ঢাকা, রোববার 13 May 2018, ৩০ বৈশাখ ১৪২৫, ২৬ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চারদিন ধরে যানজটে অচল ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক

চট্টগ্রাম ব্যুরো ও মিরসরাই সংবাদদাতা : বিরক্তি, অস্বস্তি, আতংক ও চরম দুর্ভোগের অপর নাম ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক। গত চার দিনের ভয়াবহ যানজটে দিশেহারা এই সড়ক দিয়ে যাতায়াতকারী হাজার হাজার চালক ও যাত্রী। ঘন্টার পর ঘন্টা সড়কে অচল হয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছে হাজার হাজার গাড়ি।ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর ফতেহপুর রেল ক্রসিংয়ের ওভারপাস নির্মাণ কাজের কারণে সৃষ্ট যানজট পুরো ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কে ছড়িয়ে পড়েছে। গত বুধবার  রাত থেকে সৃষ্ট যানজট গতকাল শনিবার  বিকাল পর্যন্তও শেষ হয়নি। কুমিল্লা থেকে শুরু হয়ে চট্টগ্রামের সিটি গেইট পর্যন্ত ঠেকেছে এই যানযট। টানা চারদিনের যানযটে বিপর্যয় নেমে এসেছে পরিবহন সেক্টরে। মহসড়কে আটকে পড়া যাত্রীরা পার করছে অবানবিক জীবন। মহাসড়কে এলোপাথাড়ি গাড়ী চালনোয়  মিরসরাই সীতাকুণ্ডে অন্তত ৩ জনের প্রানহানী ঘটেছে। শনিবার  বিকাল ৪ টা পর্যন্ত যানযট কমার কোন লক্ষণ দেখা যায়নি। যানযট নিরসনে হাইওয়ে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন  ভোগান্তির শিকার যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকরা।
ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনী ফতেপুর এলাকায় চার লেন প্রকল্পের আওতায় রেল ক্রসিংয়ে ওভারপাস নির্মিত হওয়ায় ওই এলাকায় কয়েকমাস ধরে যানযট লেগে থাকে। আশপাশের বিকল্প সড়কগুলো দিয়ে যানবাহন চলাচল করায় যানজটের মাত্রা এতোটা প্রকট আকার ধারণ করেনি। হঠাৎ করে গত চার দিন ধরে যানযটের মাত্রা বিগত যে কেন রেকর্ডকে ছাড়িয়ে যায়। মহাসড়ক ছাড়িয়ে বিকল্প সড়ক এমনকি গ্রামীণ সড়কগুলোতেও এর প্রভাব পড়ে। শুক্রবার সকাল ১০টায় একটি বাস যোগে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দ্যেশ্যে রওয়ানা দেন জাহাজের মাষ্টার শামসুদ্দিন। ৫ ঘন্টায় চট্টগ্রাম পৌছানোর কথা। ওইদিন দুপুর ২টায় কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম এসে গাড়ি আর চলেনা। দেখতে দেখতে শুক্রবার দিন ও রাত ওই স্থানে কেটে যায় তার। পরে শনিবার সকালে ওই গাড়ি থেকে নেমে সিএনজি অটোরিক্সা ও ছোট ছোট গাড়ি করে দুপুর ১২ টায় চট্টগ্রাম এসে পৌঁছান তিনি। এই চিত্র শুধু শামসুদ্দিনের নয় হাজার হাজার যাত্রীর।
 বুধবার রাত থেকে যানযট এর মাত্রা শুরু হলেও এর ব্যাপকতা বাড়তে থাকে বৃহষ্পতিবার বিকেল থেকে। সাপ্তাহিক ছুটিতে ঘরমুখো মানুষের চাপ, উল্টো পথ দিয়ে গাড়ী চালানো, হাইওয়ে পুলিশের গাফেলতি সবমিলিয়ে স্মরণকালের এক নজির বিহীন বিপর্যয় নেমে আসে এই যানযটকে ঘিরে।
গত বৃহষ্পতিবার (১০ এপ্রিল) ঢাকা থেকে অফিস শেষ করে রাত ১০ টায় সায়দাবাদ থেকে চট্টগ্রামের অভিমুখে যাত্রা করেন রাশেদুল হাসান নামের এক যাত্রী। দীর্ঘ যানযট পেরিয়ে চট্টগ্রামের একে খান পর্যন্ত আসতে তার সময় লেগেছে ২৩ ঘন্টা।
যানযটে আটকে পড়া যাত্রীদের পথে পথে পোহাতে হয়েছে ভোগান্তি। বিশেষ করে নারী, শিশু, বয়োজোষ্ঠদের বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে। আশপাশের যাত্রীরা বাস থেকে নেমে ১০-১৫ মাইল পায়ে হেটে গন্তব্যে পৌছতে দেখা গেছে। দুরপাল্লার যাত্রীরা পেয়েছেন সীমাহীন  ভোগান্তি। টানা দুইদিন তারা পার করেছেন গাড়ীতে বসে। মহাসড়কের পাশ্ববর্তী হোটেলগুলোতে খাবার সংকট দেখা দেওয়ায় অভুক্ত থেকেছেন অনেকেই।
এদিকে তীব্র যানযটের কারণে  বেপরোয়া গাড়ী চালানোর কারণে মিরসরাইয়ে দুই জন এবং সীতাকু-ে ১ জন নিহত হয়েছে। গতকাল শনিবার  সকাল ৭ টায় সীতকু-ের বাড়ককু- এলাকায় উল্টো পথ দিয়ে আসা একটি লরির ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই অজ্ঞাত ব্যক্তি নিহত হয়েছে। কুমিরা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সার্জেন্ট মাসুদ অজ্ঞাত পথচারীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
শুক্রবার  সন্ধ্যায় মিরসরাইয়ে মিঠাছরা বাজারের দক্ষিণ পাশ্বে উল্টো পথে আসা একটি বাসের ধাক্কায় সাইফুল ইসলাম মিসু নামে এক যুবক ঘটনাস্থলে নিহত হয়। বৃহষ্পতিবার  মিঠাছরা বাজারে অজ্ঞাত এক ভিক্ষুক জানযটের কারনে দ্রুতগতিতে আসা একটি ট্রাকের ধাক্কায় নিহত হয়।
এদিকে শনিবার  থেকে শুরু হয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ¯œাতক ১ম বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা। যানযটের কারণে পরীক্ষার্থীরা সকাল থেকেই হল অভিমুখে বের হয়ে পড়ে। সীতাকু- কলেজের শিক্ষার্থীরা  মিরসরাই কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষা দিচ্ছে। দুপুর ২ টায় পরীক্ষা শুরু হলেও সকাল ৮ টার আগেই অনেককে বাসা থেকে বের হতে হয়েছে।
মিরসরাই কলেজের অধ্যক্ষ নুরুল আবছার বলেন, যানযটের কারণে শিক্ষার্থীরা যাতে সঠিক সময়ে কেন্দ্রে পৌঁছাতে পারে সেজন্য সংশ্লিষ্ট কলেজের শিক্ষকদের মাধ্যমে আগাম তথ্য দেওয়া হয়েছিলো। সর্বশেষ নির্ধারিত সময়ের ৩৭ মিনিট পর ৩ জন শিক্ষার্থী মিরসরাই কলেজ কেন্দ্রে প্রবেশ করে।
সীতাকু-, মিরসরাই এবং ফেনীর হাইওয়ে পুলিশ বলছে রাস্তায় উল্টোপথে গাড়ী চালনোর কারণে যানযট তীব্র হচ্ছে। অপরদিকে বাস ও ট্রাক চালকেদের অভিযোগ হাইওয়ে পুলিশের সদস্যরা যানযট কমাতে মনোযোগ না দিয়ে তারা চাঁদাবাজিতে ব্যস্ত।
ঢাকাগামী মালবাহী ট্রাকের চালক রমিজ উদ্দিন বলেন, হাইওয়ে পুলিশ সব সময় রাস্তায় গাড়ী থামিয়ে চাঁদাবাজী করে। এই দুর্যোগের সময়ও তারা সঠিক দায়িত্ব পালন না করে পকেট ভারী কারার কাজে ব্যস্ত।
এই বিষয়ে জোরারগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্য সোহেল সরকার বলেন, বাস ট্রাক চালকরাতো বলবেই হাইওয়ে পুলিশ চাঁদাবাজী করে। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, দিনরাত ডিউটি করার পর এমন অভিযোগ করলে কেমন লাগে?
সীতাকুন্ডে ট্রেনে কাটা পড়ে যুবকের মৃত্যু :
চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে ট্রেনে কাটা পড়ে মো.মামুন (২৫) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকাল সাড়ে ৫টায় উপজেলার বাড়বকুলের প্রগতি ইন্ডাষ্ট্রিজ লিঃ সংলগ্ন রেললাইনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। সে চাঁদপুর জেলার কচুয়া থানার মেগড্রাইড এলাকার মনির হোসেনের পুত্র এবং স্থানীয় জে,কে স্টিল মিলসের ইলেকটিক টেকনেশিয়ান।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়,চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ঢাকামুখী ট্রেন বাড়বকু-স্থ প্রগতি ইন্ডাষ্ট্রিজ সংলগ্ন রেললাইন এলাকা অতিক্রমকালে অসাবধানতাবশত ট্রেনের নিচে কাটা পড়েন মামুন। এতে ট্রেন কাটায় তার শরীর টুকরো টুকরো হয়ে রেললাইনের চারপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে। দুর্ঘটনার পর ঘটনাস্থল থেকে নিহত যুবকের লাশটি উদ্ধার করেন সীতাকু- জিআরপি ফাঁড়ির এএসআই দেলোয়ার হোসেন।
এএসআই দেলোয়ার হোসেন জানান,নিহত যুবকের লাশটি ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য চমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে রেললাইনে বসে মুঠোফোনে কথা বলার সময় ঢাকামুখি ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে তার মৃত্যু হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ