ঢাকা, বৃহস্পতিবার 20 September 2018, ৫ আশ্বিন ১৪২৫, ৯ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

শিক্ষক রেজাউল হত্যায় দুজনের মৃত্যুদণ্ড, যাবজ্জীবন ৩

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: 

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক ড. এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যা মামলায় দুই আসামির মৃত্যুদণ্ড এবং তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

আজ মঙ্গলবার (৮ মে) দুপুরে রাজশাহীর দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনালে চাঞ্চল্যকর এ মামলার রায় ঘোষণা করা হয়।

মৃত্যুদণ্ড পাওয়া দুই আসামি হলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগেরই ছাত্র শরিফুল ইসলাম ও বগুড়ার শিবগঞ্জের মাসকাওয়াত হাসান ওরফে আব্দুল্লাহ ওরফে সাকিব। শরিফুল শুরু থেকেই পলাতক।

এছাড়া যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে নীলফামারীর মিয়াপাড়ার মো. রহমতউল্লাহ, রাজশাহী মহানগরীর নারিকেলবাড়িয়া এলাকার আব্দুস সাত্তার ও তার ছেলে রিপন আলীকে।

চাঞ্চল্যকর এই মামলায় মোট আটজন আসামির মধ্যে তিনজনই বিভিন্ন সময় বন্দুকযুদ্ধে মারা গেছেন। একজন পলাতক এবং বাকি চারজন কারাগারে রয়েছেন। কারাগারে থাকা আসামিদের রায় ঘোষণার সময় আদালতে হাজির করা হয়।

২০১৬ সালের ২৩ এপ্রিল রাজশাহী নগরীর শালবাগান এলাকায় নিজ বাড়ির অদূরে খুন হন অধ্যাপক রেজাউল করিম। এ ঘটনায় তার ছেলে রিয়াসাত ইমতিয়াজ বাদী হয়ে নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় অজ্ঞাতদের আসামি করে হত্যা মামলা  করেন। তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ৬ নভেম্বর জেএমবির আটজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। এর আগেই আসামি খায়রুল ইসলাম বাঁধন, নজরুল ইসলাম ও তারেক হাসান আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন।

রাজশাহীর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এন্তাজুল হক বাবু জানান, ২০১৭ সালের ১২ সেপ্টেম্বর থেকে মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু হয়। ৩২ জন সাক্ষীর মধ্যে ২৬ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করে আদালত। পরে ৯ এপ্রিল থেকে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত উভয়পক্ষ আদালতে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন। এরপর ওই দিনই মামলার রায় ঘোষণার তারিখ নির্ধারণ করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ