ঢাকা, রোববার 23 September 2018, ৮ আশ্বিন ১৪২৫, ১২ মহররম ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

১১ জেলায় বজ্রপাতে প্রাণ গেল ২১ জনের

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক:

বুধবার বজ্রপাতে ১০ জেলায় ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে আরও ১৪ জন।

সারাদেশে সকাল থেকে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি ও ঝড়ের সঙ্গে ঘটছে বজ্রপাতের ঘটনা। এর মধ্যে নীলফামারীতে দু'জন, হবিগঞ্জে ছয়জন, মানিকগঞ্জ, সুনামগঞ্জ, রাজশাহী ও কিশোরগঞ্জে দু’জন করে এবং সিরাজগঞ্জ, গাইবান্ধা, ময়মনসিংহ, জামালপুর ও নারায়ণগঞ্জে এক জন করে নিহত হয়েছেন।

সরকারি হিসেবে মার্চ-এপ্রিল দুই মাসে বজ্রপাতে ৭০ জন নিহত হয়েছে; ঝড়-বৃষ্টির সময় বজ্রপাতে প্রতিদিনই হতাহতের ঘটনা ঘটছে।

হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জে হাওরে ধান কাটার সময় বজ্রপাতে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে আরও চারজন। এরা হলেন নবীগঞ্জ উপজেলার বৈলাকপুর গ্রামের হরিচরণ পালের ছেলে নারায়ণ পাল ও আমড়াখাই গ্রামের হাবিব উল্লার ছেলে আবু তালিব, মাধবপুর উপজেলার পিয়াইম গ্রামের রামচরণ সরকারের ছেলে জহরলাল সরকার, লাখাই উপজেলার তেঘরিয়া গ্রামের জাহেদ মিয়ার ছেলে চকি মিয়া, সুনামগঞ্জের ধাইপুর গ্রামের বসন্ত দাসের ছেলে স্বপন দাস ও সিরাজগঞ্জের নওসের মিয়ার ছেলে জয়নাল মিয়া।

তাছাড়া লাখাই উপজেলার তেঘরিয়া হাওরে ধানকাটার সময় বজ্রপাতে গুরুতর আহত হন চকি মিয়া। তাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণ করেন। এছাড়া দুপুরে নবীগঞ্জের বৈলাকপুর হাওরে বজ্রপাতে নারায়ণ পাল ও আবু তালিব নিহত হর। একই সময়ে মাধবপুরের পিয়াইম হাওরে নিহত হন জহরলাল সরকার।

সিরাজগঞ্জ : সিরাজগঞ্জের কাজিপুর বজ্রপাতে সমতুল্লাহ (৫০) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় শাকিল মিয়া (১৫) নামে এক স্কুলছাত্র আহত হয়েছে।

কিশোরগঞ্জ: কিশোরগঞ্জের নিকলী ও পাকুন্দিয়া উপজেলায় বজ্রপাতে দুইজন নিহত হয়েছে। এরা হলেন নিকলী উপজেলার ছাতিরচর ইউনিয়নের পরিষদপাড়া গ্রামের শাহ জালাল (২৪) ও পাকুন্দিয়া উপজেলার সুখিয়া ইউনিয়ন পরিষদের আশুতিয়া গ্রামে দিপালী রানী বর্মণ (৩৫)

ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহের সদর উপজেলায় বজ্রপাতে একজন নিহত হয়েছে। এ সময় মুক্তাগাছায় আটজন আহত হয়েছে। বুধবার দুপুরে উপজেলার চর নীলক্ষীয়ায় বজ্রপাতে মারা যান আলাল উদ্দিন (৬০)।

সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা ও শাল্লায় বজ্রপাতে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। এরা হলেন ধরমপাশা উপজেলার সদর ইউনিয়নের দুর্বাকান্দা গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে জুয়েল আহমদ (১৬) ও শাল্লা উপজেলার আটগাঁও ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামের ইসহাক আলীর ছেলে আলমগীর মিয়া (২২)।

মানিকগঞ্জ: মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলায় বজ্রপাতে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার সকালে উপজেলার বাচামারা ইউনিয়নের বাচামারা গ্রামে বজ্রপাতের ঘটনায় মারা যান গ্রামের ইয়াকুব আলী (৫০)।

নীলফামারী: বজ্রপাতে নীলফামারীর জলঢাকায় দুইজন নিহত হয়েছে। বুধবার সকালে জেলা জুড়ে ঝড়ো হাওয়া ও শিলাবৃষ্টির সময় বজ্রপাত তাদের মৃত্যু হয়। এরা হলেন উপজেলার বালাগ্রাম ইউনিয়নের শালনগ্রামের আসমা বেগম (৫০) ও কাঁঠালী ইউনিয়নের উত্তর দেশীবাই গ্রামের নূর আমিন (৪৫)।

এদিকে একই সময়ে ডিমলা উপজেলার পূর্বছাতনাই ইউনিয়নের ঝাড়সিংহেরশ্বর গ্রামে বজ্রপাতে পাঁচটি গাভির মৃত্যু হয়েছে। গ্রামের রাস্তার পাশে একটি টিনের চালার মধ্যে গাভিগুলো বাঁধা ছিল। বজ্রপাতে সেখানেই মারা পড়ে এগুলো।

রাজশাহী: রাজশাহীর তানোরে বজ্রপাতে তিনজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও দুইজন। বুধবার সকালে উপজেলার দুবাইল, চক্রতিরা ও বাতাসপুর গ্রামে এ বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে।নিহতরা হলেন বাতাসপুর গ্রামের কৃষক আনসার আলী (৩০), দুবইল পূর্বপাড়ার কিশোর সোহাগ আলী (১৬) ও কলমা ইউনিয়নের চক্রতিরাম গ্রামের বেলাম হেমব্রমের স্ত্রী এলেনা মুরমু (৩৫)। আর ধানকাটার সময় বজ্রপাতে এলেনা ও মাঠে গভীর নলকূপে কাজ করার সময় বজ্রপাতে মারা যান সোহাগ আলী।

গাইবান্ধা: গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলায় বজ্রপাতে কৃষি শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার উদাখালি ইউনিয়নের পশ্চিম ছালুয়া গ্রামের চরে বুধবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মহর আলী (৩৫) উপজেলার উড়িয়া ইউনিয়নের চর কাবিলপুর গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে।

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের তিলাব গ্রামে বজ্রপাতে কুলফি আক্তার (০৮) নামে এক স্কুলছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। কুলফি ওই গ্রামের শাহ কামালের মেয়ে।

জামালপুর : জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় বজ্রপাতে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার উপজেলার চর আমখাওয়া ইউনিয়নের মৌলভীর চরে এ ঘটনা ঘটে। মৃত মো. হাবিবুর রহমান (৪৭) মৌলভীর চরের মৃত আব্দুল মজিদের ছেলে বলে নিশ্চিত করেছেন একই ইউপির ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য জয়নাল আবেদীন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ