ঢাকা, বৃহস্পতিবার 10 May 2018, ২৭ বৈশাখ ১৪২৫, ২৩ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

জলবসন্ত রোগে করণীয়

বসন্তের শেষে এবং গ্রীষ্মের শুরুতে চিকেন পক্স বা জলবসন্তে আক্রান্ত হচ্ছেন অনেকেই। খুব দ্রুত ছড়াতে পারে এই সংক্রামক ব্যাধি। ভেরিসেলা জোস্টার নামক ভাইরাসের কারণে এই রোগটি হয়ে থাকে। যে কোনো বয়সের মানুষ চিকেন পক্সে আক্রান্ত হতে পারে, তবে বিশেষ করে ১২ বছরের কম বয়সের শিশুদের আক্রান্ত হওয়ার হার বেশি। সাধারণত রোগটিতে একবার আক্রান্ত হলে বাকি জীবনে দ্বিতীয়বার আক্রান্ত হওয়ার সুযোগ খুবই কম। কারণ একবার আক্রান্ত হলে রোগটির বিরুদ্ধে শরীরে প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে উঠে। শরীরে চিকেন  পক্সের জীবাণু ঢোকার ৮ থেকে ২১  দিনের মধ্যে লক্ষণ শুরু হয়। সাধারণত জ্বর, মাথাব্যথা ও সর্দি ইত্যাদি দিয়ে রোগটির উপসর্গ শুরু হয়। এর দুই থেকে তিনদিন পর পানিভর্তি ছোট ছোট দানা ত্বকে দেখা যায়। এরা সাধারণত লালচে বর্ণের হয় এবং কিছুটা চুলকায়। পেটে, পিঠে বা মুখমন্ডলে প্রথমে দানা ওঠা শুরু হয় যা পরবর্তীতে সমস্ত শরীরে ছড়িয়ে পড়তে পারে। দুই থেকে চারদিনের মধ্যে দানাগুলো পানির মতো তরল দিয়ে ভর্তি হয় এবং কিছুটা তামাটে বর্ণের হয়। মাঝে মাঝে ইনফেকশনের কারণে পুঁজ তৈরি হতে পারে। কয়েকদিনের মধ্যে দানাগুলো ফেটে যায় এবং শুকিয়ে কালো বাদামি হয়ে আসে। এই সময় চুলকানি বেড়ে যেতে পারে। সাধারণত রোগটি ৭ থেকে ১০ দিন স্থায়ী হয়। অনেক সময় চিকেন পক্স আক্রান্ত রোগীদের একই সঙ্গে ব্যাকটেরিয়াল ইনফেকশন হতে পারে। তখন ক্ষত তৈরি হতে পারে। চিকেন পক্সে আক্রান্ত রোগীকে যতটুকু সম্ভব বিশ্রামে রাখা উচিত। পরিবারের আক্রান্ত সদস্যকে অন্যান্য সদস্য থেকে যতটা সম্ভব আলাদা রাখতে হবে বিশেষ করে শিশুদের। জ্বর নিরাময়ের জন্য সাধারণ প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধ সেবন করা উচিত। এছাড়া চুলকানির জন্য অ্যান্টিহিস্টামিন জাতীয় ওষুধ ব্যবহার করতে হবে। এছাড়া অ্যান্টিভাইরাল যেমন অ্যাসাইক্লোভির ওষুধ ব্যবহার করা যেতে পারে।
-ডা. তানজিয়া নাহার তিনা
ত্বক, লেজার এন্ড এসথেটিক বিশেষজ্ঞ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ