বুধবার ১৬ জুন ২০১০
Online Edition

আফগানিস্তানে ১ লাখ কোটি ডলারের খনিজ সম্পদের সন্ধান

সিঙ্গাপুর থেকে রয়টার্স : আফগানিস্তানে শিল্পকারখানায় ব্যবহৃত লিথিয়ামসহ ১ ট্রিলিয়ন (১ লাখ কোটি) ডলার মূল্যের খনিজ সম্পদের সন্ধান পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ‘দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস' এক মার্কিন কর্মকর্তার উদ্ধৃতি দিযে একথা জানিয়েছে। নতুন সন্ধান পাওয়া লোহা, তামা, নিকেল ও সোনাসহ বিপুল পরিমাণ খনিজ সম্পদের কারণে দরিদ্র এ দেশটি বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ খনি কেন্দ্র হয়ে উঠতে পারে। পেন্টাগনের কর্মকর্তা ও মার্কিন ভূতাত্ত্বিকদের পরিচালিত এ গবেষণায় জানা যায়, দেশটির পাকিস্তান সীমান্তসহ (যেখানে প্রায় তালেবানরা তৎপরতা চালায়) দক্ষিণ ও পূর্বাঞ্চলে এ খনিজ সম্পদ ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ডের কমান্ডার ডেভিড পেট্রাইউস এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘‘এখানে বিস্ময়কর সম্ভাবনা রয়েছে।’’ প্রতিবেদনে বলা হয়, পেন্টাগন জানিয়েছে, আফগানিস্তান ‘লিথিয়ামের সৌদি আরব' এ পরিণত হতে পারে। ল্যাপটপ এবং মোবাইল ফোনের মতো অন্যান্য ইলেকট্রনিক পণ্যের ব্যাটারি তৈরির অন্যতম উপকরণ হলো লিথিয়াম। মার্কিন কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, আফগানিস্তানে কোনো খনিজ শিল্পকারখানা নেই। তাই প্রাপ্ত সম্পদের পরিপূর্ণ ব্যবহার করতে দেশটির কয়েক দশক লেগে যাবে। যুক্তরাষ্ট্রের এ গবেষণায় বলা হয়, দেশটিতে সবচেয়ে বেশি মজুদ রয়েছে লোহা ও তামা। আর এর পরিমাণ এত বেশি যে তা আফগানিস্তানকে বিশ্বের অন্যতম উৎপাদনকারী দেশে পরিণত করার জন্য যথেষ্ট। এতে আরো বলা হয়, দেশটির দক্ষিণাঞ্চলে পশতুন এলাকায় প্রচুর পরিমাণে স্টিল তৈরির উপকরণ নিওবিয়াম ও সোনা মজুদ রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ