ঢাকা, মঙ্গলবার 8 May 2018, ২৫ বৈশাখ ১৪২৫, ২১ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সুন্দরগঞ্জে কাটাজান খালে ব্রিজ না থাকায় জনদুর্ভোগ

গাইবান্ধা সংবাদদাতা: সুন্দরগঞ্জ উপজেলার রামজীবন ইউনিয়নের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত কাটাজান খালে ব্রীজ না থাকায় জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে।
জানা গেছে, রামজীবন ইউনিয়নের মধ্যস্থল কে কৈ কাশদহ গ্রামের মধ্য দিয়ে কাটাজান খালটি প্রবাহিত। উক্ত খালের দু-পাশের সংযোগ রাস্তা দিয়ে পূর্বাঞ্চলের শোভাগঞ্জ, বেলকা, ছমিরের বাজার, ধুবনী কঞ্চিবাড়ি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র, ধুবনী বাজার,লাল চামার, পাঁচপীর এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার শত শত মানুষ রাস্তাটি দিয়ে গাইবান্ধা জেলা শহরসহ বিভাগীয় শহর রংপুর, নলডাঙ্গা রেল স্টেশন, কামারপাড়া ও বামনডাঙ্গা রেল স্টেশনে যাতায়াত করেন। খালের উপর ব্রীজ না থাকায় ওই সব এলাকার মানুষকে ১০/১২ কিলোমিটার পথ ঘুরে উক্ত এলাকা সমুহে যাতায়াত করতে হয়।
এ অবস্থায় থেকে পরিত্রাণের জন্য সাবেক সংসদ সদস্য কর্ণেল (অব:) ডাক্তার আব্দুল কাদের খান ২০০৯ সালে ব্যক্তিগত অর্থায়নে কাটাজান খালের উপর নড়বড়ে একটি পাটাতন ব্রীজ নির্মাণ করেন। নির্মাণের এক বছর যেতে না যেতেই খালের পানির তীব্র স্রোতে ব্রীজটির দু-পাশের মাটি সরে গিয়ে তা দুমড়ে-মুছড়ে যায়। এতে করে ওই পথ দিয়ে যানবাহনসহ পথচারীদের চলাচলে বিঘ্ন ঘটে।
স্থানীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মিজানুর রহমান খন্দকার পথচারীদের চলাচলের সুবিধার্থে গত বছর ব্রীজটির দু-পাশে বাঁশের চারাট দিলেও বর্তমানে তা চলাচলে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। স্থানীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মিজানুর রহমান খন্দকার ওই অঞ্চলের মানুষের যাতাযাতের সুবিধার্থে কাটাজান খালের উপর ব্রিজ নির্মাণে সরকারের সু-দৃষ্টি কামনা করেন।
এ নিয়ে উপজেলা প্রকৌশলী আবুল মনছুরের সাথে কথা হলে তিনি জানান, দেশের চলমান যোগাযোগ ব্যবস্থায় অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হলেও কাটাজান খালের উপর ব্রীজ না থাকায় ওই অঞ্চলের মানুষ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ