ঢাকা, শুক্রবার 18 May 2018, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ১ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অচিরেই আরও ছয়টি বর্ডার হাট চালু হবে

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা: দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য বৃদ্ধি ও সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখতে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে আরো ছয়টি বর্ডার হাট চালু হচ্ছে। এসব বর্ডার হাট চালুর কার্যক্রম চলছে। এছাড়া চালু থাকা বর্ডার হাটগুলোতে বাংলাদেশি পণ্য বিক্রি বাড়ানোর বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

গত সোমবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে বর্ডার হাট বিষয়ক অনুষ্ঠিত দিনভর কর্মশালায় এই তথ্য জানানো হয়।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের (এফটিএ) অতিরিক্ত সচিব মোঃ শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন মন্ত্রণালয়ের সচিব শুভাশীষ বসু। 

বিশেষ অতিথি ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান, পুলিশ সুপার মোঃ আনোয়ার হোসেন খান প্রমুখ।

কর্মশালায় জানানো হয়, মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার কুরমাঘাট, জুড়ি উপজেলার পশ্চিম বিটুলি, সিলেটের কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার ভোলাগঞ্জ, সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার সায়দাবাদ, দুয়ারা বাজারের বাগানবাড়ি ও ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলার ভূঁইয়া পাড়ায় বর্ডার হাট চালুর কার্যক্রম চলছে। বর্তমানে কুড়িগ্রাম জেলার রাজিবপুর উপজেলার বালিয়ামারি, সুনামগঞ্জের ডলুরা, ফেণীর ছাগলনাইয়া ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় তারাপুরে বর্ডার হাট চালু আছে।  

কর্মশালায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা সীমান্ত হাট ছাড়াও ময়মনসিংহ, সিলেট, সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার, কুড়িগ্রাম, ফেণী সীমান্ত হাট ব্যবস্থাপনা কমিটির সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন। 

এসবের মধ্যে চালু থাকা বর্ডার হাটের সদস্যরা হাট বিষয়ে বিভিন্ন প্রস্তাবনা তুলে ধরেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ও বৈঠকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব শুভাশীষ বসু জানান, দুই দেশের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক বজার রাখতে বর্ডার হাটের গুরুত্ব রয়েছে। এতে বাণিজ্যেরও উন্নতি হবে। তবে বর্ডার হাটের নিয়ম নীতি মেনে চলতে হবে।  

এখানে উল্লেখ্য, বর্ডার হাটের মাধ্যমে এক দেশের পণ্য অন্য দেশের ক্রেতারা বিনা শুল্কে ক্রয়ের সুযোগ পান। এসব বর্ডার হাটে স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত তরকারি, ফলমূল, খাদ্যসামগ্রী, মসলা, বাঁশ, বেত, গামছা, লুঙ্গি, শাড়ি, দা, কুঠার, প্রসাধন সামগ্রী, তৈরি পোশাক, মেলামাইন পণ্য, প্লাস্টিক পণ্য ইত্যাদি বিক্রির অনুমোদন রয়েছে। বর্ডার হাট এলাকার পাঁচ কিলোমিটার ব্যাসার্ধের বসবাসকারি অধিবাসিরা এখানে পণ্য ক্রয়-বিক্রয় করতে পারবেন।

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ