ঢাকা, রোববার 22 April 2018, ৯ বৈশাখ ১৪২৫, ৫ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সাদুল্যাপুরে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা ॥ ঘাতক স্বামী আটক

সাদুল্যাপুর (গাইবান্ধা) সংবাদদাতা : গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলার ফুলুরানী বেগম (৪০) নামের এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ঘাতক স্বামী গোফফার মিয়া (৬০) কে আটক করেছে থানা পুলিশ।

ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, সাদুল্যাপুর উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের ভাজাকালাই গ্রামের গোফফার মিয়া ও তার স্ত্রী ফুলুরানী বেগমের পারিবারীক কলহ চলে আসছিলো। এর জের ধরে শুক্রবার দিনগত রাতে ফুলুরানীকে পিটিয়ে হত্যা করে স্বামী গোফফার মিয়া। এর পর ফুলুরানীর লাশ পীরগঞ্জ সীমানার নলেয়া নদীর পাশের একটি ধান ক্ষেত ফেলে রেখে যায়।

পরদিন শনিবার সকালে ওই নদীতে জেলেরা মাছ ধরতে গিয়ে গৃহবধুর লাশটি দেখতে পায়। সাদুল্যাপুর থানা পুলিশ খবর পেয়ে ফুলুরানীর মৃতদেহ ধান ক্ষেত থেকে উদ্ধার করেন।

এদিকে ঘাতক স্বামী গোফফার মিয়া এলাকায় জাহির করতে থাকে যে, তার স্ত্রী আতœহত্যা করেছে। এ মর্মে গোফফার মিয়া পীরগঞ্জ থানায় ইউডি মামলা করতে যান। পুলিশ তাকে সাদুল্যাপুর থানায় মামলা করার পরামর্শ দেন। বাধ্য হয়ে গোফফার মিয়া সাদুল্যাপুর থানায় ফিরে আসে। এর পর গোফফার মিয়ার অসঙ্গিত কথাবার্তায় পুলিশের সন্দেহ হলে তাকে আটক করা হয়।

নিহতের ছোট ভাই রাজু মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, আমার বোন ফুলুরানীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে গোফফার মিয়া। পারিবারীক কলহের জের ধরে তাকে হত্যা করেছে বলে জানান তিনি।

নিহত ফুলুরানীর বাবার বাড়ি উপজেলার বনগ্রাম ইউনিয়নের দক্ষিণ মন্দুয়ার গ্রামে। সে মৃত মজিবর রহমানের মেয়ে।

সাদুল্যাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বোরহান উদ্দিন জানান, ফুলুরানীর মৃতদেহ উদ্ধার করার পর সুরুতহাল রিপোর্ট শেষে গাইবান্ধা মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে যখমের চিহৃ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ওসি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ