ঢাকা, মঙ্গলবার 22 May 2018, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ৫ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

রোহিঙ্গাদের লক্ষ্য করে মদের বোতল ছুড়ে মারছে বর্মী সেনারা!

রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির পরিদর্শনে ভারতের অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়া

শাহনেওয়াজ জিল্লু : বাংলাদেশ-মিয়ানমারের সীমান্তবর্তী নো-ম্যান্স ল্যান্ডে বর্মী সেনাদের উসকানি অব্যাহত রয়েছে। এমনকি সেখানে বসবাসরত রোহিঙ্গাদের আশ্রয়স্থলকে লক্ষ্য করে মদের বোতল ছুড়ে মারছে বার্মিজ সৈন্যরা। এছাড়াও গত ২দিন সীমান্তের শূন্যরেখা থেকে রোহিঙ্গা লোকজনদের সরে গিয়ে বাংলাদেশের দিকে প্রবেশ করতে মাইকিংও করে যাচ্ছে তারা। গত রোববার ও গতকাল সোমবার দুদিন ধরে বর্মীসেনাদের এমন উস্কানিমূলক কর্মকাণ্ডে উত্তেজনা বৃদ্ধি পেয়েছে সীমান্তে। সেখানে বসবাসরত স্থানীয় ও রোহিঙ্গা নাগরিকদের মাঝে দেখা দিয়েছে উদ্বেগ ও উৎকন্ঠার। সেনা ও বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি)র সম্মিলিত সদস্যরা কাটাতারের বেড়া ঘেষে অবস্থান নিয়ে ইট-পাকেলও নিক্ষেপ করেছে বলে জানিয়েছে অবস্থানরত রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নুর হোসেন। এছাড়াও মদের খালি বোতলও নিক্ষেপ করে তারা। গত শনিবার এ ঘটনা ঘটে।
ঘুমধুম ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আজিজ জানিয়েছেন, এ সময় কোনাপাড়া শূন্যরেখায় আশ্রয় নেয়া প্রায় সাড়ে ৪ হাজার রোহিঙ্গাদের সরে যেতে মাইকিং করছে বার্মিজ সৈন্যরা। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-বিজিবিও ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। গত দু’মাসে বার্মা কর্তৃপক্ষ অঘোষিতভাবে সীমান্তে সেনা বৃদ্ধির ঘটনা ঘটালো বলে জানিয়েছে বিজিবি।
রোহিঙ্গারা জানিয়েছে, শনিবার ভোর থেকে সকাল সাড়ে এগারোটা পর্যন্ত তুমব্রু পয়েন্টে নতুন করে সাতটি পিকআপ ভ্যানে করে সেনা-বিজিপির সদস্যরা জড়ো হয়েছে। অস্ত্র নিয়ে কাঁটাতারের বেড়ার কাছেই অবস্থান নিয়েছে তারা। আর কাঁটাতারের বেড়ার ওপাশে পাহাড়ের চূড়ায় ৩০ গজ পরপর দূরত্বে স্থাপন করা বাংকার থেকে মাইকিং করা হচ্ছে শূন্যরেখায় আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের অন্যত্র চলে যেতে।
শূন্যরেখার রোহিঙ্গা ক্যাম্পের দলনেতা দিল মোহাম্মদ বলেন, বর্ষায় শূন্যরেখার আশ্রয় ক্যাম্পটি খালের পানিতে তলিয়ে যায়। জীবন রক্ষায় ঢাকার ব্যবসায়ীদের আর্থিক সহযোগিতায় শূন্যরেখায় পাঁচ ফুট উচু মাচাং ঘর তৈরি করা হচ্ছে। এ খবর পেয়ে আবারও পাগল হয়ে গেছে বার্মার সেনা-বিজিপি সদস্যরা।
নুর হোসেন বলেন, শূন্যরেখা থেকে রোহিঙ্গাদের চলে যেতে তারা কিছুক্ষণ পর পর মাইকিং করছে। ইট এবং মদের খালি বোতল ছুড়ে মারছে ক্যাম্পের ঝুপড়ি ঘরে।
এর আগে গত মার্চ মাসে সীমান্তে সেনা বৃদ্ধি ও রোহিঙ্গাদের ওপর হামলা চালিয়েছিল বার্মা। পরে বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ বার্মা দূতকে তলব করে জবাবদিহীতার আওতায় আনলে সটকে পড়ে বার্মার সৈন্যরা।
এ ব্যাপারে ঘুমধুম ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আজিজ বলেন, ‘গত শনিবার থেকে রোহিঙ্গাদের সরে যাওয়ার জন্য মাইকিং করা হচ্ছে। রোববারও করেছে। এ ঘটনার পর থেকে রোহিঙ্গাদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।
কক্সবাজারে বলিউড তারকা প্রিয়াঙ্কা
আরাকানে বার্মা সেনাবাহিনীর নির্যাতনে অতিষ্ট হয়ে প্রাণ বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের দেখতে ৪ দিনের সফরে কক্সবাজারে পৌঁছেছেন বলিউড এবং হলিউডের বিখ্যাত অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়া।
ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত হয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন করছেন ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়া। আজ সকাল আটটায় তিনি ঢাকা পৌঁছান। সেখানে ঘন্টা তিনেক অবস্থান করার পর দুপুর বারটার দিকে তিনি কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন। এরপর অপর একটি বিমানে করে কক্সবাজারে পৌঁছান।
সফরের প্রথম দিন টেকনাফের বাহারছড়ার সামলাপুর রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করেন প্রিয়াঙ্কা। আজ মঙ্গলবার সকালে যাবেন উখিয়ার বালুখালী ও জামতলী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে। এদিন বিকেলে টেকনাফ রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করবেন তিনি।
এরপর বুধবার উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করবেন। ৩ দিন কক্সবাজারে অবস্থানের পর আগামী বৃহস্পতিবার ঢাকায় ফিরে সাংবাদিক সম্মেলন করবেন প্রিয়াঙ্কা। সেদিনই বাংলাদেশ ত্যাগ করবেন তিনি।
তার ফেসবুক ভেরিফায়েড পেইজে নিজের ছবি পোষ্ট করে এক পোষ্টে বলেন, ‘ইউনিসেফের ফিল্ড ভিজিটের অংশ হিসেবে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে যাচ্ছি। এ সংক্রান্ত অভিজ্ঞতা জানতে ফলো করুন আমার ইন্সটাগ্রামে। এ নিয়ে (রোহিঙ্গাদের) বিশ্বের ভাবা উচিত, ভাবতে হবে আমাদেরও’।
নাইক্ষ্যংছড়ির পাহাড় ধ্বসে ৫ জনের মৃত্যু
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে পাহাড় কাটতে গিয়ে মাটিচাপা পড়ে পাঁচ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া ঘটনাস্থল থেকে একজনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড বরইতলির মনজয় পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন- মোহাম্মদ আবু, সোনা মিয়া, জসিম উদ্দিন, নুরুল হাকিম এবং নূর মোহাম্মদ। তারা সবাই ঘুমধুম ইউনিয়নের বরইতলি এলাকার বাসিন্দা বলে জানিয়েছে স্থানীয় ইউপি সদস্য ক্যানেরাও চাকমা।
ঘুমধুম ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আজিজ বলেন, স্থানীয় বাসিন্দা রুপায়ন বড়–য়ার নিয়োগ করা শ্রমিকরা পাহাড় কাটার সময় মাটিচাপায় পাঁচ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের উদ্ধারে স্থানীয়রা উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে।
তবে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার-ইউএনও সরোয়ার কামাল জানান, পাহাড় কাটার সময় ছয়জন শ্রমিক মাটিচাপা পড়ার খবর পেয়েছি। ঘটনাস্থলে উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছে প্রশাসন ও স্থানীয়রা। ঘটনাস্থল থেকে একজনকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ