ঢাকা, রোববার 22 April 2018, ৯ বৈশাখ ১৪২৫, ৫ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নির্মাণ শেষ না হতেই ভেঙ্গে পড়ল গাইড ওয়াল

 

ভূঞাপুর, টাঙ্গাইল সংবাদদাতা : ভূঞাপুরের গোবিন্দাসী বাজার থেকে গোবিন্দাসী স্কুল রোড পর্যন্ত প্রায় দশ টাকা ব্যায়ে নির্মিত রাস্তার কাজ শেষ না হতেই ভেঙ্গে পড়েছে। 

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নি¤œমানের কাজ ও দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রকৌশলীর দুর্নীতির কারণে এমন হয়েছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

সরেজমিনে জানা যায়, বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব -ভূঞাপুর সড়ক হতে গোবিন্দাসী উচ্চ বিদ্যালয় ও বাজারে যাতায়াতের এক মাত্র রাস্তা এটি। 

এ রাস্তায় বিপুল সংখ্যক জনগোষ্ঠি প্রতিনিয়তই যাতায়াত করে। জনগুরুত্বপূর্ণ এ রাস্তাটি সংস্কারের জন্য ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে একটি সংস্কার প্রাক্কলন তৈরি করে স্থানীয় সরকারের উপজেলা প্রকৌশল বিভাগ। 

প্রকল্পটি ব্যয় ধরা হয় ৯ লক্ষ ৯১ হাজার ৫শত ৮৪ টাকা। কোটেশনের মাধ্যমে কাজ দেয়া হয় শহিদুল এন্টারপ্রাইজ নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে। 

গত ২৯ মার্চ দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রকৌশলী অনিক সহার স্বাক্ষতির একটি অনুমতি পত্রে ১৫মিটার গাইড ওয়াল সংস্কার, ৮৯ মিটার মাটি দিয়ে গর্ত ভরাট, ১৩১ মিটার দৈর্ঘ ৩ মিটার প্রস্থ ও  ৬ ইঞ্চি পুরুত্ব সিসি ঢালাই এবং ২ফুট গভীরতায় এজিং করার কথা। 

কিন্তু ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রকৌলর যোগসাজসে নি¤œমানের কাজ করায় উপড়ে পড়েছে পুরো গাইড ওয়াল। 

৬ ইঞ্চি পুরুত্ব সিসি ঢালাই দেয়ার কথা থাকলওে ২ ইঞ্চি পুরু করে ঢালাই দেয়ায় তা ভেঙ্গে পড়েছে। এদিকে স্থানীয়রা জানান, ঠিকাদারের নাম ব্যবহার করলেও মূলত কাজ করেছেন স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তফিজুর রহমান বাবলু।

এবিষয়ে মোস্তাফিজুর রহমান বাবলু নিজে ঠিকাদার অস্বীকার করে বলেন, ঠিকাদারী কাজে একটু উনিশ-বিশ হয়। 

তার মতে প্রকৌশল বিভাগের প্রাক্কলন ক্রটি ও তদারকির অভাবের জন্যই এমন ঘটনা ঘটেছে।

উপজেলা প্রকৌশলী অনিক সাহার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এবিষয়ে কথা বলতে রাজী হননি।

এব্যারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ঝোটন চন্দ বলেন, ঘটনাটি সরেজমিনে পরিদর্শন করেছি। সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ