ঢাকা, বুধবার 30 May 2018, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ১৩ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

আদমদীঘিতে সড়ক দখল করে খড় ও ধান শুকানোয় দুর্ঘটনার আশঙ্কা

আদমদীঘি (বগুড়া) সংবাদদাতা: বগুড়ার আদমদীঘির উপজেলার আঞ্চলিক সড়ক গুলোর বিভিন্ন স্থানে রাস্তা দখল করে ধান, খড় শুকানো হচ্ছে। এতে চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে ছোট যানবাহন ও পথচারীদের। ধানের খড় পিচ্ছিল হওয়ায় সামান্য কারণে দুর্ঘটনার আশংকায় রয়েছেন যানবাহন চালকেরা। রাস্তার উপরে ইরি-বোরো ধান কাটা-মাড়া ও খড় শুকানো পুরোদমে শুরু হওয়ায় প্রতিনিয়ত ছোট-বড় ঘটছে দুর্ঘটনা।
সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার কুন্দগ্রাম ইউনিয়নের শিববাটি বাজার হতে কুন্দগ্রাম বাজার রাস্তা, তিন মাথা বাজার হতে কড়ই বাজার ও কুন্দগ্রাম বাজার হতে আলতাফনগর বাজার রাস্তা সহ ছোট রাস্তাগুলোতে কৃষকরা বাধাহীনভাবে পাকা রাস্তার উপরে ধান, খড় শুকানো কাজ করছে। ধানের খড় অতীব পিচ্ছিল হওয়ায় সামান্য কারণে যানবাহন পিছলে ভয়াবহ দুর্ঘটনা শিকার হয় বলে জানিছেনে ভুক্তভোগী চালকরা।
ভ্যানচালক হামিদুল ইসলাম, আব্দুর রাজ্জাক, ইদ্রিস মিয়া ও অটো রিক্সাচালক আনিছুর রহমান, ইব্রাহিম আলী মোল্লা বলেন, রাস্তার উপরে ধান খড় শুকানোয় যাত্রী নিয়ে চলাচল দূরহ হয়ে পড়েছে। কৃষকসহ তাদের লোকজনরা ঠিকমত সাইড দিতে চায়না। ফলে অনেক সময় দুর্ঘটনা ঘটে থাকে।
মোটরসাইকেল চালক আলমগীর রহমান বলেন, অতীব কষ্ট করে চলাচল করছি। এসব ধান-খড় রাস্তায় দেয়ায় সামান্য পানিতে রাস্তা পিচ্ছিল হয়ে গাড়ী পিছলে যাচ্ছে।
রাস্তায় ধান শুকানো কৃষক মিজানুর রহমান ও ইকরামুল হক বলেন, বাড়িতে ধান মাড়াইয়ের পর্যাপ্ত জায়গা না থাকায় এ সময়টাতে অনেকটা বাধ্য হয়ে এ অন্যায় কাজ করতে হচ্ছে। অনেকে বকাবকি করলেও কানে শুনতে হচ্ছে।
উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে প্রশাসনের পক্ষ থেকে রাস্তায় ধান ও খড় না শুকানোর জন্য মাইকিং করা হয়ে থাকে। কিন্তু এর যথাযথ ব্যবস্থা না গ্রহণ করায় দিন দিন এর প্রবণতা বাড়িয়েই চলছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ