ঢাকা, শনিবার 19 May 2018, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

জৈন্তাপুরে ৩৪ বস্তা চালসহ আটক ৪

জৈন্তাপুর (সিলেট) সংবাদদাতা: সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার উপজেলার ৩ নং চারিকাটা ইউনিয়নের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ ভিজিএফের আওতায় অতিদরিদ্রদের বরাদ্ধকৃত ৫০ কেজির ৩৪ বস্তা চাল পাচার কালে ৪  পাচারকারী কে আটক করে স্থানীয়রা।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়- ১৫ মে মঙ্গলবার ইউনিয়নের ৯ টি ওয়ার্ডের অতি দরিদ্রদের মধ্যে চাউল বিতরণ শুরু করে ইউনিয়ন পরিষদ। চাউল বিতরন শেষে ঐদিন সন্ধ্যায় সাড়ে ৭টায় ইউনিয়ন পরিষদ হতে ভিজিএফ এর ৩৪ বস্তা চাউল বোঝাই করে পাঁচার কালে স্থানীয় জনতা চতুল বাজার সংলগ্ন সরুখেল নামক স্থানে গাড়ীসহ ৪ জন চাউল পাচারকারীকে আটক করে। তাৎক্ষণীক বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌরীন করিম কে অবহিত করা হয়। খবর পেয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুনতাসির হাসান পলাশ এবং জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খাঁন মোঃ মাইনুল জাকির কে জনতার হাতে আটককৃত চাউল উদ্ধারের নির্দেশ দেন। নির্দেশ পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করে আটককৃত ৪ ব্যক্তিসহ ৩৪ বস্তা চাউল বোঝাই গাড়ী উদ্ধার করে জৈন্তাপুর মডেল থানায় নিয়ে আসে। আটককৃতরা হল গাড়ী চালক এখলাছুর রহমান, উপজেলার চারিকাটা ইউনিয়নের রামপ্রসাদ গ্রামের মৃত ইয়াকুব আলীর ছেলে জিয়াউল হক, জিয়াউল হকের ছেলে বদরুল ও দরবস্ত ইউনিয়নের চাল্লাইন গ্রামের মৃত মুহিবুল হকের ছেলে আব্দুর রহিম। স্থানীয় সচেতন মহল আরও জানান বিজিএফ চাউল ও নগদ টাকা বিতরন করা সম্পূর্ণ দায়ভার ইউপি চেয়ারম্যানের। কিন্তু কিভাবে তিনি চাউল বিতরণ করলের যেখানে বিজিএফের চাউল পাচার করা হয়। ইউনিয়নের দরিদ্র মানুষেরা সকাল হতে বিকেল পর্যন্ত যেখানে চাউল পায় না সেখানে ভিজিএফয়ের চাউল পাচার হয়ে থাকে এ নিয়ে উপজেলা জুড়ে চলছে আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সচেতন মহল ইউপি চেয়ারম্যানের দায় এড়াতে পারেন না বলে অভিযোগ তুলোন। ইউনিয়নের চাউল পাচার করা হয় কিন্তু একজন ইউপি চেয়ারম্যান জানেন না বিষয়টি রহস্যজনক।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ