ঢাকা, রোববার 29 April 2018, ১৬ বৈশাখ ১৪২৫, ১২ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রাজধানীতে এবার গ্রীন লাইন বাসের চাকায় বিচ্ছিন্ন হলো চালকের পা

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীতে আবারও বেপরোয়া বাস। এবার এক গাড়িচালক পা হারিয়েছেন। বাসের চাকায় বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে তাঁর বাঁ পা। গতকাল শনিবার বিকেলে যাত্রাবাড়ীতে মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারে এ ঘটনা ঘটে। পা হারানো ব্যক্তির নাম রাসেল সরকার (২৩)। একটি রেন্ট-এ-কার প্রতিষ্ঠানে তিনি গাড়ি চালাতেন। ওই যুবককে চাপা দেওয়ার পর গ্রীন লাইন পরিবহনের বাসটি এবং তার চালককে পুলিশ আটক করেছে।
আহত রাসেল সরকারের বাড়ি গাইবান্ধার পলাশবাড়ি এলাকায়। তাঁর বাবার নাম শফিকুল ইসলাম। রাসেল বর্তমানে আদাবর সুনিবিড় হাউজিং এলাকায় থাকেন।
পুলিশ জানিয়েছে, মো. রাসেল (২৫) নামে ওই যুবক একটি প্রাইভেটকার চালাচ্ছিলেন। তার গাড়িতে বাসটি ধাক্কা দিলে তার প্রতিবাদ জানাতে বাসটি থামাতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু বাসটি তার উপর দিয়েই চালিয়ে দেয়। শনিবার দুপুরের পর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয় রাসেলকে।
ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই বাবুল মিয়া বলেন, “দুপুরে হানিফ ফ্লাইওভারে গ্রীন লাইন পরিবহনের একটি বাসের চাপায় তার বাম পা কাটা পড়ে। স্থানীয়রা তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসে।”
ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির এসআই বাচ্চু মিয়া বলেন, “কদমতলী এলাকায় ফ্লাইওভারের ঢালে গ্রীন লাইন পরিবহন তার (রাসেল) প্রাইভেটকারকে ধাক্কা দেয়। তখন সে কার থামিয়ে বাসটিকে থামাতে যায়। বাস না থামিয়ে প্রথমে রাসেলকে ধাক্কা দেয়, পরে তার বাম পায়ের উপর চাপা দিয়ে চলে যায়।” বাসটিকে ধাওয়া করে জাতীয় প্রেস ক্লাব এলাকা থেকে আটক করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।
রাসেলকে ঢাকা মেডিকেল থেকে স্কয়ার হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে বলে জানান এসআই বাচ্চু মিয়া।
রাসেল সরকার বলেন, একটি কোম্পানি তাঁর গাড়িটি ভাড়া করেছিল। ওই কাজ শেষ করে কেরানীগঞ্জ থেকে তিনি ঢাকায় ফিরছিলেন। ফেরার সময় যাত্রাবাড়ীতে গ্রীন লাইন পরিবহনের একটি বাস তাঁর গাড়িকে ধাক্কা দেয়। পরে গাড়ি থামিয়ে বাসের সামনে গিয়ে বাসচালককে নামতে বলেন রাসেল। শুরু হয়ে যায় বাসের চালক ও রাসেলের মধ্যে কথা-কাটাকাটি। এ সময় গ্রীন লাইন পরিবহনের চালক বাস চালানো শুরু করেন। তখন রাসেল সরতে গেলে ফ্লাইওভারের রেলিংয়ে আটকে পড়েন। তাঁর পায়ের ওপর দিয়েই বাস চলে যায়। এতে তাঁর বাম পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এরপর পথচারীরা রাসেলকে উদ্ধার করে দ্রুত ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে যায়।
শাহবাগ থানার এসআই তরিকুল ইসলাম বলেন, গ্রীন লাইন পরিবহনের বাসটিকে আটক করা হয়েছে। বাস চালকের নাম কবির মিয়া। সন্ধ্যা পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। তবে কবিরকে আটক রাখা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ