ঢাকা, বুধবার 19 September 2018, ৪ আশ্বিন ১৪২৫, ৮ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

ভারতে ধূলিঝড়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১২৫

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: ভারতের উত্তরাঞ্চলের পাঁচ রাজ্যে ধূলিঝড় ও বজ্রপাতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১২৫ জন হয়েছে। সেই সাথে আহত হয়েছেন আরো ২০০ জন।তছনছ হয়ে গেছেবহু গ্রাম ।ধসে গেছে ঘরবাড়ির দেয়াল। 

এর মধ্যে আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাসে আরো ঝড় হতে পারে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। 

উত্তরপ্রদেশের ত্রাণ কমিশনার কার্যালয়ের এক মুখপাত্র বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, গত ২০ বছরে এত মৃত্যুর ঘটনা ঘটল। এই সংখ্যা আরো বাড়বে বলেও আশঙ্কা করছেন কর্মকর্তারা। লোকজনকে সতর্ক থাকতে বলেছে রাজ্য ত্রাণ কমিশনারের কার্যালয়। খবর এপি/ইউএনবির।

শুক্রবার আক্রান্ত শহর ও গ্রামগুলোতে মেরামত কাজ শুরু করেছেন শ্রমিকরা।

বুধবার রাতে উত্তর প্রদেশ ও রাজস্থানের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া এই ঝড়ে বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১৩০ কিলোমিটার। ঝড়ের তাণ্ডবে ধসে যায় শত শত মাটির ঘর, উপড়ে পড়ে গাছপালা, ব্যাপক ক্ষতি হয় গম ও সবজি ক্ষেতের। সেই সাথে মারা যায় অনেক গবাদি পশু।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ঝড়ে উত্তর প্রদেশে ৭৩ জন, রাজস্থানে ৩৫ জন, তেলাঙ্গানায় আটজন এবং উত্তরখণ্ড ও পাঞ্জাবে আটজন নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার উত্তর প্রদেশের ত্রাণ কমিশনার সঞ্জয় কুমার জানিয়েছেন, ঝড়ের কারণে বৈদ্যুতিক খুঁটি ও ট্রান্সফর্মারের ক্ষতি হয়েছে। এ কারণে রাজ্যের ২০ জেলার অনেক জায়গা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে আছে। 

এদিকে চলতি সপ্তাহে আরেকটি শক্তিশালী ধূলিঝড় আঘাত হানতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছে ভারতের আবহাওয়া বিভাগ।

সঞ্জয় কুমার জানান, ঝড় সবচেয়ে বেশি ভয়াবহ ছিল আগ্রায়। সেখানে ৪৩ জন নিহত হয়েছেন। তবে আগ্রায় অবস্থিত তাজমহলের কোনো ক্ষতি হয়নি।

নিহতের মধ্যে বেশির ভাগই ছিলেন ঘুমন্ত। বজ্রপাত ও বাতাসের ঝাপটায় ঘর ধসে গিয়ে তাদের মৃত্যু হয়েছে।

ডি.এস/আ.হু

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ