ঢাকা, মঙ্গলবার 24 April 2018, ১১ বৈশাখ ১৪২৫, ৭ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

যত্রতত্র পলিথিনের ব্যবহারে জীববৈচিত্র্য হুমকীর মুখে

বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ) সংবাদদাতা: সিরাজগঞ্জ-৫ (বেলকুচি-চৌহালী) আসন এলাকায় যত্রতত্র নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যবহূত হওয়ায় জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে পড়েছে। পলিথিন ব্যবহারে সরকারের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও সবজির দোকান থেকে শুরু করে সর্বত্রই ব্যবহার হচ্ছে পলিথিন। সরকারের আইনের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ব্যবসায়ীরা পলিথিন দেদার ব্যবহার করছে। পলিথিন ব্যবহারের ফলে দিনের পর দিন একদিকে যেমন পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্য হুমকির মুখে পড়ছে, তেমনি মানুষের মধ্যে রোগের প্রাদুর্ভাব ঘটছে। পরিবেশ, জীববৈচিত্র্য ও জনস্বাস্থ্যের উপর পলিথিনের ক্ষতিকর প্রভাব বিবেচনায় সরকার ২০০২ সালে আইন করে পলিথিন শপিং ব্যাগের উৎপাদন, ব্যবহার, বিপণন ও বাজারজাতকরণের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে। এই আইন বাস্তবায়নের ফলে পরিবেশের উপর ইতিবাচক প্রভাব পড়তে শুরু করে।  কিন্তু সিরাজগঞ্জের বেলকুচি ও চৌহালী উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে নিষিদ্ধ পলিথিনে সয়লাব। সবজি মার্কেট কিংবা ফুটপাত থেকে আরম্ভ করে শপিং সেন্টারগুলোতে নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যাগ ব্যবহার করা হচ্ছে। যে কোনো হাট-বাজার অথবা শপিং সেন্টার থেকে কোনো কিছু খরিদ করলেই হাতে ধরিয়ে দেওয়া হচ্ছে সরকার কর্তৃক নিষিদ্ধ ঘোষিত পলিথিন ব্যাগ। সচেতন ক্রেতা আব্দুল লতিফ, আল আল-মামুন ও আরশাদ হোসেন জানান, পলিথিন ব্যাগ নিষিদ্ধ থাকা সত্ত্বেও দোকানদার কোনো কিছু কেনার পর হাতে ধরিয়ে দিচ্ছে পলিথিন ব্যাগ। স্বাস্থ্য ও পরিবেশের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর হলেও পলিথিন ব্যাগের ব্যবহার কমছে না। এদুটি উপজেলার বিভিন্ন মার্কেটে মাঝে মধ্যে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করলে হাট-বাজারে ছোটখাটো পলিথিন ব্যাগ ব্যবহার বন্ধ হতে পারে বলে এলাকাবাসী জানান।  চৌহালী ও বেলকুচি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ওলিউজ্জামান  ও মোঃ আনিছুর রহমান বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে দেখব এবং নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যবহারের উপর যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ