ঢাকা, শুক্রবার 18 May 2018, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ১ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

দুই বাসের বেপরোয়া প্রতিযোগিতায় প্রাণ গেল ঢাকা ট্রিবিউন কর্মকর্তার

 

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে যাচ্ছিলেন নাজিম উদ্দিন। ৩২ বছরের তরতাজা প্রাণ। গন্তব্য গুলিস্তান। মেয়র হানিফ উড়ালসড়কে উঠতেই তিনি পড়ে গেলেন দুই বাসের প্রতিযোগিতার মুখে। মঞ্জিল ও শ্রাবণ সুপার পরিবহনের দুটি বাস মরিয়া ,কে কার আগে যাবে। শ্রাবণ সুপার পরিবহনের বাসটি নাজিমের মোটরসাইকেলটিকে দিল পেছন থেকে ধাক্কা। ছিটকে সেতুর সড়কে পড়ে গেলেন তিনি। নিমেষে বাসটি চলে গেল তাঁর বুকের ওপর দিয়ে। 

 মেয়র হানিফ উড়ালসড়কে গতকাল বৃহস্পতিবার এভাবেই জীবনাবসান ঘটে নাজিম উদ্দিনের। নগরের বাসে বাসে বিভীষিকাময় প্রতিযোগিতার আরেক বলি তিনি। যাত্রাবাড়ীর শনির আখড়া থেকে মোটর সাইকেলে করে গুলিস্তানের দিকে যাওয়ার পথে গতকাল সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তিনি দুর্ঘটনায় পড়েন।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী রাসেল মাহমুদ ও নাইম ইসলাম নামের দুই যুবক। তাঁরাও মোটরসাইকেলে করে গুলিস্তানের দিকে আসছিলেন। তাঁদের ভাষ্য, আহত নাজিমকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান রাসেল। সেখানে তাঁর মৃত্যু হয়।

নাজিম ঢাকা ট্রিবিউনের বিজ্ঞাপন বিভাগের জ্যেষ্ঠ নির্বাহী ছিলেন। ঢাকা ট্রিবিউনের সাংবাদিক রাব্বী রহমান  জানান, যাত্রাবাড়ীর শ্যামপুর এলাকায় নাজিমের বাসা। তিনি তিন দিন আগেই সন্তানের বাবা হয়েছেন। তাঁর স্ত্রী এখনো অসুস্থ।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী নাইম জানান, নাজিমকে শ্রাবণ সুপার পরিবহনের বাসটি চাপা দেওয়ার পর তিনি (নাইম) মোটরসাইকেল চালিয়ে গুলিস্তানের সার্জেন্ট আহাদ পুলিশ বক্সে যান। সেখানে দায়িত্বে থাকা উপপরিদর্শক (এসআই) মো. সোলায়মানকে ঘটনা জানান। এরপরই শ্রাবণ সুপার পরিবহনের চালক ওহিদুলকে আটক করেন এসআই সোলায়মান। পরে অপর বাস মঞ্জিল পরিবহনের চালকের সহকারী কামালকে আটক করা হয়।

পুলিশ জানায়, আটক ওহিদুল ও কামালকে যাত্রাবাড়ী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ছাড়া বাস দুটিও আটক করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী রাসেল বলেন, তাঁদের মোটরসাইকেলটি প্রতিযোগী বাস দুটির পেছনে ছিল। আর নাজিমের মোটরসাইকেলটি ছিল বাস দুটির সামনে। দুটি বাসই বেপরোয়াভাবে চলছিল। এর মধ্যে শ্রাবণ সুপার পরিবহনের বাসটি নাজিমের মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। নাজিম ছিটকে পড়লে তাঁর বুকের ওপর দিয়েই বাসটি চলে যায়। ঘটনার পর তিনি মোটরসাইকেল থেকে নেমে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে নাজিমকে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে যান। পথে তাঁর প্রাণ ছিল। কিন্তু ঢাকা মেডিকেলে আনার পর তিনি মারা যান।

নাইম বলেন, নাজিমকে চাপা দিয়ে চলে যাওয়া শ্রাবণ সুপার পরিবহনের বাসের চালক ওহিদুল আটক হওয়ার পরও স্বাভাবিক ছিলেন।

যাত্রাবাড়ী থানার ওসি আজিজুর রহমান বলেন, আটক ওহিদুল ও কামালকে থানায় রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

ঢাকা ট্রিবিউনের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ফজলে রাব্বি বলেন, ফ্লাইওভারে একটি বাসের ধাক্কায় পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হন মোটর সাইকেল আরোহী নাজিম উদ্দিন।প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে তিনি বলেন, জুরাইনের বাসা থেকে পান্থপথের অফিসে আসার পথে ফ্লাইওভারে দুই বাসের প্রতিযোগিতার মধ্যে পড়ে একটি বাসের ধাক্কায় ছিটকে পড়েন নাজিম। “তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর ডাক্তার মৃত বলে জানান।”নাজিমের ঘাড়ের পেছন দিক থেঁতলানো ছাড়া শরীরের কোথায় আর আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি বলে জানান রাব্বি।

ঢাকা মেডিকেলে ময়নাতদন্ত এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদে জানাযা শেষে নাজিমের মরদেহ তার কর্মস্থলে নেওয়া হবে বলে জানান ফজলে রাব্বী। পরে লাশ গ্রামের বাড়ী ভোলায় নিয়ে দাফন করা হবে। তিনদিন আগে নাজিমের দ্বিতীয় কন্যা সন্তানের জন্ম হয় জানিয়ে তিনি বলেন, তার প্রথম কন্যা সন্তানের বয়স আট বছর। নাজিমউদ্দিন প্রায় তিন বছর আগে ঢাকা ট্রিবিউনে যোগ দেন।

এদিকে,নিহত উদ্দিনের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

হাসপাতালে থাকা তার স্বজনরা জানিয়েছেন বিকাল সাড়ে ৪টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মসজিদে প্রথম নামাযে জানাযা শেষে তার লাশ ঢাকা ট্রিবিউন অফিসে নেওয়া হয়। সেখান থেকে রাজধানীর শ্যামপুরে তার শ্বশুর বাড়িতে দ্বিতীয় জানাযা শেষে ভোলায় তার গ্রামের বাড়িতে নেওয়া হবে।

এদিকে নাজিমের মৃত্যুর খবর শুনে ভোলা-৩ আসনের এমপি নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আসেন।

এছাড়া, উত্তরা সাত নম্বর সেক্টরের বিজিবি মার্কেটের সামনে জাকির (৩০) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। ধারণা করা হচ্ছে অজ্ঞাত কোনো গাড়ির ধাক্কায় তার মৃত্যু হয়েছে। গতকাল ভোরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

উত্তরা পশ্চিম থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) জিয়াউর রহমান জানান, ভোরে স্থানীয়দের খবর পেয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় জাকিরকে উদ্ধার করে টঙ্গী জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে দ্রুত তাকে ঢাকা মেডিকেলে কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ধারণা করা হচ্ছে অজ্ঞাত কোনো গাড়ির ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়েছিলেন তিনি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে বলেও জানান এএসআই জিয়াউর।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ