ঢাকা, মঙ্গলবার 24 April 2018, ১১ বৈশাখ ১৪২৫, ৭ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বিটিআই ওপেন গলফ আজ শুরু

স্পোর্টস রিপোর্টার : চলতি বছর এ নিয়ে চতুর্থবারের মত পেশাদার গলফ টুর্নামেন্ট হচ্ছে ঢাকায়। আজ কুর্মিটোলা গলফ কোর্সে শুরু হবে বিটিআই ওপেন-২০১৮। প্রায় ৬০ হাজার মার্কিন ডলার প্রাইজমানির এ টুর্নামেন্টে অংশ নেবেন ১৭ দেশের ১৩২ জন পেশাদার গলফার। বিটিআই ওপেন উপলক্ষে গতকাল কুর্মিটোলা গলফ ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান গলফ ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও বিপিজিএর নির্বাহী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জিএম কামরুল ইসলাম। এ সময় বিপিজিএ সভাপতি আসিফ ইব্রাহিম, যুগ্ম সম্পাদক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. ওবায়েদুল হক, পৃষ্ঠপোষক বিটিআইয়ের চেয়ারম্যান আরশি হায়দার, পিজিটিআইয়ের সিইও উত্তম সিং মান্ডি, এটিডির টিডি আদনান ওথমান এবং তিন অংশগ্রহণকারী তিন ট্যুরের পেশাদার গলফাররা উপস্থিত ছিলেন। টুর্নামেন্ট শেষ হবে ২৭ এপ্রিল। টুর্নামেন্টের প্রধান পৃষ্ঠপোষক বাংলাদেশ বিল্ডিং টেকনোলজিস অ্যান্ড আইডিয়াস (বিটিআই) প্রদান করবে চল্লিশ লাখ টাকা। সম্প্রতি সমাপ্ত জাপানে প্যানাসনিক ওপেনে খুব একটা ভালো করতে পারেননি দেশসেরা গলফার সিদ্দিকুর। তবে তিনি আশা করেন নিজ দেশের টুর্নামেন্টে ভালো রেজাল্ট করার। সংবাদ সম্মেলনে সিদ্দিকুর রহমান বলেন, জাপান থেকে ফিরলাম রোববার রাতে। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন। এখানকার আবহাওয়াতে বাতাসের বেগ একটু বেশিই। তবুও আমি সেই চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত। ৭২ হোল স্ট্রোক প্লে গলফ টুর্নামেন্টে বিজিপিএ’র ৪৪ জন পেশাদার গলফার খেলছেন। যেখানে এশিয়ান ট্যুরের দু’টি শিরোপা জয়ী সিদ্দিকুর ছাড়াও রয়েছেন পিজিটিআইয়ে দু’বার শিরোপা জয়ী জামাল হোসেন মোল্যা, দুলাল হোসেন, শাখাওয়াত হোসেন সোহেল, ইসমাইল হোসেন ও বাদল হোসেনসহ অন্যরা। এছাড়া প্রফেশনাল গলফ ট্যুার অব ইন্ডিয়ার (পিজিটিআই) ৪৫ জন এবং এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ট্যুারের (এডিটি) ৪৫ জন গলফার। কাট নির্ধারিত হবে ৩৬ হোলে। নিবাচিত ৫০ জন গলফার এবং টাই হবে হাফওয়ে কাট এবং চলবে পরবর্তী ৩৬ হোল পর্যন্ত। টুর্নামেন্টে অংশ নেয়া দেশগুলো হলো- সিঙ্গাপুর, জাপান, সুইডেন, ফিনল্যান্ড, আর্জেন্টিনা, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, ইংল্যান্ড, ওয়েলস, নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, সয়াজিল্যান্ড, শ্রীলংকা, ভারত, আমেরিকা ও স্বাগতিক বাংলাদেশ। বড় পরিসেরে এবারের প্রতিযোগিতা ত্রিপাক্ষিক আয়োজক প্রফশনাল গলফ ট্যুর অব ইন্ডিয়া (পিজিটিআই), বাংলাদেশ প্রফেশনাল গলফার্স এসোসিয়েশন (বিপিজিএ) এবং এশিয়ান ডেভলপমেন্ট র্ট্যুর(এডিটি)। অংশগ্রহণকারী, প্রাইজমানি ও আয়োজকদের নিরিখে এটি হবে বাংলাদেশে অআয়োজিত সবচেয়ে বড় প্রফেশনাল গলফ আসর। বিটিআইয়ের চেয়ারম্যান আরশি হায়দার বলেন, এটা ক্রিকেট কিংবা ফুটবল নয় যে, মিডিয়ার খুব বেশি সাপোর্ট পাবে। তারপরও যে পরিমানে মিডিয়াতে চাউর হচ্ছে, তাতে আমরা আশাবাদি। বিভিন্ন দেশের গলফারদের অভিনন্দন। সিদ্দিকুরকে হিরো আখ্যা দিয়ে পিজিপিআইয়ের প্রধান নির্বাহী বলেন, তোমাদের হিরো (সিদ্দিুকুর) পাশেই বসা রয়েছে। মনে হচেছ এবারের প্রতিযোগিতায় বেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে। ব্রি. জে. জিএম কামরুল ইসলাম বলেন, ক্রিকেট হোক কিংবা ফুটবল, কোন ডিসিপ্লিনেই এশিয়ার সেরা দু’টি ট্রফি আসেনি। কেবল গলফেই সিদ্দিকুর দু’টি এশিয়ান ট্যুর ট্রফি জিতে এনেছেন। তাই মিডিয়ার আনুকূল্য আমরা পেতেই পারি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ