বুধবার ১৬ জুন ২০১০
Online Edition

মানসিক বৈকল্যের কারণ হতে পারে ডায়াবেটিস

নিউইয়র্ক থেকে রয়টার্স : ডায়াবেটিসের কারণে মধ্যবয়সে মানুষের স্মরণশক্তি, দ্রুত চিন্তা করার ক্ষমতা এবং মানসিক শক্তি কমে যেতে পারে। নেদারল্যান্ডসের নতুন একটি গবেষণায় একথা বলা হয়েছে। এতে আরো বলা হয়েছে, রক্তে সুগারের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে এ প্রভাবগুলোর অনেকটাই প্রতিরোধ করা সম্ভব। নেদারল্যান্ডের জাতীয় জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশ ইন্স্টিটিউটের এ্যাসস্ট্রিড নুয়েনস ও তার সহকর্মীরা ২ হাজার ৬০০'র বেশি ৪৫ থেকে ৭০ বছর বয়সী নারী ও পুরুষের স্বাস্থ্য তথ্য ও মানসিক সক্ষমতার মাত্রা পরীক্ষা করেছেন। স্বাস্থ্যের উপর জীবনাচরণের প্রভাব নিরূপণে বৃহৎ পরিসরে চলমান একটি গবেষণার আওতায় তাদের ওপর পরীক্ষা চালানো হয়। ৫ বছরের এ গবেষণায় অংশ নেয় ডায়াবেটিস-২ আক্রান্ত ১৩৯ জন। এর মধ্যে গবেষণা শুরুর সময় ৬১ জনের ডায়াবেটিস ছিল। আর ৭৮ জন পরবর্তী ৫ বছরে এ রোগে আক্রান্ত হয়েছে। নতুন এ গবেষণার ফলে আগের গবেষণার ফলই নিশ্চিত হয়েছে। আগের গবেষণায় যুক্তরাষ্ট্রের গবেষক ডেভিড কোপম্যান ও অন্যান্যরা ডায়াবেটিসের সঙ্গে মানসিক কার্যকারিতা কমে আসার (যেমন: দ্রুত চিন্তা করার ক্ষমতা এবং স্মরণশক্তি) যোগসূত্র খুঁজে পেয়েছিলেন। তবে এর সঙ্গে নতুন গবেষণার তাফতটি হচ্ছে, এতে স্মরণশক্তি পরীক্ষা করে দেখানো হয়েছে যে, কত দ্রুত এর অবনতি ঘটতে পারে। ৫ বছরে ডায়াবেটিস আক্রান্ত মানুষের মানসিক কর্মক্ষকমতা সার্বিকভাবে কমে আসাটা তেমন প্রকট না হলেও যারা ডায়াবেটিস আক্রান্ত নন তাদের তুলনায় ডায়াবেটিস আক্রান্তদের মানসিক বৈকল্য দেখা দেওয়ার হার প্রায় ৩ গুণ বেশি প্রমাণিত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের মিনোসোটা অঙ্গরাজ্যের রোচেস্টার শহরে অবস্থিত মায়ো ক্লিনিকের চিকিৎসক ডেভিড কোপম্যান রয়টার্স হেলথকে জানান, মানসিক বৈকল্য কোনো ব্যক্তির মাঝে লক্ষণীয় নাও হতে পারে। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে মাঝ বয়সে মস্তিষ্কের স্থবিরতা বাড়তে থাকায় পরবর্তীতে ডায়াবেটিস রোগীদের মানসিক বৈকল্যের ঝুঁকি বাড়ে। তিনি বলেন, ‘‘একটি বাইসাইকেলের টায়ারে সামান্য ফুটো থাকলেও তা চালিয়ে নেওয়া যায়। কিন্তু টায়ারে আরেকটি ছিদ্র হলে খুব শিগগিরই সব বাতাস বের হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে- এ রোগের ব্যাপারটিও তেমন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ