ঢাকা, বুধবার 25 April 2018, ১২ বৈশাখ ১৪২৫, ৮ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কার্যক্রম প্রক্রিয়া শুরু

মোহাম্মদ নুরুজ্জামান, রংপুর অফিস : দু’জন উপ-পুলিশ কমিশনার নিয়োগের মধ্য দিয়ে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরএমপি) কার্যক্রমের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।
রংপুর জেলা পুলিশের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা সূত্রে জানা গেছে সরকার ইতোমধ্যে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের জন্য (আরএমপি) উপ পুলিশ কমিশনার পদে কাজী মোত্তাকি ইবনু মিনান ও মহিদুল ইসলামকে নিয়োগ দিয়েছেন। ঐ আদেশে রাষ্ট্রপতি স্বাক্ষরও করেছেন। গেজেট পাশ হলেই কমিশনার নিয়োগের মাধ্যমে এর কার্যক্রম পুরোপুরি চালু হবে বলে ঐ সূত্র জানিয়েছেন। রংপুর পুলিশ সুপার অফিস সূত্রে জানা গেছে, পুলিশ হেড কোয়াটারে পাঠানো নতুন প্রস্তাব অনুযায়ী রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপির) জন্য ৫শ ১৭ দশমিক ৩ বর্গ কিলোমিটার আয়োতনের এলাকা নিয়ে এখানে ৬টি থানা গঠনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। এর আগে একই আয়োতনের ৯ থানার প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল। রংপুর পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, রংপুর সদর উপজেলাসহ মিঠাপুকুর, বদরগঞ্জ, কাউনিয়া ও পীরগাছার অংশ বিশেষ নিয়ে আরএমপির এলাকা গঠন করা হয়েছে। রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের এসব নতুন থানা হয়েছে- কোতয়ালী, পরশুরাম, হাজীরহাট, মাহিগঞ্জ, হারাগাছ এবং তাজহাট।
কোতয়ালৗ থানার এলাকা হবে- নগরীর কেল্লাবন্দ (আংশিক), ভগি (আংশিক), নিশবেতগঞ্জ, ধাপ, চিকলীভাটা, রাঁধাবল্লভ, কাচারী বাজার, ইঞ্জিনিয়ার পাড়া, সেনপাড়া, গুপ্তপাড়া, নুরপুর, তেঁতুলতলা, চামড়াপট্টি, আলমনগর, বাবুপাড়া (আংশিক), গনেশপুর, দোলাপাড়া, কলেজপাড়া (আংশিক), বাবুখাঁ, সাতগাড়া, দেওডোবা (আংশিক), বিনোদপুর (আংশিক), পীরজাবাদ, রামপুরা, ভগিবালাপাড়া, ইসলামপুর, নীলকন্ঠ, পান্ডারদিঘী (আংশিক), মুন্সিপাড়া, কেরানীপাড়া, গুড়াতিপাড়া, মুলাটোল, জুম্মাপাড়া, কামালকাছনা, শালবন, বাহারকাছনা, রবার্টসন্সগঞ্জ, রংপুর সদরের চন্দনপাট ইউনিয়ন, সদ্য পুষ্করণী ইউনিয়ন ও বদরগঞ্জের গোপালপুর ইউনিয়ন নিয়ে।
পরশুরাম থানার এলাকা হবে- কোবারু, চব্বিশ হাজারী, পান্ডারদিঘী (আংশিক), হারাটি, খটখটিয়া, কাইদাহারা, আরাজি পশুয়ারী, আমাশু কুকরুল, কুকরুল, বালাকুমার, বিনোদ জলছত্র, পরশুরাম, আটিয়াটারী, নওহাটি কাছনা, বাহার কাছনা ও চওরারহাট নিয়ে।
 হাজীরহাট থানার এলাকা হবে- বারঘরিয়া, হরিরাম পিরোজ, মনোহর, অভিরাম, শেখটারী, গোয়ালু, নিয়ামত (আংশিক), পান্ডারদিঘী (আংশিক), উত্তম রনচন্ডি (পাগলাপীর), চক ইসবপুর, নজিরের হাট, কামদেবপুর, পশ্চিম গিলাবাড়ি, পূর্ব গিলাবাড়ি, জগদিশপুর, বখতিয়ারপুর, বিন্নাটারী, কেরানীরহাট, ভবানীপুর, রাধাকৃষ্ণপুর গোপিনাথপুর (আংশিক), রংপুর সদরের হরিদেবপুর ইউনিয়ন, মমিনপুর ইউনিয়ন ও গঙ্গাচড়ার খলেয়া ইউনয়ন নিয়ে।
মাহিগঞ্জ থানার এলাকা হবে- মাহিগঞ্জ, ধুমখাটিয়া, ডিমলা, নাছনিয়া, দহিগঞ্জ, বীরভদ্র বালাটারী, দেওয়ানটুলি, দেওয়ানটুলি ফতেপুর, সাতমাথা, আরাজি মন্ত্রীর খামার, মহিন্দ্রা, তালুক বকশি, রাজুখাঁ, আজিজুল্লাহ, হোসেন নগর, তালুক রঘু, মেকুরা, নব্দিগঞ্জ, পীরগাছার কল্যাণী ইউনিয়ন ও পারুল ইউনিয়ন নিয়ে।
হারাগাছ থানার এলাকা হবে- বেনুঘাট, জমচওড়া, গুলালবুদাই, বুদাই, কার্তিক, চানকুঠি, চব্বিশ হাজারী (আংশিক), আরাজি গুলালবুদাই, তপোধন, মহব্বত খাঁ, চিলমন, বধু কমলা, সাহেবগঞ্জ, কাছনা, বীরচরণ, মহাদেব, রাম গোবিন্দ (আংশিক), কাউনিয়ার সারাই ইউনিয়ন ও হারাগাছ পৌরসভা নিয়ে এবং
তাজহাট থানার এলাকা হবে- কেডিসি রোড, খেড়বাড়ি, বাবুপাড়া (আংশিক), তাজহাট, পাটবাড়ি, আশরতপুর, পার্কের মোড়, লালবাগ, বড় রংপুর, তালুক ধর্মদাস, তালুক তামপাট, নগর মীরগঞ্জ, খোর্দ্দ তামপাট, খোর্দ্দ রংপুর, কলেজপাড়া, দর্শনা, ঘাঘটপাড়া, আক্কেলপুর, বিনোদপুর (আংশিক), মানজাই, কিসামত বিষু, নাজিরদিগর, পানবাড়ি, আরাজি দাস, শেখপাড়া, মিঠাপুকুরের পায়রাবন্দ ইউনিয়ন ও রানীপুকুর ইউনিয়ন নিয়ে।
এই ৬ থানার বিপরীতে ১ হাজার ১৮৫ জন জনবল রাখা হয়েছে। এরমধ্যে একজন করে পুলিশ কমিশনার ও অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার। ২ জন উপ-পুলিশ কমিশনার, ৬ জন অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমশিনার, ১২ জন সহকারী পুলিশ কমিশনার, ২০ জন ইন্সপেক্টর, ১২০ জন সাব ইন্সপেক্টর, ১০ জন সার্জন, ১৫০ জন এএসআই, ১০ জন নায়েক, ৭০ জন এটিএসআই, ৭৫০ জন কনস্টেবল এবং অন্যান্য পদে (নন পুলিশ) ৩৩ জন রয়েছে। রংপুর মেট্রো পলিটন পুলিশের জন্য ১০টি পুলিশ ফাঁড়ি ও ৮টি পুলিশ বক্স থাকবে।
একজন দায়িত্বশীল পুলিশ কর্মকতাঁ জানান, গত ১১ই এপ্রিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে উপ-পুলিশ কমিশনার পদে দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে বদলী করে আরএমপিতে নিয়োগ দেয়ার মাধ্যমে এই কার্যক্রম শুরু হয়েছে। গেজেট পাশের পর কমিশনার নিয়োগ হলেই বাকি কাজ দ্রুত সম্পন্ন হবে বলে তিনি জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ