বুধবার ১৬ জুন ২০১০
Online Edition

ইসরাইলের তদন্ত কমিশন নাকচ করল তুরস্ক ----ফিলিস্তিন

জেরুসালেম থেকে এএফপি/রয়টার্স : গাজা অভিমুখী ত্রাণবাহী নৌবহরে হামলার ঘটনা খতিয়ে দেখতে ইসরাইলের ঘোষিত তদন্ত কমিশনকে সোমবার ‘পক্ষপাতমূলক' অভিহিত করে নাকচ করেছে তুরস্ক ও ফিলিস্তিন। ইসরাইলের পক্ষে নিরপেক্ষ তদন্ত সম্ভব নয় উল্লেখ করে আবারো জাতিসংঘ তদন্ত দাবি করেছে তুরস্ক। ওদিকে, ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আববাস বলেছেন, ইসরাইলের প্রস্তাবিত তদন্ত কমিশন জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক তদন্তের দাবির সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়। প্যারিসে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নিকোলাস সারকোজির সঙ্গে বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদ আববাস বলেন, ‘‘ইসরাইলের প্রস্তাবিত তদন্ত কমিশনে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবের প্রতিফলন ঘটেনি।’’ গাজা ত্রাণবহরে কমান্ডো অভিযানের আন্তর্জাতিক তদন্তের জাতিসংঘ আহবান অনেক আগেই নাকচ করেছে ইসরাইল। এর পরিবর্তে ইসরাইল রোববার তাদের সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি ইয়কোভ তিরকেলকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিশন ঘোষণা করেছে। সোমবার ইসরাইলী মন্ত্রীপরিষদ প্রস্তাবিত তদন্ত কমিশনটি অনুমোদন করেছে। দুই বিদেশি পর্যবেক্ষক হিসেবে কমিশনে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী আয়ারল্যান্ডের ডেভিড ট্রিম্বল ও কানাডার বিচারক কেন ওয়াটকিনকে রাখার কথা জানায় তারা। কিন্তু সোমবার আঙ্কারায় এক সংবাদ সম্মেলনে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আহমেত দাভুতোগোলু বলেন, ‘‘ইসরাইলের পক্ষপাতমূলক এ তদন্ত কমিশনের কোনো মূল্য আমাদের কাছে নেই। আমরা আবারো সরাসরি জাতিসংঘের অধীনে তদন্তের দাবি জানাচ্ছি।’’ তিনি বলেন, ‘‘ইসরাইল তুরস্কের আবেদনে কর্ণপাত না করলে তাদের সঙ্গে সম্পর্ক পুনর্বিবেচনা করে দেখা এবং ব্যবস্থা নেওয়ার অধিকার তুরস্কের রয়েছে।’’ ওদিকে, হোয়াইট হাউস ইসাইলের প্রস্তাবিত তদন্ত কমিশনকে স্বাগত জানিয়ে বলেছে, ইসরাইলের সুষ্ঠু তদন্ত চালাতে সক্ষম। ৩১ মে গাজা অভিমুখী ত্রাণবাহী নৌ-বহরে হামলা চালায় ইসরাইলী নৌ-কমান্ডোরা। ওই হামলায় ৯ মানবাধিকারকর্মী প্রাণ হারায়। তাদের অধিকাংশই তুরস্কের নাগরিক। এ হামলার পর ইসরাইল থেকে তুরস্ক তাদের রাষ্ট্রদূতকে প্রত্যাহার করে নেয়। এছাড়া তুরস্ক ইসরাইলের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়া বাতিল করে গাজার ওপর থেকে ইসরাইলী অবরোধ প্রত্যাহারের আহবান জানায়। ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর কার্যালয় থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, একটি ‘স্বাধীন সরকারি তদন্ত কমিশন' গঠনের প্রস্তাব ইসরাইলের মন্ত্রী পরিষদে সোমবার সর্বসম্মতিক্রমে পাস হয়েছে। তবে এর আগে রোববার এক বার্তায় নেতানিয়াহু জানান, গাজা অভিমুখী ত্রাণবাহী নৌ-বহরে অভিযানে যেসব সেনা কর্মকর্তা ও সেনা সদস্য অংশ নিয়েছে বা অভিযানের পরিকল্পনা করেছে তাদেরকে তদন্ত কমিশনের জেরার মুখে পড়তে হবে না। ওদিকে ইসরাইলের তদন্ত কমিশনকে স্বাগত জানিয়ে কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী লরেন্স ক্যানন এক বিবৃতিতে বলেন, ‘‘কয়েক সপ্তাহ আগে গাজা অভিমুখী ত্রাণবাহী নৌ-বহরে কী ঘটেছিল তা বের করতে নিরপেক্ষ তদন্ত কমিশন গঠনে ইসরাইল সরকারের সিদ্ধান্তকে আমরা স্বাগত জানাই।’’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ