ঢাকা, সোমবার 7 May 2018, ২৪ বৈশাখ ১৪২৫, ২০ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কমেছে পাসের হার ॥ বেড়েছে জিপিএ-৫

(বায়ে)গতকাল রোববার ভিকারুন্নেছা নুন স্কুল এন্ড কলেজের এসএসসি ফল প্রকাশের পর শিক্ষার্থীদের উল্লাস। (ডানে) দাখিল পরীক্ষার ফলাফলে মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডে এবারও সেরা তা’মীরুল মিল্লাত কামিল মাদরাসা টংগী। -সংগ্রাম

সামছুল আরেফীন: গত তিন বছরই কমছে পাসের হার। গতবারের তুলনায় এবার কমেছে ২ দশমিক ৫৮ শতাংশ। তবে জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সংখ্যা বেড়েছে ৫ হাজার ৮৬৮ জন। গতকাল রোববার এসএসসি, দাখিল ও এসএসসি (ভোকেশনাল) পরীক্ষায় ১০ বোর্ডে গড় পাসের হার ৭৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ। গতবার এ হার ছিল ৮০ দশমিক ৩৫ শতাংশ। এর আগের বছর ছিল ৮৮ দশমিক ২৯ শতাংশ। মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ১০ হাজার ৬২৯ জন, যা গতবার ছিল ১ লাখ ৪ হাজার ৭৬১ জন।
গতকাল সারাদেশে একযোগে আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি, মাদ্রাসা বোর্ডের দাখিল ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ গতকাল দুপুরে সচিবালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে ২০১৮ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফলের পরিসংখ্যান তুলে ধরেন। এর আগে সকালে শিক্ষামন্ত্রী বোর্ড চেয়ারম্যানদের সঙ্গে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ফলের সার-সংক্ষেপ তুলে দেন।
চলতি বছরে ১০ শিক্ষা বোর্ড থেকে ১০ লাখ ২২ হাজার ৩২০ জন ছাত্র পরীক্ষায় অংশ নেয়। এর মধ্যে পাস করেছে ৭ লাখ ৮৪ হাজার ২৪৫ জন। ছেলেদের পাসের হার ৭৬ দশমিক ৭১ শতাংশ। আর মেয়েদের পাসের হার ৭৮ দশমিক ৮৫ শতাংশ। ছেলেদের তুলনায় মেয়েদের গড় পাসের হার ২ দশমিক ১৪ শতাংশ বেশি। জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্র ৫৫ হাজার ৭০১ জন। আর ছাত্রী ৫৪ হাজার ৯২৮ জন। এখানে ছাত্ররা ছাত্রীদের চেয়ে এগিয়ে।


ঢাকা বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ঢাকার পাসের হার গত কয়েক বছর ধরেই কমছে। এবার পাসের হার ৮১ দশমিক ৪৮ শতাংশ, যা গত বছর ছিল ৮৬ দশমিক ৩৯ শতাংশ, তার আগের বছর ৮৮ দশমিক ৬৭ শতাংশ। 
এবার পরীক্ষার্থী ছিল ৫ লাখ ৩০ হাজার ৪২২ জন। এর মধ্যে ছাত্র ২ লাখ ৫৯ হাজার ২৯৩ জন এবং ছাত্রী ২ লাখ ৭১ হাজার ১২৯ জন। পাস করেছে ৪ লাখ ৩২ হাজার ২০১ জন। এর মধ্যে ছাত্র ২ লাখ ৬ হাজার ৮৯৭ জন এবং ছাত্রী ২ লাখ ২৫ হাজার ৩০৪ জন।
বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ১ লাখ ৫৯ হাজার ৬৮৫ জন, পাস করেছে ১ লাখ ৪৯ হাজার ৩৪৪ জন। মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ২ লাখ ৬ হাজার ২৩৫ জন, পাস করেছে ১ লাখ ৪৭ হাজার ৯২৯ জন। ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ১ লাখ ৬৪ হাজার ৫০২ জন, পাস করেছে ১ লাখ ৩৪ হাজার ৯২৮ জন।
রাজশাহী বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, রাজশাহীতে পাসের হার গত ৩ বছরে ধারাবাহিকভাবে কমছে। এবার পাসের হার ৮৬ দশমিক ৭ শতাংশ, যা গতবার ছিল ৯০ দশমিক ৭০ শতাংশ, তার আগের বার ছিল ৯৫ দশমিক ৭০ শতাংশ।  
এবার পরীক্ষার্থী ১ লাখ ৯৩ হাজার ৮৬২ জন। এর মধ্যে ছাত্র ১ লাখ ৭৯৩ জন এবং ছাত্রী ৯৩ হাজার ৬৯ জন। পাস করেছে ১ লাখ ৬৬ হাজার ৮৬৫ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৮৫ হাজার ৮২২ জন এবং ছাত্রী ৮১ হাজার ৪৩ জন।
বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৮৪ হাজার ৩৩ জন, পাস করেছে ৮০ হাজার ২৭৮ জন। মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৯৩ হাজার ৩৯০ জন, পাস করেছে ৭২ হাজার ৩৬৮ জন। ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ১৬ হাজার ৪৩৯ জন, পাস করেছে ১৪ হাজার ২১৯ জন।
কুমিল্লা বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, কুমিল্লায় পাসের হার গতবারের চেয়ে এবার বেড়েছে। এবার পাসের হার হচ্ছে ৮০ দশমিক ৪০ শতাংশ, যা গতবার ছিল ৫৯ দশমিক ৩ শতাংশ।
এবার পরীক্ষার্থী ১ লাখ ৮২ হাজার ৭১১ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৮১ হাজার ২৪০ জন এবং ছাত্রী ১ লাখ ১ হাজার ৪৭১ জন। পাস করেছে ১ লাখ ৪৬ হাজার ৮৯৭ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৬৬ হাজার ৩৭ জন এবং ছাত্রী ৮০ হাজার ৮৬০ জন।
বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৫৪ হাজার ৮৭৯ জন, পাস করেছে ৫১ হাজার ৭৯৫ জন। মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৫১ হাজার ৭৭৭ জন, পাস করেছে ৩৫ হাজার ১৩১ জন। ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ৭৬ হাজার ৫৫ জন, পাস করেছে ৫৯ হাজার ৯৭১ জন।
যশোর বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, যশোরে এবার পাসের হার কমেছে। এবার এ হার হলো ৭৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ, যা গতবার ছিল শতকরা ৮০ দশমিক ৪ ভাগ, এর আগের বার ছিল ৯১ দশমিক ৮৫ শতাংশ।  
এবার পরীক্ষা দিয়েছে ১ লাখ ৮৩ হাজার ৫৮৪ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৯২ হাজার ৪৪৩ জন এবং ছাত্রী ৯১ হাজার ১৪১ জন। পাস করেছে ১ লাখ ৪০ হাজার ৬৯৯ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৬৮ হাজার ৮১৭ জন এবং ছাত্রী ৭১ হাজার ৮৮২ জন।
বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৪০ হাজার ১৯৭ জন, পাস করেছে ৩৭ হাজার ৯১১ জন। মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ১ লাখ ৫ হাজার ৮৭৯ জন, পাস করেছে ৭১ হাজার ৮৪৯ জন। ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ৩৭ হাজার ৫০৮ জন, পাস করেছে ৩০ হাজার ৯৩৯ জন।
চট্টগ্রাম বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, চট্টগ্রামে গত ৩ বছরই ধারাবাহিকভাবে ফলাফল নি¤œমুখী। এবার পাসের হার ৭৫ দশমিক ৫০ শতাংশ, যা গতবার ছিল ৮৩ দশমিক ৯৯ শতাংশ, এর আগের বার ছিল ৯০ দশমিক ৪৪ শতাংশ।  
এবার পরীক্ষার্থী ছিল ১ লাখ ৩৫ হাজার ১৪৮ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৬২ হাজার ৭৫৭ জন এবং ছাত্রী ৭২ হাজার ৩৯১ জন। পাস করেছে ১ লাখ ২ হাজার ৩৭ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৪৭ হাজার ৬০৮ জন এবং ছাত্রী ৫৪ হাজার ৪২৯ জন।
বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৩০ হাজার ৭৮৫ জন, পাস করেছে ২৭ হাজার ৭০৮ জন। মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৪২ হাজার ৫৬২ জন, পাস করেছে ২৫ হাজার ৫৯২ জন। ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ৬১ হাজার ৮০১ জন, পাস করেছে ৪৮ হাজার ৩৭৩ জন।
বরিশাল বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, বরিশালে পাশের হার গতবারের তুলনায় নি¤œমুখী। এবার পাসের হার ৭৭ দশমিক ১১ শতাংশ, যা গতবার ছিল ৭৭ দশমিক ২৪ শতাংশ, এর আগের বছর ছিল ৭৯ দশমিক ৪১ শতাংশ। 
এবার পরীক্ষার্থী ১ লাখ ৩ হাজার ১২৪ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৫১ হাজার ৯১২ জন এবং ছাত্রী ৫১ হাজার ২১২ জন। পাস করেছে ৭৯ হাজার ৫২০ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৩৯ হাজার ৫১ জন এবং ছাত্রী ৪০ হাজার ৪৬৯ জন।
সিলেট বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, সিলেটে এবার পাসের হার কমেছে। এবার এর হার শতকরা ৭০ দশমিক ৪২ শতাংশ, যা গতবার ছিল শতকরা ৮০ দশমিক ২৬ ভাগ, এর আগের বার ছিল ৮৪ দশমিক ৭৭ ভাগ। 
এবার পরীক্ষার্থী ১ লাখ ৮ হাজার৯২৮ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৪৭ হাজার ৮৬৭ জন এবং ছাত্রী ৬১ হাজার ৬১ জন। পাস করেছে ৭৬ হাজার ৭১০ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৩৪ হাজার ১৪৩ জন এবং ছাত্রী ৪২ হাজার ৫৬৭ জন।
বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ২২ হাজার ৫৫০ জন, পাস করেছে ২০ হাজার ৮৭৪ জন। মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৭৬ হাজার ৯২ জন, পাস করেছে ৪৭ হাজার ৪৩৭ জন। ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ১০ হাজার ২৮৬ জন, পাস করেছে ৮ হাজার ৩৯৯ জন।
দিনাজপুর বোর্ড : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, দিনাজপুর এবার পাসের হার  এবারও কমেছে। এবার এর হার হলো ৭৭ দশমিক ৬২ শতাংশ, যা গতবার ছিল ৮৩ দশমিক ৯৮ শতাংশ, এর আগের বার ছিল ৮৯ দশমিক ৫৯ শতাংশ।   
এবার পরীক্ষার্থী ছিল ১ লাখ ৮৬ হাজার ৬৪৪ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৯৫ হাজার ৭৯২ জন এবং ছাত্রী ৯০ হাজার ৮৫২ জন। পাস করেছে ১ লাখ ৪৪ হাজার ৮৭৬ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৭২ হাজার ৬১৬ জন এবং ছাত্রী ৭২ হাজার ২৬০ জন।
বিজ্ঞান বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৮৪ হাজার ৩৩৬ জন, পাস করেছে ৭৬ হাজার ৪৩৭ জন। মানবিক বিভাগে পরীক্ষা দিয়েছে ৯৬ হাজার ৩৬৭ জন, পাস করেছে ৬৩ হাজার ৬৯৯ জন। ব্যবসা শিক্ষায় পরীক্ষা দিয়েছে ৫ হাজার ৯৪১ জন, পাস করেছে ৪ হাজার ৭৪০ জন।
বেড়েছে জিপিএ-৫: এবার জিপিএ-৫ পাওয়ার হার বেড়েছে। গতবারের তুলনায় এবার বেড়েছে ৫ হাজার ৮৬৮ জন। এবার পেয়েছে ১ লাখ ১০ হাজার ৬২৯ জন, যা গতবার ছিল ১ লাখ ৪ হাজার ৭৬১ জন। এর আগের বার ছিল ১ লাখ ৯ হাজার ৭৬১ জন। ২০১৫ সালে ছিল ১ লাখ ১১ হাজার ৯০১ জন। ২০১৪ সালে ছিল ১ লাখ ৪২ হাজার ২৭৬ জন।
বরাবরের মতো এবারও সবচেয়ে বেশী জিপিএ-৫ পেয়েছে ঢাকা বোর্ড, এর সংখ্যা ৪১ হাজার ৫৮৫ জন। রাজশাহী বোর্ডে ১৯ হাজার ৪৯৮ জন, কুমিল্লা বোর্ডে ৬ হাজার ৮৬৫ জন, যশোর বোর্ডে ৯ হাজার ৩৯৫ জন, চট্টগ্রাম বোর্ডে ৮ হাজার ৯৪ জন, বরিশাল বোর্ডে ৩ হাজার ৪৬২ জন, সিলেট বোর্ডে ৩ হাজার ১৯১ জন, দিনাজপুর বোর্ডে ১০ হাজার ৭৫৫ জন, মাদরাসা বোর্ডে ৩ হাজার ৩৭১ জন এবং কারিগরী বোর্ডে ৪ হাজার ৪১৩জন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ