বুধবার ১৬ জুন ২০১০
Online Edition

রামগড়ে বাঙালিদের জায়গা দখল করছে উপজাতিরা\ গাছ কেটে উজাড়

মাটিরাঙ্গা (খাগড়াছড়ি) সংবাদদাতা : রামগড় উপজেলার থলিবাড়ি সংলগ্ন নাভাঙ্গাতে বাঙালিদের জায়গা দখল করে নিচ্ছে উপজাতিরা। এর পাশাপাশি বাঙালিদের সৃজনকৃত বাগানও কেটে সাবাড় করে দিয়েছে। সরেজিমনে গিয়ে দেখা যায়, নাভাঙ্গা মৌজার ৪০১, ৫৩৭, ৪০০ ও ৬৮৫ নং হোল্ডিংয়ের জমির মালিক যথাক্রমে আ. মান্নান, আ. ছাত্তার, আবুল কালাম ও আমিন উল্লাহ। বর্তমানে ক্রয়সূত্রে মালিক আলাউদ্দিন। গত ২ বছর যাবত তারা জঙ্গল পরিষ্কার ও আকাশি গাছের বাগান সৃজন করে। গত ৭ জুন বাগান পরিষ্কার করতে গেলে প্রভা চাকমা ও তার শালককালী মোহন চাকমার নেতৃত্বে বাঙালি শ্রমিকদের ধাওয়া করে প্রায় শতাধিক উপজাতি। পরে বাগানের প্রায় ৫ হাজার আকাশি গাছ কেটে সাবাড় করে দেয়। উল্লেখ্য যে, মাস দুইয়েক পূর্বে রাতের অাঁধারে এসব বাঙালিদের জায়গায় ঘর তোলে ৩ জন চাকমা উপজাতি। বাঙালিদের জায়গায় ঘর কেন তুলেছে জিজ্ঞাসা করা হলে উপজাতিয়রা বলেন, ভিতরের নির্দেশ (অর্থাৎ ইউপিডিএফ) এর নির্দেশ। উল্লেখ্য যে, পার্বত্য শান্তি চুক্তি বিরোধী সংগঠন ইউপিডিএফ বিভিন্ন এলাকায় পাহাড়ি বাঙালিদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করে ফায়দা লুটার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। তার ধারাবাহিকতায় নাভাঙ্গাতে ও তার দ্বনদ্ব সৃষ্টি করছে। জমি নিয়ে সৃষ্ট এ বিরোধের জায়গাতে ইতোমধ্যে স্থানীয় প্রশাসন পরিদর্শন করেছে। সে জায়গাগুলো যে বাঙালিদের তাও কাগজপত্রের মাধ্যমে প্রমাণ পেয়েছে। জায়গার মালিকানা বিষয়ে জানতে চাইলে রামগড় সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিস সূত্রে জানা যায়, জায়গার মালিক বাঙালিরাই। বর্তমানে ক্রয় সূত্রে মালিক আলাউদ্দিনের নামে নামজারী প্রক্রিয়া প্রায় সম্পন্ন হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ