ঢাকা, সোমবার 7 May 2018, ২৪ বৈশাখ ১৪২৫, ২০ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

৫ বছরের মধ্যে এবারের পরীক্ষায় পাসের হার কমেছে 

এবারের এসএসসি পরীক্ষায় সিলেট সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের কৃতকার্য ছাত্রীদের উল্লাস -ফয়সল আহমদ রানা

কবির আহমদ, সিলেট : মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড সিলেটে এসএসসি পরীক্ষায় গত ৫ বছরের মধ্যে এবার পাসের হার সবচেয়ে কম। ফলাফলে সিলেট শিক্ষাবোর্ডে  মেয়েদের চেয়ে ছেলেরা এগিয়ে রয়েছে। গতকাল রোববার দুপুরে সিলেট মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. কবির আহমদ আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা করেন।

ঘোষিত ফলাফলে দেখা যায়, গত ৫ বছরের মধ্যে এবারের পরীক্ষায় পাসের হার সবচেয়ে কমেছে সিলেটে। সিলেট শিক্ষাবোর্ডে ২০১৪ সালে পাসের হার ছিল ৮৯ দশমিক ২৩, ২০১৫ সালে ৮১ দশমিক ৮২, ২০১৬ সালে পাসের হার ছিল ৮৪ দশমিক ৭৭, ২০১৭ সালে ৮০ দশমিক ২৬। আর এবার ২০১৮ সালে পাসের হার ৭০ দশমিক ৪২। যা গতবারের চেয়ে ৯ দশমিক ৪৮ শতাংশ কম। তবে ২০১৪ সালের পর এ বছরই জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সংখ্যা বেড়েছে। ২০১৪ সালে জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৩৩৪১জন, ২০১৫ সালে ২৪৫২ জন, ২০১৬ সালে ২২৬৬ জন এবং ২০১৬ সালে ২৬৬৩জন জিপিএ ৫ পায়। তবে গতবারের তুলনায় এবার ৫৮২ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ বেশি পেয়েছে। গতবার জিপিএ-৫ পেয়েছিল ২ হাজার ৬৬৩ জন শিক্ষার্থী। এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ হাজার ১৯১ জন।

এবছর সিলেটে ১ লাখ ৮ হাজার ৯২৮ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেন। এদের মধ্যে পাস করেছে ৭৬ হাজার ৭১০ জন।  সিলেট শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. কবির আহমদ জানান, গণিতে বেশি ফেল করায় পাসের হার কমেছে। তবে সার্বিক ফলে তারা সন্তুষ্ট। পাসের হার কমলেও গুণগত মান বৃদ্ধি পেয়েছে। বোর্ডের অধিনে ৮৯২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মোট ১ লাখ ৮ হাজার ৯২৮ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়ে পাস করেছে ৭৬ হাজার ৭১০ জন। এদের মধ্যে ছেলে ৩৪ হাজার ১৪৩জন ও মেয়ে শিক্ষার্থী ৪২ হাজার ৫৬৭জন। শতভাগ পাসকৃত প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ২৩। এদিকে, এবারের এসএসসি পরীক্ষার পাশের হার ও জিপিএ-৫ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে ছাত্রীদের চেয়ে এগিয়ে ছাত্ররা। সিলেট শিক্ষা বোর্ডে এবার মোট পাশের হার ৭০.৪২। এরমধ্যে ছাত্রদের পাশের হার ৭১ দশমিক ৩৩ ও ছাত্রীদের ৬৯ দশমিক ৭১। জিপিএ-৫ প্রাপ্তির ক্ষেত্রেও এগিয়ে ছেলেরা। মোট ৩ হাজার ১শ’ ৯১ জন জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্র ১হাজার ৭শ’ ১৮ ও ছাত্রী ১হাজার ৪শ’ ৭৩ জন। সিলেট শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. কবির আহমদ এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ