ঢাকা, বুধবার 30 May 2018, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ১৩ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

অসুস্থ হয়ে দুর্বিষহ জীবন পার করছে মুক্তিযোদ্ধা হাতেম আলী

আমতলী (বরগুনা) সংবাদদাতা: ১৯৭১ সালে আমতলী-কলাপাড়া যুদ্ধকালীন কমান্ডার  সুবেদার হাতেম আলী মস্তিস্কে রক্তজনিত রোগে মৃত্যু শয্যায় দিন পার করছেন।
অর্থের অভাবে তার উন্নত চিকিৎসা হচ্ছেনা।
সুবেদার হাতেম আলী গত ২০১৪ সালের ১৫ আগষ্ট মস্তিস্কে রক্তক্ষরণজনিত রোগে আক্রান্ত হন। এর পর তাকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে গুরুতর অবস্থায় ঢাকা  সিএমএইচ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে কয়েকদফা তাকে কেমো থেরাপী দেওয়া হয়। এর পরে তিনি বরিশাল সিআরপি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।
তার শরীরের বাম অংশ পক্ষাঘাতে আক্রান্ত। এ ব্যয়বহুল চিকিৎসায় তার প্রায় এযাবৎ ৮ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে  বলে মুক্তিযোদ্ধার পরিবার সূত্রে  জানাগেছে।
বর্তমানে অর্থের অভাবে তার উন্নত চিকিৎসা চলছেনা। একদিন দেশ মাতৃকার জন্য জীবন বাজি রেখে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন তিনি। আজ তিনি জীবনের শেষ বেলায় এসে কার্যকর চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত।
অসুস্থ মুক্তিযোদ্ধা  সুবেদার (অবঃ) হাতেম আলী হাওলদার জানান,তিনি ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে  নবম সেক্টরের অধীনে এলাকায় আমতলী-কলাপাড়া যুদ্ধকালীন কমান্ডার ছিলেন।
স্বাধীনতা যুদ্ধে পটুয়াখালী সাব-সেক্টরের হাই কমান্ড- কমান্ডার কাপ্টেন মেহেদী আলী ইমাম তাকে কমান্ডার হিসাবে নিযুক্ত করে পটুয়াখালী জেলার ১০ টি থানায় বিচ্ছিন্নভাবে থাকা বিভিন্ন ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র  বাহিনীকে একক কমান্ডের আওতায় আনার জন্য লিখিত নির্দেশ প্রদান করেন।
তার একক প্রচেষ্টায়  বিচ্ছিন্ন থাকা ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বাহিনী দলকে  একক কমান্ডের আওতায় নিয়ে আসেন। এর মধ্যে মরহুম এম,পি, সিদ্দিকুর রহমানের বাহিনী উল্লেখযোগ্য।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ