ঢাকা, বৃহস্পতিবার 26 April 2018, ১৩ বৈশাখ ১৪২৫, ৯ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আদর্শ নেতৃত্ব ও সমৃদ্ধ দেশ গঠনে শিবির নেতাকর্মীদের এগিয়ে আসতে হবে -শিবির সভাপতি

বুধবার স্থানীয় একটি মিলনায়তনে ছাত্রশিবির বগুড়া শহর শাখার সদস্য শিক্ষাশিবিরে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত -সংগ্রাম

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেছেন, চলমান নেতৃত্ব দেশের সমস্যা সমাধান ও জাতির প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ হয়েছে। অপার সম্ভাবনা ও সামর্থ থাকার পরও আদর্শ শাসন নীতির অভাবে সমৃদ্ধ দেশ গঠন করা সম্ভব হয়নি। রাষ্ট্রের প্রতিটি শ্রেণী পেশার মানুষ অশান্তিতে দিন যাপন করছে। জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠা ও রক্ষায় প্রয়োজন আদর্শিক নেতৃত্ব। তাই আদর্শ নেতৃত্ব ও সমৃদ্ধ দেশ গঠনে শিবির নেতাকর্মীদের এগিয়ে আসতে হবে।
গতকাল বুধবার এক মিলনায়তনে ছাত্রশিবির বগুড়া শহর শাখার সদস্য শিক্ষা শিবিরে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক সম্পাদক শাহাদাত হোসাইন ও বগুড়া শহর সভাপতি রেজাউল করিমের ব্যবস্থাপনায় শিক্ষা শিবিরে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় বিতর্ক সম্পাদক কামরুল হাসান, বগুড়া শহর শাখার সাবেক সভাপতি মো: হেদায়েত উল্লাহ, আলাউদ্দিন সোহেল, ফারদিন হাসান হাসিব এবং বগুড়া জেলা পশ্চিমের সভাপতি: মো তানভীরুল ইসলাম ও বগুড়া শহর সেক্রেটারি ইয়ামিন হাসান মন্ডল।
শিবির সভাপতি বলেন, শোষণমুক্ত রাষ্ট্র ও সমাজ গঠনের স্বপ্ন নিয়ে জাতির বীর সন্তানরা রক্ত সাগর পাড়ি দিয়েছিল। সমৃদ্ধ বাংলাদেশে গঠনের মাধ্যমে মৌলিক অধিকার ও আত্মসম্মান নিয়ে বেচে থাকা এ জাতির বহুদিনের প্রত্যাশা। কিন্তু যুগের পর যুগ পেরিয়ে গেলেও সেই প্রত্যাশা আজও পূরণ হয়নি। রাষ্ট্র পরিচালিত হচ্ছে অদক্ষ ও অসৎ ব্যক্তিদের দ্বারা। অসৎ কর্মকান্ড বঞ্চিত করছে ১৮ কোটি জনতাকে। এদের আত্মসম্মানবোধের অভাব ও নতজানু নীতি দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব হুমকির মুখে পড়েছে। এদেশের অভ্যন্তরীন বিষয়ে হস্তক্ষেপ করার জন্য সাম্রাজ্যবাদী শক্তিকে অবাদে সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে। জনগণের কাছে কোন জবাবদিহী না করে সাম্রাজ্যবাদী প্রভূদের কাছে জবাবদিহী করে অবৈধ পন্থায় ক্ষমতায় আকড়ে থাকার চেষ্টা করা হচ্ছে। আদর্শ নেতৃত্বের অভাবে লুটেরা রাজনীতি দেশে অবাধ দুর্নীতি ও দুঃশাসনের নেতৃত্ব দিচ্ছে। অন্যদিকে মেধাবী শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়লেও প্রচলিত শিক্ষাব্যবস্থা জাতিকে কাক্সিক্ষত নাগরিক উপহার দিতে পারছে না। ফলে সমৃদ্ধ বাংলার স্বপ্ন স্বপ্নই রয়ে গেছে। প্রত্যাশিত বাংলাদেশ গড়তে প্রয়োজন ইসলামী মূল্যবোধের ভিত্তিতে আগামী প্রজন্মকে গঠন করা। যাদের হাতে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে উঠবে। জাতির বহু দিনের আকাঙ্খা পূরণ করবে। ছাত্রশিবির শত বাধা বিপত্তি মোকাবেলা করে দেশ ও ইসলাম রক্ষার জন্য নিজেদের যোগ্য হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। সময়ের ব্যবধানে আজ প্রমাণ হয়েছে কোনো প্রতিকূলতাই আমাদের অগ্রযাত্রাকে রুখে দিতে পারবেনা।
তিনি বলেন, দেশের প্রতি ভালবাসা ও দেশপ্রেমে উদ্ধুদ্ধ হতে হবে। মানুষের প্রত্যাশা পূরণে নিজেকে সৎ নেতৃত্ব প্রদানের যোগ্য করে গড়ে তুলতে হবে। ছাত্রশিবির এ উদ্দেশ্যেই কাজ করে যাচ্ছে। ছাত্রশিবিরের প্রতি দেশপ্রেমিক জনতার প্রত্যাশা অনেক বেশি এবং আমরাও জাতির এ প্রত্যাশা পূরণে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। শিবির নেতাকর্মীদের নিজেদেরকে যোগ্য করে গড়ে তুলে সেই প্রত্যাশ্যার প্রতিফলন করতে হবে। লুন্ঠিত স্বাধীনতা, জনগণের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠা, দেশ ও ইসলাম রক্ষায় ছাত্রশিবির নেতাকর্মীদেরকেই অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ