ঢাকা, মঙ্গলবার 22 May 2018, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ৫ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আর্ত-সামাজিক বৈষম্য দূরীকরণে মাহে রমযান উজ্জল দৃষ্ঠান্ত -----------হাফিজ আব্দুল হাই হারুন

ইয়াতিম শিশুদের নিয়ে সিলেট মহানগর জামায়াত আয়োজিত ইফতার মাহফিলে মোনাজাত করছেন মহানগর নায়েবে আমীর হাফিজ আবদুল হাই হারুন ও উপস্থিত নেতৃবৃন্দ

সিলেট ব্যুরো : বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী সিলেট মহানগরীর নায়েবে আমীর হাফিজ আব্দুল হাই হারুন বলেছেন- কোরআন নাযিলের মাস মাহে রমযান হচ্ছে আত্মশুদ্ধি অর্জনের মাস। রমযান মাস হলো একটি বছরের প্রশিক্ষণের মাস। তাই পবিত্র মাহে রমযান থেকে শিক্ষা নিয়ে সমাজের সুবিধা বঞ্চিত মানুষ ও শিশুদের কল্যাণে বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে। ইনসাফ ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা ছাড়া সুবিধা বঞ্চিত মানুষ তাদের ন্যায্য অধিকার ফিরে পাবেনা। সামাজিক বৈষম্য ও ধনী-গরিবের ব্যবধান কমিয়ে আনতে মাহে রমজান হচ্ছে একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। 

তিনি গত রোববার সিলেট মহানগর জামায়াতের উদ্যোগে ইয়াতিম শিশুদের নিয়ে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে সভাপতির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন। মহানগর সেক্রেটারি মাওলানা সোহেল আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মাহফিল পূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- সিলেট মহানগর জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি মো: শাহজাহান আলী ও মো: আব্দুর রব, আলেমে দ্বীন মাওলানা লুৎফুর রহমান, জামায়াত নেতা মুফতী আলী হায়দার ও ক্বারী আলা উদ্দিন প্রমুখ। ইফতার মাহফিলে মুসলিম উম্মাহ ও দেশ জাতির কল্যান সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।  নেতৃবৃন্দ বলেন, মানবতার কল্যাণ নিশ্চিত করতে কোরআনের সমাজ তথা ইনসাফভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার বিকল্প নেই। ইসলামী রাষ্ট্র ছাড়া সুবিধাবঞ্চিত মানুষের দুঃখ-দুর্দশা লাঘব হবেনা। কিন্তু এদেশের ইসলামী আন্দোলনের বিরুদ্ধে সুগভীর ষড়যন্ত্র চলছে। সকল জুলুম উপেক্ষা করেই ইনসাফ ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে সবাইকে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ