বুধবার ১৬ জুন ২০১০
Online Edition

বিশ্বকাপ ফুটবল খেলা চলাকালীন সময়ে বিদ্যুৎ না থাকায় বিক্ষোভ অবরোধ ঘেরাও

মতলব উত্তর (চাঁদপুর) সংবাদদাতা : চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলায় গত ১১ জুন রাতে বিশ্বকাপ ফুটবল খেলা চলাকালীন সময়ে বিদ্যুৎ না থাকায় বিদ্যুতের দাবীতে ফুটবলপ্রেমী বিক্ষোদ্ধ জনতা মিছিল সহকারে পল্লীবিদ্যুতের মতলব উত্তর জোনাল অফিস ঘেরাও করে। খবর পেয়ে মতলব উত্তর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পুলিশের লাঠিচার্জে আহত হয় রনি (২২), রবিউল (১৮), ডিজে বাবু (২০), সোহেল ঢালী (২০), মিশুক সরকার (১৮), সহ আরো কয়েকজন। আহতরা জানান, দীর্ঘ চার বছর পর বিশ্বকাপ ফুটবল খেলা। এ খেলা দেখার জন্য ফুটবলপ্রেমীরা অধির আগ্রহে অপেক্ষা করে। অন্তত পক্ষে বিশ্বকাপ ফুটবল চলাকালীন সময়ে বিদ্যুৎ এর লোডশেডিং না দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছিল। কিন্তু গত ১১ জুন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানসহ উদ্বোধনী খেলা চলাকালীন সময়ে বিদ্যুৎ না থাকায় বিদ্যুৎ রাখার দাবিতে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে মিছিল সহকারে বিদ্যুৎ অফিস সম্মুখে অবস্থান করি এবং আমাদের দাবি পেশ করি। সেখানে অবস্থানরত মতলব উত্তর থানার এসআই মিনহাজ মাহমুদ, এএসআই শাহজাহান আমাদেরকে খেলা চলাকালীন সময়ে বিদ্যুৎ থাকবে এ আশ্বাস দিলে আমরা সেখান থেকে চলে আসার পথে বাংলালিংক টাওয়ারের কাছে আমাদের ওপর আরেক পুলিশ অফিসারের নেতৃত্বে চড়াও হয় এবং লাঠি চার্জ করে। চাঁদপুর পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির মতলব উত্তর জোনাল অফিসের ডিজিএম (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ আলাউদ্দিন জানান, আমাদের পিকআওয়ারে প্রয়োজন ৬ মেগাওয়াট সেখানে আমরা পেয়েছি ০.৮ মেগাওয়াট। এ সামান্য বরাদ্দ দিয়ে বিদ্যুতের চাহিদা মেটানো সম্ভব নয়। যার জন্যই আমাদের লোডশেডিং দিতে হচ্ছে। এটি একটি জাতীয় সমস্যা। গত শুক্রবার বিদ্যুতের দাবিতে বিক্ষোদ্ধ জনতা কর্তৃক বিদ্যুৎ অফিস ঘেরাওর কথা স্বীকার করেন এবং কোন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলে তিনি জানান। মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ রুস্তম আলী শিকদার পিপিএম বলেন, মিছিলে পুলিশ লাঠি চার্জ করেনি। আমরা বিক্ষোভ কারীদের বুঝিয়ে শান্ত করি এবং পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে আনি। তবে মিছিলের সময় তাড়াহুরো করে পুলিশকে দেখে এদিক সেদিক দৌড়ানোর কারণে রাস্তার পাশে ক্যানেলে পরে কেউ আহত হতে পারে। তবে বিষয়টি আমাদের জানা নেই। ঘিওর বিদ্যুৎ না থাকায় বিশ্বকাপ ফুটবলের প্রথম আসর মেকিক্সকো-সাউথ আফ্রিকার খেলা দেখতে না পারায় মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার বানিয়াজুরী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় শত শত ক্রীড়ামোদী মানুষ বিক্ষুব্ধ হয়ে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ সৃষ্টি করে। এতে করে ঐ সড়ক দিয়ে আধাঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। শুক্রবার রাত পৌনে ৯টা থেকে সোয়া ৯টা পর্যন্ত অবরোধ চলে। এলাকাবাসী জানায়, খেলা শুরুর কিছুক্ষণ পর হঠাৎ বিদ্যুৎ চলে যায়। সাথে সাথে লোকজন বিক্ষুব্ধ হয়ে রাস্তায় নেমে আসে এবং সড়ক অবরোধ করে। প্রায় আধা ঘণ্টা পর বিদ্যুৎ আসলে লোকজন রাস্তা ছেড়ে ঘরে চলে যায়। অবরোধ চলাকালে কোন যানবাহন ভাঙচুর কিংবা কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। আবারো শিবির সন্দেহে সাধারণ শিক্ষার্থী প্রহৃত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার : গত রোববার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ ক্যাডাররা এমবিএ শেষ বর্ষের ছাত্র রেজাওয়ানুল হককে শারীরিকভাবে প্রহৃত করার পর পুলিশে সোপর্দ করে। জানা গেছে, এমবিএ শেষ বর্ষে ছাত্র রেজাওয়ানুল হক ক্লাস করার জন্য ক্যাস্পাসে আসলে ছাত্রলীগ নেতা রকি ও রাজের নেতৃত্বে ৭/৮ জন তাকে বিভাগের সামনে থেকে ধরে নিয়ে যায়। পরে রাবির বাসস্ট্যান্ডে নিয়ে গিয়ে বেধড়ক মারপিট করে। প্রতিবারের ন্যায় পরে মতিহার থানা পুলিশ এসে তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। এ ব্যপারে রাবি প্রক্টর চৌধুরী মো. জাকারিয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজী হননি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ