ঢাকা, বৃহস্পতিবার 10 May 2018, ২৭ বৈশাখ ১৪২৫, ২৩ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

ঢাকা মেডিকেলে রোগীকে অজ্ঞান করা নিয়ে চিকিৎসকদের হাতাহাতি ॥ তোলপাড়

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগের অপারেশন থিয়েটারে (ওটি) রোগীর সামনেই হাতাহাতিতে জড়িয়েছেন দুই চিকিৎসক। এ সময় সার্জারি ইউনিটের সব ওটি কিছুক্ষণের বন্ধ করে দেওয়া হয়। পরে হাসপাতালের পরিচালক ও অধ্যক্ষের হস্তক্ষেপে ঘটনার মীমাংসা হয়। গতকাল বুধবার  দুপুরে এই ঘটনায় হাসপাতালজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়।
ঢামেক সূত্র জানায়, খাদ্যনালীতে সমস্যাগ্রস্ত এক নারীকে অস্ত্রোপচারের জন্য সার্জারি ইউনিট-৩ এর চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে জরুরি বিভাগের ২ নং ওটিতে নেওয়া হয়। অপারেশনের আগে ওই নারীকে সাময়িকভাবে অচেতনের জন্য অ্যানেসথেসিয়া দেওয়াকে কেন্দ্র করে সার্জারির চিকিৎসক ডা. শওকতের সঙ্গে অ্যানেসথেসিয়া চিকিৎসক ডা. ইব্রাহীমের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায় বেডে শুইয়ে রাখা রোগীর সামনেই হাতাহাতিতে জড়ান ডা. ইব্রাহীম ও ডা. শওকত।খবর পেয়ে দ্রুত সেখানে ছুটে যান ঢামেক পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম নাসির উদ্দিনসহ সিনিয়র চিকিৎসকরা। এরপর কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক খান মো. আবুল কালাম আজাদের সঙ্গে জরুরি বৈঠকে বসেন চিকিৎসকরা। এ সময় সার্জারি ইউনিটের সব ওটিই সাময়িকভাবে বন্ধ ছিল। চালু ছিল শুধুমাত্র ইমার্জেন্সি ওটি। পরে ঢামেক পরিচালক, অধ্যক্ষসহ সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপে বিষয়টির সুরাহা হলে চিকিৎসকরা নিজের কাজে ফিরে যান।
ঢামেক অধ্যক্ষ খান মো. আবুল কালাম আজাদ জানান, রোগীকে অ্যানেসথেসিয়া দেওয়াকে কেন্দ্র করে ওটিতে ডা. শওকত ও ডা. ইব্রাহীমের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায় তাদের মধ্যে মৃদু হাতাহাতিও হয়। পরে ঢামেক পরিচালকসহ আমরা একসঙ্গে বসে বিষয়টি মীমাংসা করে দিয়েছি। সবাই কাজে ফিরে গেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ