ঢাকা, বৃহস্পতিবার 10 May 2018, ২৭ বৈশাখ ১৪২৫, ২৩ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

হ্যান্ডকাপ পরা অবস্থায় নেত্রকোনার কুখ্যাত চোর আসামী পালিয়েছে

নেত্রকোনা সংবাদদাতা : একাধিক মামলার আসামী  কুখ্যাত চোর ও মাদক ববসায়ী আলম নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে হ্যান্ডকাপ পরিহিত অবস্থায় কারারক্ষীর  চোখ ফাঁকি  দিয়ে হাসপাতাল থেকে পালিয়েছে।
মেহেদী হাসান আলম, পিতা- বাদল মিয়া,  নেত্রকোণা পৌরসভার সাতপাই রেলকোলনীর বাসিন্দা।  তার বিরুদ্ধে নেত্রকোণা মডেল থানাসহ অন্যানন্য থানায় চুরি ও মাদকের একাধিক মামলা রয়েছে। গত  ২মে নেত্রকোণা সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ বোরহান উদ্দিনের নেতৃত্বে আলমকে গ্রেফতার করে। আলম গ্রেফতার হওয়ার পর ব্যাপক সাড়া পড়ে মিডিয়ায়। তাকে রিমান্ড শেষে  ৪মে কোর্ট থেকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়। জেল সুপারেন্টেন্ড আব্দুল কদ্দুছ জানান মলদ্বারের সমস্যা জনিত কারণে বাইপাস চিকিৎসার জন্য নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে আনা হলে কর্তব্যরত ডাক্তারের পরামর্শে আলমকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তর করার হয়। কারারক্ষীগণ কাগজ পত্রাদি সংগ্রহে ব্যস্থ থাকায়  আলম সকলের চোখ ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে যায়।
জেল সুপারেন্টেন্ড বাদী হয়ে পুলিশ সুপারের নিকট আলমের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন। অপরদিকে কারারক্ষী সাইফুল ইসলাম ও জয়নাল আবেদীন কে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।
আলম হাসপাতাল থেকে কারারক্ষীর চোখ ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে যাওয়ায় নানা জনের নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। আসলে বিষয়টি কি হলো?

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ