ঢাকা, সোমবার 7 May 2018, ২৪ বৈশাখ ১৪২৫, ২০ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়ে রংপুরে ১ জনের আত্মহত্যা হাসপাতালে ৯ জন

রংপুর অফিস : এসএসসি পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ায় রংপুর সদর উপজেলার হরিদেবপুর ইউনিয়নের রোকেয়া বেগম নামে এসএসসি পরীর্ক্ষাথী বিষ পানে আত্মহত্যা করেছে। এছাড়া নগরীসহ বিভিন্ন এলাকার আরো ৯ ছাত্রী বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করলে তাদেরকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। চিকিৎসকেরা বলছেন এদের মধ্যে ৪ জনের অবস্থা আশংকাজনক।
উল্লেখ্য, গতকাল রোববার ফলাফল ঘোষনার পর রোকায়া বেগম তার বাড়িতে রাখা কিটনাশক পান করে। এ সময় আশংকাজনক অবস্থায় তাঁকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকেলে সে মারা যায়। রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের চিকিৎসক ডাক্তার তাবাসুম তমি জানান, এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণার পর রংপুরের বিভিন্ন এলাকার এসব শিক্ষার্থী তাদের নিজ বাড়িতে বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। তাদেরকে আমরা আমাদের সাধ্যমত চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছি। যারা আতœহত্যার চেষ্টা করেছে তাদের মধ্যে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেলে রোকেয়া বেগম নামে এক শিক্ষার্থী মৃত্যুবরণ করে। সে রংপুর সদর উপজেলার হরিদেবপুর ইউনিয়নের আজাহারুল ইসলামের একমাত্র কন্যা।
এছাড়া আশংকাজনক অবস্থায় নগরীর উত্তম বখতিয়ার পুর হাজিরহাট এলাকার শহিদুল ইসলাম মিন্টুর মেয়ে খাদিজা, দেওডোবা ডাঙ্গীরপার এলাকার রইচ উদ্দিনের মেয়ে শারমিন, গঙ্গাচড়া উপজেলার বেতগাড়ি এলাকার তাইজিরুল ইসলামের মেয়ে তানজিনা, নগরীর তাজহাট মোল্লাপাড়া এলাকার গণেশ রায়ের মেয়ে শিবা রানী, পীরগাছা চৌধুরানী এলাকার আব্দুস সালামের মেয়ে সমাপ্তি শহরের সেনপাড়া এলাকার অলক রায়ের মেয়ে প্রীতি রায়, নগরীর খেড়বাড়ি এলাকার বকুলের কন্যা তাহেরা এবং পাকারমাথা এলাকার মঞ্জু মিয়ার কন্যা লিলি আক্তার মেডিকেলে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদের মধ্যে সমাপ্তি ফাঁস দিয়ে এবং অন্যরা বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে বলে জানা গেছে। চিকিৎসক তাবাসুম জানান, তিনি তার চাকরি জীবনে একসাথে এতগুলো শিক্ষার্থীকে  আতœহত্যা চেষ্টার রোগী  হিসেবে দেখেননি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ