ঢাকা, রোববার 22 April 2018, ৯ বৈশাখ ১৪২৫, ৫ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেল কিশোরী

সিদ্দিকুর রহমান মাসুম, হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেয়েছে ১৩ বছর বয়সী এক কিশোরী। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ-বিন-হাসানের নির্দেশে সম্প্রতি উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মীর তারিন বাশার লিমা বিয়ে বাড়িতে গিয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেন। সূত্রে জানা যায়, নবীগঞ্জ পৌর এলাকার আনমনু গ্রামের বদর উদ্দিন ১৩ বছর বয়সী কন্যার সাথে একই গ্রামের আব্দুল হক মিয়ার ছেলের বিয়ের আয়োজন করা হয়। শুক্রবার (১৩ এপ্রিল) দুপুরে এ বিয়ে সম্পন্ন হবার কথা ছিলো। ধুমধামে চলছিল বিয়ের প্রস্তুতি। এর আগেই বাল্য বিয়ের খবর পান নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ-বিন-হাসান। তিনি তাৎক্ষনিকভাবে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মীর তারিন বাশার লিমাকে বাল্য বিয়েটি বন্ধ করার নির্দেশ দেন। পরে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সরেজমিনে বিয়ে বাড়িতে গিয়ে কনের বাবা-মা এবং পরিবারের সকলকে বাল্য বিয়ের কুফল সর্ম্পকে অবহিত করলে তারা মেয়ের ১৮ পূর্ন না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিবে না বলে লিখিত অঙ্গীকার করেন এবং বিয়ের আয়োজন ভন্ডুল করে দেন। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ-বিন হাসান বলেন, ‘নবীগঞ্জ পৌর এলাকার আনমনু গ্রামের বদর উদ্দিন অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এমন তথ্যের ভিত্তিতে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে পাঠিয়ে তাৎক্ষনিকভাবে ওই বিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। কনের পরিববার এ কাজ থেকে বিরত থাকার লিখিত অঙ্গিকার করেছে’।

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ