ঢাকা, সোমবার 4 June 2018, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ১৮ রমযান ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

কনজারভেটিভ পার্টিতে ইসলামোফোবিয়া তদন্তে চাপের মুখে মে

৩ জুন, দ্য গার্ডিয়ান : ব্রিটেনের কনজারভেটিভ পার্টিতে ইসলামোফোবিয়া তদন্তের জন্য ক্রমবর্ধমান চাপের মধ্যে রয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী থারেসা মে।

চলতি সপ্তাহে মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেন (এমসিবি) ও টরি পার্টির সাঈদা ওয়ার্সি এক খোলা চিঠির মাধ্যমে এই আহ্বান জানিয়েছেন।

এমসিবি’র সদস্য মোহাম্মদ শেখ বলেন, ‘আমরা নিজেদের দলের মধ্যে কোন ধরনের বৈষম্য সহ্য করব না- মে’র এই প্রতিশ্রুতি প্রমাণের জন্য একটি স্বাধীন তদন্ত প্রয়োজন।’

বিষয়টি বিরোধী টরি পার্টি গুরুত্বের সঙ্গে নিতে ব্যর্থ হয়েছে-মুসলিম কাউন্সিলের এই অভিযোগের পর তিনি এই আহ্বান জানালেন।

টরি পার্টির সাবেক চেয়ারম্যান লেডি ওয়ার্সি বলেন, এই ব্যর্থতা তার দলের জন্য ‘বিব্রতকর’ এবং গত দুই বছর ধরে তার এধরনের আহ্বানকে উপেক্ষা করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীকে লেখা একটি খোলা চিঠিতে লর্ড মোহাম্মদ শেখ বলেন, ‘মুসলিম ভোটাররা কনজারভেটিভ পার্টিকে ভোট দেন না কারণ তারা সহজভাবেই বিশ্বাস করেন যে কনজারভেটিভ পার্টি মুসলমানদের সমর্থন করবে না।’

তার চিঠিতে ২০১৬ সালে লন্ডনের মেয়র নির্বাচনের আগে সাদিক খানের বিরুদ্ধে জ্যাক গোল্ডস্মিথ পরিচালিত ‘বিবৃত প্রচারণা’ সহ বেশ কয়েকটি ঘটনার উল্লেখ করেছেন।শেখ লিখেছেন, ‘গোল্ডস্মিথের সিদ্ধান্তটি তার লেবার প্রতিদ্বন্দ্বীকে ‘সন্ত্রাসী সহানুভূতিশীল’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে যা চরম মর্যাদাহানির। এমনকি সবচেয়ে উৎসাহী কনজারভেটিভ সমর্থকদের জন্য এটি হানিকর- হোক সে মুসলিম বা অমুসলিম। এই ধরনের আচরণ কেবল দলকেই বিব্রতকর করে না, বরং অনেক কনজারভেটিভ সদস্য ও ভোটারদেরকে বিচ্ছিন্ন করছে।’তিনি বলেন, ‘গোল্ডস্মিথের বিষয়টি কনজারভেটিভ পার্টির প্রধান এবং তারপর প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন কর্তৃক ‘উপেক্ষা’ করা হয়েছিল

এমসিবি’র পক্ষ থেকে বলা হয়, চলতি সপ্তাহে গোল্ডস্মিথের প্রচারণা পার্টিতে মুসলিম বিরোধী বর্ণবাদ প্রচারের বিষয়টি স্পষ্ট প্রমাণ। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ