ঢাকা, রোববার 13 May 2018, ৩০ বৈশাখ ১৪২৫, ২৬ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

জবাবদিহির অনুভূতি নিয়ে ময়দানে দায়িত্ব পালন করতে হবে -শিবির সভাপতি

গতকাল শনিবার ছাত্রশিবির খুলনা অঞ্চলের সদস্য শিক্ষা শিবিরে প্রধান অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেছেন, ইসলামী আন্দোলনের কাজ আল্লাহর। এই কাজের জন্য আল্লাহ আমাদেরকে পৃথিবীতে প্রতিনিধি হিসেবে পাঠিয়েছেন। এটি আমাদের ওপর বিরাট আমানত। তাই এই দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে আল্লাহ’র কাছে জবাবদিহির অনুভূতি নিয়ে ময়দানে ভূমিকা পালন করতে হবে।
গতকাল শনিবার ছাত্রশিবির খুলনা অঞ্চলের সদস্য শিক্ষা শিবিরে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। কেন্দ্রীয় স্কুল সম্পাদক রাজিবুর রহমান পলাশের পরিচালনায় ও সাতক্ষীরা শহর সভাপতি ইমরান হোসাইনের ব্যবস্থাপনায় শিক্ষা শিবিরে উপস্থিত ছিলেন, বাগেরহাট জেলা সভাপতি শেখ ইমরান হোসেন, সাতক্ষীরা জেলা সভাপতি সেলিম রেজা, খুলনা জেলা দক্ষিণ সভাপতি জি এম মোনায়েম হাসান, খুলনা জেলা উত্তরের সভাপতি মনিরুল ইসলামসহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।
শিবির সভাপতি বলেন, বাংলাদেশের ছাত্রসমাজ কাঙ্খিত নেতৃত্বের প্রত্যাশায় ইসলামী ছাত্রশিবিরের দিকে তাকিয়ে আছে। তাই ছাত্রশিবিরকে আল্লাহভীতি অর্জনের মাধ্যমে আল্লাহর সাথে সম্পর্ক বৃদ্ধি করে ছাত্রসমাজের প্রত্যাশা পূরণে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। ইসলামী আন্দোলন নিছক একটি আন্দোলন নয়, এই আন্দোলনের দায়িত্বশীলদের কাজের প্রতিদান আল্লাহ তায়ালা কতৃক নির্ধারিত, এই আন্দোলনে প্রত্যেকেই দায়িত্বশীল, আর দায়িত্বের ব্যাপারে প্রত্যেককেই জিজ্ঞাসা করা হবে। যার যে কাজ, সর্বোচ্চ পেরেশানি নিয়ে সে কাজ করা এবং সর্বপর্যায়ে গতিশীলতা নিয়ে আসার চেষ্টা করা প্রয়োজন। আমাদের ওপর অর্পিত দীনি আন্দোলনের এই বিশাল আমানতের খেয়ানত যেন না হয় সে ব্যাপারে সচেতন থাকতে হবে, সব সময় মনে রাখতে হবে, দায়িত্ব পালনে অবহেলার কারণে কাল কিয়ামতে যেন কাঠগড়ায় দাঁড়াতে না হয় সে জন্য সবসময় মহান আল্লাহর কাছে পানাহ চাইতে হবে। এ জন্য দায়িত্বশীলদের জবাবদিহিতার মানসিকতা নিয়ে কাজ করতে হবে।
তিনি আরও বলেন, ইসলামী আন্দোলনের বিজয় আল্লাহর হাতে। দায়িত্বশীলদের ভূমিকার ওপর আন্দোলন শক্তিশালী ও দুর্বল হয়। দায়িত্ব আল্লাহর পক্ষ থেকেই আসে। এই দায়িত্ব আল্লাহর পক্ষ থেকে আমানত। যথাযথ জবাবদিহিতার মনোভাব নিয়ে দায়িত্ব পালন করতে পারলে দুনিয়ায় শান্তি, আখিরাতে মুক্তি পাওয়া যাবে। ইসলামের প্রতিটি বাণী সকল মানুষের নিকট পৌঁছে দেয়ার দায়িত্ব প্রতিটি কর্মীর। ইসলামী আন্দোলনের সফলতার পাশাপাশি ব্যক্তির সফলতাকেও আরো বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। প্রেসবিজ্ঞপ্তি। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ