ঢাকা, রোববার 22 April 2018, ৯ বৈশাখ ১৪২৫, ৫ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

পুলিশের কাজ রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে হয়রানি করা নয় - সাবের হোসেন চৌধুরী 

স্টাফ রিপোটার: নির্বাচনকে সামনে রেখে কোনো ধরনের সহিংসতা করার চেষ্টা করা হলে তা কঠোর হাতে দমন করা হবে বলে হুঁশিয়ারি করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। গতকাল শনিবার সকালে রাজধানীর সবুজবাগ থানার নতুন ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন এবং মাদকবিরোধী সমাবেশে ডিএমপি কমিশনার এ কথা বলেন। সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা-৯ আসনের সাংসদ সাবের হোসেন চৌধুরী।  এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ডিএমপি’র উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিগণ। সবুজবাগ থানার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে আয়োজিত সুধী সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন পিপিএম (বার)।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘এই ২০১৮ সালকে ঘিরে যদি কেউ কোনো রকম ২০১৩, ১৪, ১৫, ১৬-এর মতো অরাজকতা সৃষ্টির অপচেষ্টা করে, কঠোর হাতে তাদের দমন করব ইনশা আল্লাহ। কোনোভাবেই সেই বোমা সন্ত্রাস আর অগ্নিসন্ত্রাসের পুরনাবৃত্তি এই ঢাকার মাটিতে ঘটতে দেওয়া হবে না ইনশা আল্লাহ। আমরা আপনাদের পাশে আছি আমরা আপনাদের বেতনভোগী কর্মচারী, আমরা প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী, আমরা আপনাদের পাশে আছি, আমরা থাকব।’

মাদকের বিরুদ্ধে সরকারের অবস্থান জিরো টলারেন্স জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে পুলিশ নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। এমনকি কোনো মাদক ব্যবসার সঙ্গে কোনো পুলিশ সদস্য জড়িত থাকলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘পুলিশের কাজ রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে হয়রানি করা নয়। তাদের কাজ জননিরাপত্তা বিধান করা, জনগণের সেবা নিশ্চিত করে প্রত্যাশা পূরণ করা। তেমনি করছে পুলিশ সদস্যরা। আইনের উর্ধ্বে যেমন কেউ নয়, তেমনি নিম্মেও কেউ নয়। 

তিনি আওয়ামী লীগের নাম ব্যবহার করে যদি কেউ মাদক, চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসসহ কোন অনৈতিক কাজ করে, তাহলে পুলিশকে বলবো তাকে আগে গ্রেফতার করুন। পুলিশের কাছে আমাদের কোন রাজনৈতিক চাহিদা নেই। শুধু বলবো আইন শৃংখলা পরিস্থিত ভালো রাখতে হবে। পুলিশ একা নয়, আমরা নাগরিক হিসেবে তাদের পাশে আছি।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ