ঢাকা, শনিবার 28 April 2018, ১৫ বৈশাখ ১৪২৫, ১১ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

উলিপুরে বাড়িতে হামলা-লুটপাট অগ্নিসংযোগ আহত ৫ থানায় মামলা

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতা : কুড়িগ্রামের উলিপুরে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বাড়িতে হামলা ও অগ্নিসংযোগ করে ব্যাপক লুটপাট চালিয়ে এক অসহায় বাক প্রতিবন্ধি পরিবারের লোকজনকে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করেছে দূর্বৃতÍরা। আহত ৫জন কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে । এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলা হয়েছে, মামলা নং ২৭/১৫৭।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ধামশ্রেনী ইউনিয়নের নাওড়া গ্রামের সহিম উদ্দিনের পূত্র মোস্তাফা মিয়া (২৮) এর সংগে একই গ্রামের আঃ কাদেরের পূত্র জাহিদুল ইসলাম (৩৬) গং দের সাথে দীর্ঘদিন থেকে জমা-জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে গত (২০ এপ্রিল) শুক্রবার সকালে জাহিদুল ইসলাম (৩৬),জামির আলীর পূত্র বদিয়ার রহমান (৪০),মহুর আলীর পূত্র রশিদুল সহ তাদের সংঘবদ্ধ দলটি অসহায় পরিবারের বসতবাড়ি ভাংচুর করাসহ গো-খাদ্যে অগ্নি সংযোগ করে ভস্মিভুত করে দেয়। এতেও দূবৃত্বরা ক্ষান্ত হয়নি। গত ২১ এপ্রিল শনিবার বেলা ১১ টার দিকে জাহিদুল ইসলামের সংঘবদ্ধ দলটি দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র সহ মোস্তাফার বাড়িতে আবারও হামলাচালিয়ে বাড়িঘর ভাংচুর ও দুই ভরি স¦র্নের অলংকার ২ টি গরু, ৫টি ছাগল, গোলার ধান, হাসমুরগী সহ প্রায় ৮ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় নিরীহ পরিবারটি উদ্বেগ উৎকন্ঠায় দিন কাটাচ্ছে বর্তমানে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। যে কোন মহুর্তে আবারও সংঘর্ষ ঘটতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।
এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আসামী ধরার প্রক্রিয়া চলছে।
ডিলার বাতিল : কুড়িগ্রামের উলিপুরে ডিলারের বিরুদ্ধে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর দশ টাকা কেজি দরের চাল বিক্রিতে অনিয়মের অভিযোগে তদন্ত কমিটি গঠন ও তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের পর খাদ্য বিভাগ ব্যবস্থা গ্রহনে গড়িমসি এবং ডিলারকে রক্ষা করার অপচেষ্টা সংক্রান্ত একটি খবর বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়ার তিন দিনপর কর্তৃপক্ষের টনক নড়ে অবশেষে ওই ডিলারের ডিলারশীপ বাতিল করেছে উপজেলা খাদ্য বিভাগ।
জানা গেছে, উপজেলার বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর ডিলার আব্বাস আলীর বিরুদ্ধে চাল বিতরনের সময় ওজনে কম দেয়া ও অতিরিক্ত টাকা নেয়ার অভিযোগ উঠে। ঘটনাটি তদন্তে ১৪ মার্চ উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক তিন কার্যদিবসের সময় বেঁধে দিয়ে খাদ্য পরিদর্শক ফজলুল হককে আহবায়ক করে ৩ সদস্যর কমিটি গঠন করে প্রতিবেদন দাখিলের নিদের্শ দেন। নির্দেশনা অনুযায়ী ওই কমিটি সময়মত প্রতিবেদন দাখিল করেন। প্রতিবেদন দাখিলের এক মাস অতিবাহিত হলেও অজ্ঞাত কারনে খাদ্য বিভাগ সময়ক্ষেপন ও গড়িমসি করে আসছিল। ফলে সুবিধাভোগীরা এপ্রিল মাসের চাল থেকে বঞ্চিত হওয়ার আশংকায় অসন্তোষ প্রকাশ করেন। এ সংক্রান্ত খবর বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত হলে অবশেষে কর্তৃপক্ষের টনক নড়ে। শেষ পর্যন্ত ওই ডিলার কে বাতিল করে ওই ইউনিয়নের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর পাশ্ববর্তী এক ডিলার আব্দুল লতিফ সরকারকে চাল উত্তোলন পূর্বক বিতরনের দায়িত্ব প্রদান করলে বুধবার (২৫ এপ্রিল) খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর চাল বিতরন করা হয়।
উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক খালেদুল ইসলাম জানান, ডিলার আব্বাস আলীর অনিয়ম প্রমানিত হওয়ায় তার ডিলারশীপ বাতিল করা হয়েছে। খাদ্য বিভাগের নিয়মনীতি অনুযায়ী ওই ইউনিয়নের পাশ্ববর্তী ডিলারের মাধ্যমে এপ্রিল মাসের চাল বিতরন করা হচ্ছে। সিদ্ধান্ত নিতে বিলম্বের কারন জানতে চাইলে তিনি বলেন, কারো বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হলে অধিকতর তদন্তের প্রয়োজন হয়, সেই কারনে বিলম্ব হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ