ঢাকা, রোববার 13 May 2018, ৩০ বৈশাখ ১৪২৫, ২৬ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কুষ্টিয়ায় ভুট্টার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা

কুষ্টিয়া সংবাদদাতা : কুষ্টিয়ায় চলতি মৌসুমে ভুট্টার বাম্পার ফলনের আশা করছেন কৃষকরা। অনুকূল আবহাওয়ার কারণে এ বছর জেলায় ভুট্টার ভালো ফলন হয়েছে। জেলায় এবার লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে কিছুটা কম আবাদ হলেও ভুট্টা চাষিরা ভালো লাভের স্বপ্ন দেখছেন। চলতি বছর কুষ্টিয়ায় ভুট্টা চাষের লক্ষ্যমাত্রা ছিল আট হাজার ৯২২ হেক্টর। তবে চাষ হয়েছে সাত হাজার ৭৮০ হেক্টর জমিতে।
জেলার কৃষকরা জানিয়েছেন, এ বছর ভুট্টার আবাদ আগে চেয়ে অনেক ভালো হয়েছে। এছাড়াও অন্যান্য ফসলের তুলনায় কম খরচে লাভ বেশি হওয়ায় ভুট্টা চাষে ঝুঁকছেন এ অঞ্চলের কৃষকরা। ভুট্টার জমিতে কম সেচের প্রয়োজন হয়। ফলে অন্য ফসল আবাদের চেয়ে ভুট্টার আবাদ বেশি লাভজনক। এছাড়াও ভুট্টা বাজারে বিক্রি করার পর এর গাছ ও মোচা বাড়িতে জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করা যায়।
মিরপুর উপজেলার ফুলবাড়িয়া গ্রামের ভুট্টা চাষি আবদুর রহিম জানান, আগে তামাক চাষ করলেও তাতে প্রচুর পরিশ্রম করতে হতো। যে কারণে তামাকের পরিবর্তে এখন সে জমিতে ভুট্টা চাষ করছেন তিনি। ভুট্টা চাষে তামাকের তুলনায় অনেক কম খরচ, দামও অনেক ভালো বলে তিনি জানান।
সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, ভুট্টা খাদ্যের পাশাপাশি আরও নানা কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। লাভজনক হওয়ার পাশাপাশি পরিশ্রমও তুলনামূলকভাবে কম। সাধারণত রবি মৌসুমে অক্টোবর-নভেম্বরের মধ্যে ভুট্টার বীজ বপন করা হয়। এক সারি থেকে অন্য সারির দূরত্ব হয় ৩০ ইঞ্চি, গাছ হতে গাছের দূরত্ব ১০ ইঞ্চি, বপনের গভীরতা এক ইঞ্চি এবং বপনের সময় প্রতি গর্তে একটি বীজ দিতে হয়। তবে উচ্চ ফলনশীল জাতের ক্ষেত্রে বীজের প্যাকেটের গায়ে লেখা নির্দেশিকা অনুসরণ করতে হয়।
ভুট্টা সংগ্রহের ক্ষেত্রে মোচার পাতা কিছুটা হলদে হলে সংগ্রহের উপযুক্ত হয় বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।
উপজেলার খুদ্দ আইলচারা গ্রামের ভুট্টা চাষি বশির উদ্দিন জানান, এ বছর তিনি দুই বিঘা জমিতে ভুট্টা চাষ করেছেন। ধান আবাদের চেয়ে ভুট্টার আবাদ কিছুটা লাভজনক হওয়ায় এ ফসল চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন তিনি। একই এলাকার সিরাজুল ইসলাম জানান, ভুট্টার চাষে বিঘা প্রতি প্রায় ৩৫ মণ পর্যন্ত উৎপাদন সম্ভব। এছাড়াও বর্তমানে বাজারে ভুট্টার চাহিদা রয়েছে। ভুট্টা মাছ, মুরগী ছাড়াও গবাদি পশুর খাবার হিসেবেও ব্যবহার হচ্ছে। ফলে এর চাহিদাও দিন দিন বাড়ছে।
কুষ্টিয়া সদর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মো. সেলিম হোসেন বলেন, চাষীরা ইতিমধ্যে ভুট্টা উত্তোলন শুরু করেছেন। চলতি মৌসুমে ভুট্টার উৎপাদন বেশ ভালো হয়েছে।
উত্তোলনের শেষ পর্যন্ত প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে এ বছর ভালো ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ