ঢাকা, শুক্রবার 4 May 2018, ২১ বৈশাখ ১৪২৫, ১৭ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আর্ন্তজাতিক বাজারের অজুহাতে রড ও গুড়ো দুধের দাম বৃদ্ধি

স্টাফ রিপোর্টার: সদ্য শেষ হওয়া এপ্রিল মাসে বিশ্ববাজারে সার্বিকভাবে খাদ্যপণ্যের দাম স্বাভাবিক রয়েছে। আলোচ্য মাসে বিশ্ব খাদ্য মূল্যের গড় সূচক অবস্থান করছে ১৭৩ দশমিক ৫ পয়েন্টে। অথচ আর্ন্তজাতিক বাজারের অজুহাতে বাংলাদেশের বাজারে প্রায় ৩০ শতাংশের বেশি বেড়েছে রডের দাম। এফএও বলছে দাম, বাড়েনি।

গতকাল বৃহস্পতিবার প্রকাশিত হয়েছে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) মাসিক এ প্রতিবেদন। এফএও’র হিসাবে মার্চ মাসের তুলনায় খাদ্যের দাম প্রায় অপরিবর্তিত রয়েছে। তবে গতবছরের একই সময়ের তুলনায় ২ দশমিক ৭ শতাংশ বেশি রয়েছে।

এফএও বলছে, বিশ্ববাজারে এপ্রিল মাসে খাদ্যশস্যে ও দুগ্ধজাত পণ্যের দাম বাড়লেও চিনির দাম কমেছে। ভোজ্য তেল ও মাংসের বাজারও নিম্নমুখী।

গুড়ো দুধের দাম কমলেও বাংলাদেশে এই পণ্যটির দাম  বেড়েছে। দেশির কোম্পানিগুলো আর্ন্তজাতিক বাজারের দোহাই দিয়ে কোন কারন ছাড়াই গুড়ো দুধের দাম বাড়িয়েছে। রডের দাম বৃদ্ধি নিয়ে সরকারের তিন মন্ত্রীর সাথেও মিটিং করেছে রি-রোলিং মিল এসোসিয়েশন। মন্ত্রীদের অনুরোধে তারা টন প্রতি ২ হাজার টাকা দামও কমিয়েছিল। বিশ্ব বাজারে দামই বাড়েনি। তাহলে তারা কিসের বিত্তিতে ৩০ শতাঙশ দাম বৃদ্ধি করলো।

বিশ্বব্যাপী ৫ ধরনের পণ্যের দাম নিয়ে জরিপ চালায় এএফও। সংস্থাটি সর্বশেষ প্রতিবেদনে বলছে, আলোচ্য মাসে দুগ্ধজাত পণ্যের দাম মার্চের তুলনায় ৩ দশমিক ৪ শতাংশ (২০৪ দশমিক ১ পয়েন্ট) বেড়েছে। যা গতবছরের একই মাসের তুলনায় ১১ শতাংশ বেশি।

ওই প্রতিবেদনে দেখা যায়, আলোচ্য মাসে চিনির মূল্য সূচক কমেছে। চিনির মূল্য সূচক এপ্রিল মাসে ১৭৬ দশমিক ৬ পয়েন্ট। যা মার্চ মাসের তুলনায় ৪ দশমিক ৮ শতাংশ কম।

মার্চ মাসের তুলনায় এপ্রিলে এই পণ্যটির মূল্য সূচক ৮ দশমিক ৯ পয়েন্টে। গতবছরের এ সময়ের তুলনায় ২৪ শতাংশ কম রয়েছে চিনির দাম। থাইল্যান্ড ও বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম চিনি উৎপাদনকারী দেশ ভারত থেকে সরবরাহ বেশি হওয়ায় চিনির দাম কম রয়েছে।

 ভোজ্য তেলের মূল্য সূচক এপ্রিল মাসে গড়ে ১৫৪ দশমিক ৬ পয়েন্টে রয়েছে। মার্চ  মাসের তুলনায় এপ্রিলে কমেছে ১  দশমিক ৪ শতাংশ।

এপ্রিল মাসে বিশ্ববাজারে দানা জাতীয় খাদ্যের মূল্য সূচক গতমাসের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। খাদ্যশস্যের মূল্য এখন ১৬৮ দশমিক ৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে। যা মার্চের তুলনায় ১ দশমিক ৭ শতাংশ (২ দশমিক ৮ পয়েন্ট) বেশি। এছাড়া আলোচ্য সময়ে বিশ্ববাজারে মাংসের দাম মার্চ মাসের তুলনায় কিছুটা কমেছে। এপ্রিলে ১৭৬ দশমিক ৬ পয়েন্টে অবস্থান করছে মাংসের দাম। যা গতবছরে একই সময়ের তুলনায় প্রায় সমান অবস্থানে রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ