ঢাকা, বুধবার 25 April 2018, ১২ বৈশাখ ১৪২৫, ৮ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অবশেষে আদালতেই বিয়ে করতে হলো ছাত্রলীগ নেতা রিপুকে

ফেনী সংবাদদাতা : এক গৃহবধূকে জোরপূর্বক তুলে এনে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ফেনী সদর উপজেলার বালিগাঁও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক (সদ্য অব্যাহতিপ্রাপ্ত) ইমরান হোসেন রিপুর সাথে তার বিয়ে হয়েছে। উভয়ের সম্মতিক্রমে রবিবার আদালতে বিয়ে পড়ানো হয়।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আসাদুজ্জামান উভয়ের সম্মতিক্রমে বিয়ে পড়ানোর আদেশ দেন। এর প্রেক্ষিতে এজলাসে তাদের বিয়ে পড়ানো হয়।
এসময় উভয়পক্ষের পরিবারের সদস্যগণ ছাড়াও বাদী পক্ষের আইনজীবী জাহিদ হোসেন খসরু, বিবাদী পক্ষের আইনজীবী ফাহিম নুর সহ আইনজীবীগণ উপস্থিত ছিলেন।
পরবর্তীতে আদালত রিপুকে ১ মাসের জন্য জামিন দেয়। ৭ লাখ টাকা দেনমোহরে নিকাহ রেজিষ্ট্রি করেন স্থানীয় ১২নং ওয়ার্ডের নিকাহ রেজিষ্ট্রার হুমায়ুন কবীর।
এর আগে ফেনী শহরের নাজির রোড এলাকার একটি ভবনের একটি বাসায় তুলে নিয়ে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে ৯ দিন আটকে রেখে ধর্ষণের ঘটনায় রিপুর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেন ওই গৃহবধূ। ঘটনার পর তাকে ছাত্রলীগের স্বীয় দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।
গত ১৩ মার্চ ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার থেকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলাটির তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হলে আদালত রিপু ও তার সহযোগি তারেকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে।
২৩ মার্চ শহরের মহিপাল থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ