটি এলাকাবাসী জানতে পেরে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। একই সাথে সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে ও কলেজের অধ্যক্ষের পদত্যাগের দাবিতে ৪৮ ঘন্টার আল্টিমেটাম ঘোষণা করেছেন এলাকাবাসী।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ