ঢাকা, শনিবার 12 May 2018, ২৯ বৈশাখ ১৪২৫, ২৫ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

গাজীপুর সিটি নির্বাচনী মাঠ ফের সরগরম

টঙ্গী সংবাদদাতা : গাজীপুর সিটি নির্বাচন হাইকোর্টে স্থগিত হওয়ার পর বিএনপি ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা নির্বাচনী মাঠ ছেড়ে দিয়েছিলেন। চারদিন পর ফের সরগরম হয়ে উঠেছে নির্বাচনের মাঠ। মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলদের কর্মী-সমর্থকরাও হাত-পা গুটিয়ে নির্বাচনী প্রচার কার্যক্রম থেকে সরে পড়েন।
কাউন্সিলর প্রার্থীরা জানান, নির্বাচন করার জন্য যে বাজেট নিয়েছিলেন, সেই বাজেটের প্রায় খরচ হয়ে গেছে। নির্বাচন স্থগিতের ঘোষণায় তাদের মাথায় যেন আকাশ ভেঙে পড়ে। পরে মেয়র প্রার্থীরা উচ্চ আদালতে হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে আইনি লড়াইয়ে গেলে প্রার্থী ও সাধারণ ভোটারদের দৃষ্টি ছিল সুপ্রিম কোর্টের দিকে। অবশেষে গত বৃহস্পতিবার দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট ২৮ জুনের মধ্যে ভোটগ্রহণের নির্দেশ দিলে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের মাঝে স্বস্তি ফিরে আসে।
তারা আরো জানান, নির্বাচন কমিশন এখন নতুন করে তারিখ দিলে আবার নির্বাচনী বাজেট জোগার করতে অনেক কষ্ট হবে। এখন কী করবেন বুঝে উঠতে পারছেন না। তবে সব প্রার্থীই নির্বাচনী মাঠে থেকে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন।
গাজীপুর সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা রকিব উদ্দিন মন্ডল জানান, আগামীকাল রোববার গাজীপুর সিটি নির্বাচনের নতুন তারিখ নির্ধারণ করা হবে। ওই দিন বিকেল তিনটায় এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের সভা অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনের জন্য নতুন করে তফসিলের প্রয়োজন হবে না। কেবলমাত্র ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করা হবে।
দুই মেয়র প্রার্থীর নির্বাচনী প্রস্তুতি শুরু
গতকাল শুক্রবার সকালে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব হাসান উদ্দিন সরকারের টঙ্গীর বাসভবনে দলীয় নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সাথে হাইকোর্টের নির্দেশমতো ২৮ তারিখের মধ্যে ঘোষিত তারিখে গাজীপুর সিটি নির্বাচন অনুষ্ঠানের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন এবং হাইকোর্টের আইনী লড়াইয়ে তিনি বিজয়ী হয়েছেন। এ সময় মেয়র নির্বাচনে তিনি ধানের শীষ প্রতীকে ভোটের লড়াইয়েও বিজয়ী হবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন-নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরীর জন্য নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানান। পরে তিনি স্থানীয় টঙ্গীর দেওড়া এলাকায় আহসান উল্লাহ সরকার মাদরাসা মসজিদ কমপ্লেক্সে জুম্মার নামাজ আদায় করেন এবং মুসল্লীদের সাথে কুশলাদী  বিনিময় করেন।
এদিকে গতকাল সকাল থেকেই আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের ছয়দানা এলাকার নিজ বাসভবনে নেতাকর্মীরা আসতে শুরু করেন। এসময় জাহাঙ্গীর আলম নেতাকর্মীদের সাথে হাইকোর্টের নির্দেশমতো ঘোষিত সময়ে নির্বাচন নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে নৌকার বিজয়কে সুনিশ্চিত করতে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান এবং হাই কোর্টের রায়কে স্বাগত জানিয়ে নির্ধারিত সময়ে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সু-সম্পন্ন করতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানান। পরে তিনি গাজীপুর সিটির টঙ্গী সরকারি কলেজ জামে মসজিদে জুম্মার নামাজ আদায় শেষে মুসল্লীদের সাথে কুশল বিনিময় করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ