ঢাকা, শুক্রবার 19 October 2018, ৪ কার্তিক ১৪২৫,৮ সফর ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

এবার বাসচাপায় পা বিচ্ছিন্ন তরুণীর

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: এবার বিআরটিসির বাস চাপায় পা হারিয়েছেন এক তরুণী।ওই তরুণীর নাম রোজিনা। গতকাল শুক্রবার রাত ৯টার দিকে বনানীর চেয়ারম্যানবাড়ি ফুটওভার ব্রিজের কাছে বিআরটিসি বাসের নিচে পড়ে তার ডান পা হাঁটু থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

দুই বাসের রেষারেষিতে হাত হারিয়ে মারা যাওয়া রাজীবের মৃত্যুশোক কাটতে না কাটতেই এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটলো।

আহত রোজিনাকে রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাতে চেয়ারম্যান বাড়ি ফুটওভার ব্রিজের নিচ থেকে ‍কিছু দূরে রাস্তা পার হওয়ার সময় রোজিনা রাস্তায় পড়ে যান। এ সময় মহাখালী থেকে উত্তরাগামী বিআরটিসির একটি দোতলা বাস তার ডান পায়ের ওপর দিয়ে চলে যায়। এতে হাঁটু থেকে পায়ের নিচের অংশ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় রোজিনার। আশপাশের লোকজন দ্রুত উদ্ধার করে তাকে রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করেন।

আহত রোজিনা গৃহকর্মীর কাজ করতেন বলে জানা গেছে। মহাখালীর এক আত্মীয়ের বাসা থেকে গুলশানের নিকেতনে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় পা বিচ্ছিন্ন হয় তার। 

জানতে চাইলে বনানী থানার ওসি বি এম ফরমান আলী জানান, বিআরটিসির একটি বাসের চাপায় মেয়েটির ডান পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। দুর্ঘটনার পর বাসচালককে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে গতকাল রাতেই একটি মামলা করা হয়েছে। আহত ওই তরুণীকে পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গত ৩ এপ্রিল রাজধানীর কারওয়ান বাজারে স্বজন পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে বিআরটিসির একটি বাসের রেষারেষিতে চাপা পড়ে হাত হারান সরকারি তিতুমীর কলেজের স্নাতকের (বাণিজ্য) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রাজীব হোসেন। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৬ এপ্রিল দিবাগত রাতে মারা যান তিনি। এছাড়া ১৭ এপ্রিল গোপালগঞ্জে ট্রাকের ধাক্কায় হাত বিচ্ছিন্ন হয় হৃদয় শেখ নামে বাস চালকের এক সহকারীর। পরে  তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ