ঢাকা, শনিবার 19 May 2018, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

নাজিব রাজাকের ফ্ল্যাট থেকে বৈদেশিক মুদ্রা ও বিলাসপণ্য জব্দ

১৮ মে, রয়টার্স : মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের একটি আবাসিক কমপ্লেক্সে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক সংশ্লিষ্ট তিনটি অ্যাপার্টমেন্টে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা, গহনা এবং দামি হ্যান্ডব্যাগ জব্দ করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, অভিযানে তারা ২৮৪টি বাক্স ভর্তি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের দামি হ্যান্ডব্যাগ, ৭২ ব্যাগ ভর্তি গহনা ও দামি ঘড়ি এবং বিপুল পরিমাণ রিংগিত ও মার্কিন ডলার জব্দ করেছে।

পরে এক সংবাদ সম্মেলনে মালয়েশিয়ার দুর্নীতি দমন পুলিশের প্রধান অমর সিং বলেন, “ঠিক কি পরিমাণ গহনা উদ্ধার করা হয়েছে তা আমি এখনই বলেতে পারছি না। কারণ আমরা বাক্সেভরা গহনা জব্দ করেছি। তবে এটা বলতে পারি, পরিমাণ অনেক বেশি।” এদিকে, কোনো ধরনের পরোয়ানা ছাড়া নাজিব পরিবারকে হেনেস্তা করতে এই অভিযান পরিচালিত হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তার আইনজীবী। বলেন, “যেসব জিনিস জব্দ করা হচ্ছে সেগুলো হয়তো তেমন মূল্যবান কিছু না। কিন্তু যেভাবে সেটা প্রচার করা হচ্ছে তাতে সবার মনে আমার মক্কেলকে নিয়ে নেতিবাচক ছবি তৈরি হচ্ছে।”

জাতীয় নির্বাচনে পরাজয়ের এক সপ্তাহ পর গত বুধবার রাত থেকে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, পুত্রজায়ায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন এবং নাজিব পরিবারের মালিকানায় থাকা চারটি আবাসিক ভবনে তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ।

রাষ্ট্রীয় বিনিয়োগ এবং দেশের অর্থনীতিকে আরও গতিশীল করতে গড়া বিনিয়োগ তহবিল ‘ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভলপমেন্ট বরহাদ’ (ওয়ানএমডিবি) থেকে নাজিব ৭০ কোটি ডলার নিজের পকেটে পুরেছেন, ২০১৫ সালে এমন অভিযোগ উঠার পর তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়।

যদিও পরে মালয়েশিয়ার বিভিন্ন কর্তৃপক্ষ নাজিবকে অভিযোগ থেকে মুক্তি দেয়। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্তত ছয়টি দেশে তার বিরুদ্ধে এখনও দুর্নীতি তদন্ত চলছে। মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ দায়িত্ব গ্রহণের পরপরই নাজিবের বিরুদ্ধে ফের দুর্নীতি তদন্ত শুরুর ঘোষণা দেন। যদিও কোনো দুর্নীতিতে জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন নাজিব।

ওয়ানএমডিবি কেলেঙ্কারিতে নাম জড়িয়ে পড়ার পর নাজিবকে ক্ষমতা থেকে সরে দাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছিলেন মাহাথির। কিন্তু নাজিব সরে না দাঁড়ানোয় তাকে ক্ষমতা থেকে টেনে হিঁচড়ে নামাতেই ১৫ বছর পর রাজনীতিকে ফেরেন মাহাথির।

এক সময়ের চরম প্রতিদ্বন্দ্বী আনোয়ার ইব্রাহিমের সঙ্গে জোট বেঁধে নির্বাচনে জিতে ৯২ বছর বয়সে আবারও প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন মাহাথির।

নির্বাচনে হারের পর ছুটি কাটানোর কথা বলে স্ত্রীসহ দেশত্যাগের উদ্যোগ নিয়েছিলেন নাজিব। কিন্তু গত শনিবার তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ