ঢাকা, সোমবার 14 May 2018, ৩১ বৈশাখ ১৪২৫, ২৭ শাবান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অনূর্ধ্ব-১৮ ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন আবাহনী

স্পোর্টস রিপোর্টার: অনূর্ধ্ব-১৮ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিতলো আবাহনী লিমিটেড। গতকাল রোববার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফাইনালে ধানমন্ডির ক্লাবটি ১-০ গোলে ফরাশগঞ্জকে হারিয়েছে। বিজয়ী দলের পক্ষে একমাত্র গোলটি করেন রিমন হোসেন।দুপুরে ভারী বৃষ্টি হওয়ায় মাঠ ছিল কর্দমাক্ত। কোন দলই সাচ্ছন্দে খেলতে পারেনি। 

তারপরও ম্যাচ জয়ী গোলটি নিয়ে রয়েছে বিতর্ক। ম্যাচের সাত মিনিটে করা রিমনের গোলের ঠিক আগ মুহূর্তে আবাহনীর অধিনায়ক রফিকুল ইসলাম সুমন ফরাশগঞ্জের গোলকিপার সাজিবুল ইসলামকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিলেও তা দৃষ্টিতে আনেননি রেফারি আনিসুর রহমান। ফলে ম্যাচে জয়ের নায়ক থাকেন রিমনই (১-০)। ফরাশগঞ্জের ফুটবলাররা গোল বাতিলের দাবী তুললেও তা আমলে নেননি রেফারি। এ সময় খেলা প্রায় পাঁচ মিনিট বন্ধ ছিল। শিরোপার লড়াইয়ে হারলেও দারুন খেলেছে পুরান ঢাকার ক্লাবটি। গোল হজমের পর থেকেই যেনো জ¦লে উঠে আবু ফয়সাল আহমেদের শিষ্যরা। ৩১ মিনিটেই ম্যাচেই ম্যাচে সমতা ফেরানোর দারুন একটি সুযোগ হাতছাড়া করে দলটি। জটলার মধ্যে বল পেয়েও ফরাশগঞ্জের ফরোয়ার্ডরা তা কাজে লাগাতে পারেননি। গোল লাইনের ঠিক সামনে থেকে ফিরে আসতে হয়েছে তাদের। দশ মিনিট পর আবারো আবাহনীর ভিত কাঁপিয়ে দেয় ফরাশগঞ্জ। 

এবার জয় চন্দ্র বর্মনের কোনাকুনি শট আবাহনীর এক ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে বাইরে চলে যায়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর গোল শোধ করা হয়ে ওঠেনি ফরাশগঞ্জের। তাই ম্যাচ শেষে দলটির কোচ আবু ফয়সাল অভিযোগ করে বলেন, রেফারীর নিরপেক্ষ আচরন ছিলনা। তাছাড়া আবাহনী দ্বিতীয় বিভাগের গোলকিপার আরিফুল ইসলামকে ম্যাচে খেলিয়েছে। যা এই  টুর্নামেন্টের বাইলজ বিরোধী।ফুটবলার জয়চন্দ্র বর্মন ক্ষোভের সুরে বললেন, ‘রেফারিসহ ১৪ জন নিয়ে খেলেছে আবাহনী। পুরোটা সময় রেফারি আমাদের বিরুদ্ধ বাঁশি বাজিয়েছেন।’ অপরদিকে আবাহনীর ফুটবল ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রুপু বললেন,প্রতিপক্ষের অভিযোগগুলো সত্য নয়। প্রত্যাশা অনুযায়ি খেলেই শিরোপা জিতেছে আবাহনী। এই টুর্নামেন্টের মাধ্যমে অনেক প্রতিভাবান ফুটবলার পাওয়া গেছে। এখন এসব ছেলেদের পরিচর্যা করতে হবে। তাহলেই আগামীর তারকা এখান থেকেই উঠে আসবে। তাছাড়া প্রত্যেক বছর অনূর্ধ্ব-১৮ লীগ হওয়া উচিত বলেও মানে করেন সাবেক এই ফুটবলার।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ