ঢাকা, রোববার 13 May 2018, ৩০ বৈশাখ ১৪২৫, ২৬ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

বরগুনার আমতলী-তালতলীতে ঝড়ে ব্যাপক ক্ষতি

আমতলী (বরগুনা) সংবাদদাতা : শুক্রবার রাতের বৈশাখী ঝড়ে আমতলী ও তালতলী উপজেলার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ অর্ধশতাধিক ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উপড়ে গেছে হাজারো গাছপালা, মাটিতে হেলে পড়েছে পাকা বোরো ধানের ক্ষেত।
জানা গেছে, শুক্রবার সন্ধ্যা ৭ টায় কালবৈশাখী ঝড় ও প্রচুর বৃষ্টি শুরু হয়ে রাত সাড়ে নয়টায় শেষ হয়। আড়াই ঘন্টাব্যাপী কালবৈশাখী ঝড়ে আমতলী ও তালতলী উপজেলার অর্ধশতাধিক আধা কাচা ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। হাজারো গাছপালা উপড়ে এবং পাকা বোরো ধানের ক্ষেত হেলে পড়েছে। ঝড় শুরু হওয়ার সাথে সাথে বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ হয়ে যায়। ৫ ঘন্টা অন্ধকারে থাকে আমতলী ও তালতলীবাসী। রাত সাড়ে ১১ টায় বিদ্যুত  সরবরাহ সচল হয়।
আমতলীর কুকুয়া জৈনপুর খানকা কমপ্লেক্সে  মাদরাসা বিধ্বস্ত ও দক্ষিণ কাঠালিয়া তাজেম আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের একটি ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তালতলী উপজেলার পশ্চিম তেতুঁলবাড়ীয়া গ্রামের মো. নজরুল হাওলাদারের মুরগীর ফার্ম, আনোয়ার মল্লিকের বসতঘর বিধস্ত, বাহাদুর হোসেনের মাছের আড়ৎ ঘর, সোবাহান হাওলাদারের বসতঘর, আলমগীর হাওলাদারের মাছের ঘেরের ঘর ও সেলিম মিয়ার দোকান ঘরের চালা উড়ে গেছে।
তালতলী উপজেলার নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য আলমগীর হাওলাদার জানান, পশ্চিম তেতুঁলবাড়িয়া গ্রামের ৭টি ঘর কাল বৈশাখী ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
দক্ষিণ কাঠালিয়া তাজেম আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ আবু ছালেহ জানান, বিদ্যালয়ের একটি টিন সেট ঘরের চালা কালবৈশাখী ঝড়ে উপড়ে পড়েছে।
কুকুয়া ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য সাইদুল ইসলাম সোহাগ বলেন, জৈনপুরী খানকা কমপ্লেক্সের  মাদরাসা ঘর ঝড়ে সম্পূর্ণ বিধ্বস্থ হয়েছে।
দক্ষিণ সোনাখালী গ্রামের সোহেল রানা বলেন, ঝড়ে গাছপালা উপড়ে এবং পাকা বোরো ধানের ক্ষেত নেতিয়ে পড়েছে।
আমতলী কৃষি অফিসার এসএম বদরুল আলম বলেন, ঝড়ে পাকা বোরো ধানের হেলে পরলেও তেমন ক্ষতি হবে না।
ইট দিয়ে মাথা থেতলে দিল যুবকের
আমতলী (বরগুনা) সংবাদদাতা : আমতলীর মানিকঝুরি গ্রামে মাদক বিক্রিতে বাধা দেওয়ায় শনিবার দুপুরে মাহবুব হোসেন রাসেল প্যাদা (৩২) নামে এক যুবককে ইট দিয়ে মাথা থেতলে দিয়েছে মাদক বিক্রেতা আল- আমিন ও তার লোকজন। রাসেলকে উদ্ধার করে আমতলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আলামিন মানিকঝুরি এলাকায় একজন চিহ্নিত মাদক বিক্রেতা। প্রকাশ্যে সে মাদক বিক্রি করে।  রাসেল এ ঘটনার প্রতিবাদ করে। এতে আলামিন ক্ষিপ্ত হয়ে তার অনুগত লোকজন নিয়ে শনিবার দুপুরে সে রাসেলের উপর হামলা চালায় এবং ইট দিয়ে মাথা থেতলে দেয়। এসময় রাসেলের ডাক চিৎকার শুনে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে আমতলী হাসপাতালে ভর্তি করে। আমতলী থানার পুলিশ পরিদর্শক ওসি তদন্ত মো: নুরুল ইসলাম বাদল বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে এঘটনায় এখনো কেউ এখনো মামলা করেনি। মামলা হলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনী ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।
মাকে পিটিয়ে আহত
আমতলীর মধ্য চন্দ্রা গ্রামে জমির জন্য আকলিমা বেগম নামে এক মাকে পিটিয়ে আহত করেছে সৎ দুই ছেলে  সোবাহান হাওলার ও মোশাররফ হাওলাদার। আহত  আকলিমা বেগমকে  উদ্ধার করে শুক্রবার সন্ধ্যায় আমতলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
জানা গেছে, উপজেলার মধ্য চন্দ্রা গ্রামের মমিন উদ্দিন হাওলাদারের মৃত্যুর পূর্বে দ্বিতীয় স্ত্রী আকলিমা বেগমকে ৪৫ শতাংশ জমি দলিল মুলে দান করে দেয়। এ জমি প্রথম স্ত্রী আনোয়ারা বেগমের দুই ছেলে সোবাহান হাওলাদার ও মোশাররফ হাওলাদার সৎ মা আকলিমাকে বুঝিয়ে দেয়নি। শুক্রবার দুপুরে এ জমি বুঝে নেওয়ার জন্য ওই ছেলেদের কাছে যায় আকলিমা। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে দুই ছেলে ও তাদের স্ত্রী লাভলী বেগম ও সোনাবান বেগম আকলিমাকে বেধরক মারধর করে। এতে সে গুরুতর আহত হয়। খবর পেয়ে আকলিমার স্বজনরা  উদ্ধার করে তাকে আমতলী হাসপাতালে ভর্তি করে। সৎ ছেলেরা মাকে মারধরের কথা অস্বীকার করে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ