ঢাকা, শুক্রবার 18 May 2018, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ১ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রমজানের শুরুতেই সাতক্ষীরায় নিত্যপণ্যের দাম বাড়ছে

আবু সাইদ বিশ্বাস, (সাতক্ষীরা): রমজানের শুরুতেই সাতক্ষীরায় কাঁচা বাজার ও ইফতার সামগ্রীর দাম বেড়েছে। নির্ধারিত মূল্যে বাজারে মিলছে না কোনো পণ্য। জেলা সদর থেকে শুরু করে উপজেলা পর্যায়ের সুযোগ সন্ধানী ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেটের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ। বাজার মনিটরিংয়ের কোন ব্যবস্থা না থাকায় প্রতিদিন হু-হু করে বাড়ছে নিত্যপণ্যের দাম। ফলে খেটে খাওয়া নিন্ম মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত মানুষ পড়েছে চরম বিপাকে। রমজানের শুরু থেকেই পেঁয়াজ, রসুন, তেল, চাল-ডাল, বেসন, চিনিসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম সাধারণ ক্রেতার ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে দিন দিন। সিন্ডিকেট করে কৃত্তিম সংকট তৈরি করে দাম বাড়ানো হচ্ছে এ সকল পণ্যের বলে অভিযোগ উঠেছে। ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা ওই সকল পণ্য বেশি দামে ক্রয় করে বাজারজাত করতে বাধ্য হচ্ছে। এর প্রভাব পড়ছে সাধারণ ক্রেতাদের মাঝে। এসব দেখভালের দায়িত্ব যাদের উপর ন্যস্ত-তারা রয়েছেন নীরব দর্শকের সারিতে। মনিটরিং না থাকায় বেপরোয়া হয়ে উঠছে এই সিন্ডিকেট। আমদানি নেই, বৃষ্টির কারণে মাল আসতে পারছে না, উৎপাদন নেই এমন নানা অজুহাতে পণ্যের দাম বৃদ্ধি করা হচ্ছে।

জেলার বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বর্তমানে চিনি বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৬৫ টাকা কেজি দরে। অথচ এক সপ্তাহ আগে বিক্রি হয়েছে ৫০- ৫৫ টাকায়, দুই সপ্তাহ আগের চিনির দাম ছিল ৫০ টাকা। এক সপ্তাহের ব্যবধানে  কেজি প্রতি  ছোলার দাম বেড়েছে ৫ থেকে ১০ টাকা, মোটা চালের কেজি বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ৩৭ টাকায় এক সপ্তাহ আগে যা বিক্রি হয়েছে ৩২ টাকা, সরিষার তেলের দাম বেড়েছে কেজিতে ৫ টাকা, এক সপ্তাহ আগে ছিল ১০০ টাকা। মসলার মধ্যে ইলাচের দাম কেজিতে বেড়েছে ৩শ টাকা। সাতক্ষীরা বড় বাজারের মুদি দোকানদার উত্তম স্টোরের মালিক শিবপদ সাধু জানান,এক সপ্তাহ আগে ইলাচের কেজি ছিল ১২শ টাকা বর্তমানে তা বিক্রি হচ্ছে ১৫শ টাকায়,দারুচিনি কেজিতে বেড়েছে একশ টাকা,আদা কেজিতে বেড়েছে ৩০ টাকা। জিরাতে বেড়েছে কেজিতে একশ টাকা। পাইকারী ব্যবসায়ীরা দাম বাড়ানোর কারণে খুচরা বাজারে দাম বেড়েছে বলে জানান এ ব্যবসায়ী। পাইকারী ব্যবসায়ীরা জানান,সরবরাহ কমে যাওয়াতে দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ