ঢাকা, বৃহস্পতিবার 26 April 2018, ১৩ বৈশাখ ১৪২৫, ৯ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কেটে যাওয়া ও রক্তপাত হওয়া

রক্তনালীগুলো (শিরা ও ধমনী) শরীরের এক অংশ থেকে অন্য অংশে রক্ত বহন করে। রক্তনালী কেটে গেলে বা ক্ষতিগ্রস্ত হলে রক্তপাত হয়ে থাকে। শরীর থেকে রক্তপাত হতে থাকা একটি মারাত্মক অবস্থা। দ্রুত রক্তপাত বন্ধ না করলে তা বিপজ্জনক হতে পারে।
কী করবেন
ঘরে বসেই কাটা জায়গার যত্ন নিতে পারেন, যদি-
* ত্বকের কেবল ওপরের স্তরটা ছিঁড়ে যায়।
* কাটা জায়গা দুই প্রান্ত লেগে থাকে।
* ১৫ মিনিটের মধ্যে রক্তপাত বন্ধ হয়ে যায়।
তবে সাধারণভাবে বেশ কিছু ব্যবস্থা নিতে পারেন, যেমন-
* কেটে গিয়ে রক্ত ক্ষরণ হলে সাথে সাথে ক্ষত স্থানে হাত দিয়ে সামান্য চেপে ধরবেন, তাতে রক্তের প্রবাহ রোধ হবে।
* হাত কেটে গেলে সে স্থানটি উঁচু করে ধরে রাখবেন। এ সময় রোগীকে শুইয়ে দেবেন।
* তাকে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন।
* ক্ষত স্থান একটি পরিষ্কার কাপড় বা প্যাড দিয়ে বেঁধে দেবেন।
কী করবেন না
* রক্তপাত বন্ধ করার জন্য টুরনিকেট বাঁধবেন না। চাপ দিয়ে রক্তপাত বন্ধ করবেন।
* জীবাণুমুক্ত কাপড় বা ড্রেসিং খোঁজার জন্য সময় নষ্ট করবেন না।
* কাচ বা অন্য কোনো রক্ত ত্বকে ঢুকে থাকলে তা টেনে বের করার চেষ্টা করবেন না।   
কখন ডাক্তার দেখাবেন
কেটে গেলে ডাক্তারকে দেখানো প্রয়োজন, যদি-
* প্রান্তসীমাগুলো না মেশে।
* কাটা স্থানটি ফাঁক থাকে।
* একটানা চাপ দেয়ার ১৫ মিনিট পরেও রক্তপাত বন্ধ না হয়।
* কাটা স্থানটিতে ময়লা দ্রব্য লেগে থাকলে।
* এসব কাটা স্থানে সেলাই দেয়ার প্রয়োজন হতে পারে।
আপনি শুধু হাসপাতালে নেয়ার পথে পরিষ্কার কাপড় দিয়ে ক্ষত স্থানটা হালকা করে চেপে ধরে রক্তপাত নিয়ন্ত্রণে রাখবেন।
আর যদি আপনার সন্তানের মুখ কিংবা মাথা কেটে যায় এবং মাথার ওই স্থানটা ভেতরের দিকে ডেবে গেছে মনে হয়, তাহলে চাপ দেবেন না। স্থানটি একটা পরিষ্কার কাপড় দিয়ে ঢেকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাবেন।
প্রতিরোধ
* ধারালো বস্তু, পাত্র, গৃহসরঞ্জাম, যন্ত্রপাতি প্রভৃতি জিনিসপত্র শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন।
* বাইরে খেলাধুলার সময় শিশুর পায়ে জুতা পরিয়ে দিন।
-ডা: মিজানুর রহমান কল্লোল
সহযোগী অধ্যাপক, অর্থোপেডিকস ও ট্রমা বিভাগ, ঢাকা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল।
চেম্বার: পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার লিঃ, ২, ইংলিশ রোড, ঢাকা। ফোন : ০১৬৭৩৬৪৯০৮৩ (রোমান)

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ