ঢাকা, মঙ্গলবার 8 May 2018, ২৫ বৈশাখ ১৪২৫, ২১ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রাজনৈতিক বিজয় হয়েছে ফিলিস্তিনীদের

৭ মে, মিডল ইস্ট মনিটর : ফিলিস্তিনের স্বশাসন কর্তৃপক্ষের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রিয়াদ আল মালিকি বলেছেন, জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হওয়ার প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে ইসরাইল সরে দাঁড়ানোয় ফিলিস্তিনীদের রাজনৈতিক বিজয় হয়েছে। ইসরাইল কোনো ভাবেই জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য হওয়ার যোগ্য নয় বলে তিনি মন্তব্য করেন।

ইসরাইল প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেয়ার পর এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ কথা বলেন।

ফিলিস্তিনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইসরাইল নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হওয়ার জন্য প্রার্থীতা ঘোষণা করার পর থেকেই ফিলিস্তিন স্বশাসন কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে নানা ধরণের চেষ্টা শুরু করা হয়। এ ক্ষেত্রে বন্ধুপ্রতিম দেশগুলোর পাশাপাশি আরব লীগ, ওআইসি ও ন্যামের সহযোগিতায় বিবৃতিও প্রকাশ করা হয়। ইসরাইলকে যে নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য করা ঠিক হবে না বিবৃতিতে সে বিষয়েও ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে।

জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হওয়ার নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা না থাকায় ইসরাইল প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেছে।

১৫ সদস্যের নিরাপত্তা পরিষদে পাঁচটি স্থায়ী সদস্য রয়েছে। বাকি ১০টি অস্থায়ী সদস্য দেশ দুই বছরের জন্য নির্বাচিত হয়। এর মধ্যে পাঁচটি আসনের জন্য এ বছর নির্বাচন হচ্ছে। আগামী মাসে এ নির্বাচন হবে এবং পশ্চিমা ব্লকের সদস্য হিসেবে ইসরাইল, জার্মানি ও বেলজিয়াম দুটি আসনের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছিল। আরব ও মুসলিম দেশগুলোর তীব্র বিরোধিতার মুখে ইসরাইল এ নির্বাচন থেকে সরে গেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

চলতি মাসের প্রথম দিকে ফিলিস্তিনী পররাষ্ট্রমন্ত্রী রিয়াদ আল-মালিকি বলেছিলেন, ইসরাইলের প্রতিদ্বন্দ্বিতার বিষয়ে তারা যে প্রচারণা চালাচ্ছেন তা ইউরোপের দেশগুলোরও সমর্থন পাচ্ছে। যে ইসরাইলের হাতে প্রতিদিন আন্তর্জাতিক আইন ও মানবাধিকার লংঘিত হচ্ছে তারা জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদে বসে বিশ্বের শান্তি ও বিভিন্ন জাতির ভাগ্য নির্ধারণ করতে পারে না।

এদিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে পরমাণু সমঝোতা থেকে বের হয়ে যাওয়া থেকে বিরত রাখার জন্য আমেরিকা সফরে রয়েছে ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন। ট্রাম্প আগামী ১২ মে পরমাণু সমঝোতা থেকে বের হওয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন।

পরমাণু সমঝোতা থেকে বের হয়ে যাওয়া এবং ইরানের ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ ঠেকানোর ক্ষেত্রে জনসনের সফরকে শেষ মুহূর্তের কূটনৈতিক প্রচেষ্টা হিসেবে দেখা হচ্ছে। পরমাণু সমঝোতা রক্ষার জন্য এরইমধ্যে রাশিয়া ও চীন যৌথ বিবৃতি দিয়েছে এবং ফ্রান্স বলেছে সমঝোতা থেকে আমেরিকা বেরিয়ে গেলে যুদ্ধ শুরু হতে পারে। দুদিনব্যাপী আমেরিকা সফরের সময় মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ও ট্রাম্পের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনসহ শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী। মাইক পেন্স ও বোল্টন দুজনই পরমাণু সমঝোতার চরম সমালোচক।

এর আগে, চলতি মাসের প্রথম দিকে বরিস জনসন পরমাণু সমঝোতা রক্ষার গুরুত্ব তুলে ধরে বলেছিলেন, আমেরিকার মধ্যে যে উদ্বেগ রয়েছে তাকেও বিবেচনায় নিতে হবে। ট্রাম্প দাবি করে আসছেন, ইরানের সঙ্গে সই হওয়া ছয় জাতিগোষ্ঠীর পরমাণু সমঝোতা হচ্ছে তার দেখা সবচেয়ে খারাপ চুক্তি। তিনি এ সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যাবেন কিনা তা পরিষ্ককার করবেন ১২ মে।

ইসরাইলী সেনাদের গুলীতে আরো ৩ ফিলিস্তিনী নিহত : ফিলিস্তিনের আরো ৩ নাগরিককে গুলী করে হত্যা করেছেন ইসরাইলের সেনাবাহিনীর সদস্যরা।

গত ৩০ মার্চ বেদখল ঘরবাড়িতে ফেরার জন্য ফিলিস্তিনীরা 'দি গ্রেট মার্চ ফর রিটার্ন' বা ঘরে ফেরার যাত্রা শুরু করার পর এ নিয়ে ৫২ ফিলিস্তিনীকে গুলী করে হত্যা করল ইসরাইল। রোববার গাজা সীমান্ত এলাকায় তিনজনকে গুলী করে হত্যা করেন ইসরাইলি সেনারা। তিনজনের মধ্যে দুজনের নাম জানাতে পেরেছে গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। তারা হলেন- বাহা রহমান কুদিহ (২৩) ও মুহাম্মদ আবু রায়দা (২০)।

এর আগে গাজা ভূখণ্ডের মধ্যাঞ্চলে শনিবার এক বিস্ফোরণে ফিলিস্তিনী প্রতিরোধ সংস্থা হামাসের ছয়জন নিহত হয়েছেন। হামাসের সশস্ত্র শাখা এজেদিন আল-কাসাম ব্রিগেড এ ঘটনার জন্য ইসরাইলকে দায়ী করে জানিয়েছে, এ বিস্ফোরণে তাদের দলের সদস্যরা হতাহত হয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ