ঢাকা, শনিবার 28 April 2018, ১৫ বৈশাখ ১৪২৫, ১১ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

৮ মাসে গ্রাম্য আদালতে ক্ষতিপূরণ আদায় হয়েছে ১১ কোটি টাকা

নওগাঁ সংবাদদাতা: নওগাঁয় “গ্রাম আদালত সম্পর্কে ব্যপক সচেতনতা বৃদ্ধিতে গণমাধ্যমের ভুমিকা” শীর্ষক এক মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মোঃ মিজানুর রহমান। সম্পতি জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ গ্রাম আদালত সক্রিয়করন (২য়) পর্যায় প্রকল্পের আওতায় স্থানীয় সরকার বিভাগের সহযোগিতায় জেলা প্রশাসন এই সভার আয়োজন করে।
স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচারক মোঃ মুজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাকিবুল আকতার, নওগাঁ জেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি কায়েস উদ্দিন, ইউএনডিপি’র কমিউনিকেশন ও আউটরীচ বিশেষজ্ঞ অর্পনা ঘোষ এবং প্রকল্পের ডিষ্ট্রিক্ট ফ্যাসিলিটেটর মোঃ শরিফুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। উন্মুক্ত আলোচনা পর্বে সাংবাদিকদের মধ্যে থেকে এস এম রাইহান আলম, সাদেকুল ইসলাম, সুলতানুল আলম মিলন, শফিক ছোটন, মাসুদুর রহমান রতন, হারুনুর রশিদ চৌধুরী রানা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
সভায় জানানো হয়েছে নওগাঁ জেলায় স্থানীয় সরকারের তত্ববধানে “বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করন (২য়) পর্যায়ের” প্রকল্পের আওতায় ৬ উপজেলায় ৪৯টি ইউনিয়নে গ্রাম আদালত সক্রিয় করার কার্যক্রম চলছে। সেগুলো হচ্ছে বদলগাছি উপজেলায় ৮ ইউনিয়ন, মহাদেবপুর উপজেলায় ১০ ইউনিয়ন, নিয়ামতপুর উপজেলায় ৮ ইউনিয়ন, পতœীতলা উপজেলায় ১১ ইউনিয়ন এবং পোরশা উপজেলায় ৬ ইউনিয়ন।
গত জুলাই’১৭ হতে ফেব্রুয়ারী’১৮ পর্যন্ত সময়ে এসব ইউনিয়নে মোট মামলা দায়ের হয়েছে ২ হাজার ৩৮৪টি। এর মধ্যে দেওয়ানী মামলা ৭৫৬টি এবং ফৌজদারী মামলা ১ হাজার ৬২৮টি। এদের মধ্যে জেলা আদালত বা অন্যান্য উৎস থেকে প্রাপ্ত মামলা  ৮৪টি, সরাসরি ইউনিয়নে প্রাপ্ত মামলা ২ হাজার ১৭৭টি এবং পূর্বে অপেক্ষমান মামলা ১২৩টি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ